‘দুই’ চ্যালেঞ্জকে ইতিবাচকভাবেই নিতে হবে : মুমিনুল

স্পোটর্স ডেস্ক

4

আজ ইতিহাসের সাক্ষী হতে যাচ্ছে বাংলাদেশ। গোলাপি বলে প্রথম দিবারাত্রির টেস্ট খেলবে মুমিনুল হকের দল। অনেক ইতিহাসের রূপকথা লেখানো ইডেন গার্ডেনসেই রচিত হবে আরও একটি ইতিহাস। ইডেনের স্টেডিয়াম সেজেছেও নতুন সাজে। সিরিজে যে বাংলাদেশ ১-০ ব্যবধানে পিছিয়ে আছে সেটা কারও মাথাতেই নেই। কলকাতা টেস্টটি যেন রূপ নিয়েছে নতুন মাত্রা। এবার আসি মাঠে খেলার প্রসঙ্গে।
গতকাল ফ্লাডলাইটের আলোতে অনুশীলন করেছে মুশফিক-মাহমুদউল্লাহ-লিটনরা। গোলাপি বলে রাতে নিজেদের ঝালিয়ে নিয়েছেন শেষবার। তবে প্রথম টেস্টে অভিজ্ঞতা থেকে টাইগাররা কতটুকু শিক্ষা নিয়েছে সেটাই দেখার বিষয়। ব্যাটসম্যানরা যে কঠিন পরীক্ষার মুখে পরতে যাচ্ছেন সেটা আর বলার অপেক্ষাই রাখে না। গোলাপি বলে ব্যাটসম্যানদের জন্য অপেক্ষা করছে নতুন রোমাঞ্চের। অনুশীলনের শুরুতেই ম্যাচ পূর্ববর্তী সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হন টাইগারদের টেস্ট অধিনায়ক মুমিনুল হক। পুরো সংবাদ সম্মেলন একটাই আলোচনা ‘গোলাপি বল’।
মুমিনুল হক জানালেন, রাতেই ব্যাটসম্যানদের জন্য বেশি চ্যালেঞ্জ নিতে হবে। মুমিনুল বলেন, ‘আমার কাছে মনে হয় গোলাপি বলে সবচেয়ে চ্যালেঞ্জটা হবে আন্ডার দ্য লাইট। বলের যে উজ্জ্বলতা থাকে সেটার কারণে ব্যাটসম্যানদের সম্যস্যা হবে, ফিল্ডারদেরও চ্যালেঞ্জ থাকবে। আর স্কিলের কথা বললে ব্যাটিংয়ে বেশি মনযোগী হতে হবে। প্রতিটা বলেই সাবধান থাকতে হবে।’
বাংলাদেশের সামনে থাকছে দুটি চ্যালেঞ্জ। একটি তো গোলাপি বলের চ্যালেঞ্জ, অন্যটি শামি-শর্মাদের মতো পেসারদের মোকাবিলা করা। বাংলাদেশ দলপতি জানালেন, ‘ভারতের বোলারদের মোকাবিলা করাটাও চ্যালেঞ্জ আবার গোলাপি বলে খেলাটাও চ্যালেঞ্জ। তবে চ্যালেঞ্জটা ইতিবাচকভাবেই নেয়া উচিৎ। আমরা যেটা পজেটিভভাবেই নিচ্ছি। সেভাবেই এগোচ্ছি আমরা।’