দুইয়ে থাকলেই বিশ্বকাপ খেলবে মারিয়া-আঁখিরা!

9

কাজটা মোটেও সহজ হবে না। তবে সমীকরণ বলছে এএফসি কাপের চূড়ান্ত পর্ব পেরিয়ে আট দলের মধ্যে সেরা দুইয়ে থাকলেই একমাত্র মিলবে বিশ্বকাপের টিকিট। মারিয়া-আঁখিদের চোখ বিশ্বকাপে হলেও কাজটা সহজ হবে না মোটেও। কেননা জাপান, অস্ট্রেলিয়া, কোরিয়াদের মতো বিশ্বমানের দলগুলোকে পাল্লা দিয়েই জায়গা করে নিতে হবে চূড়ান্ত পর্বের ফাইনালে। যদিও অভিজ্ঞতাটা প্রথমবার নয় মারিয়াদের জন্য। এর আগে একই টুর্নামেন্টের চূড়ান্ত পর্বে খেলার অভিজ্ঞতা আছে বাঘিনীদের। সেবার ভরাডুবি হলেও এবার অভিজ্ঞতার আত্মবিশ্বাস ঝুলিতে কুড়িয়ে থাইল্যান্ডে বৃহস্পতিবার যাচ্ছে মেয়েরা।
এবার এএফসি অনূর্ধ্ব-১৬ নারী চ্যাম্পিয়নশিপের প্রাথমিক বাছাইপর্বে বাহরাইনকে ১০-০, লেবাননকে ৮-০, সংযুক্ত আরব আমিরাতকে ৭-০ ও শক্তিশালী ভিয়েতনামকে ২-০ গোল ব্যবধানে হারিয়ে টুর্নামেন্টে অপরাজিত চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল বাংলাদেশ। দ্বিতীয় রাউন্ডেও সাফল্যের ধারাবাহিকতা অব্যাহত। ফিলিপাইনকে ১০-০ ও মিয়ানমারকে ১-০ ব্যবধানে হারিয়ে এএফসির চূড়ান্তপর্ব নিশ্চিত করে ফেলেছে বাংলাদেশ। শেষ ম্যাচে অবশ্য চীনের প্রাচীর ভেদ করে জয় তুলে আনা সম্ভব হয়নি মেয়েদের। তবে, লড়াকু ফুটবল খেলে তারা প্রমাণ করেছে যোগ্যতার। সঙ্গে টিকিট নিশ্চিত করেছে সামনের বছরে অঃ ১৭ নারী বিশ্বকাপের চূড়ান্ত বাছাইপর্ব। চূড়ান্ত বাছাইয়ে লাল-সবুজদের প্রতিপক্ষ জাপান, অস্ট্রেলিয়া ও স্বাগতিক থাইল্যান্ড। এই বাধা পেরিয়ে সেমিতেও জিততে পারলেই মিলবে বিশ্বকাপের টিকিট।