ব্যাংকের ভল্ট ভেঙে টাকা লুট

দশ বছর পর তিন ডাকাতের কারাদন্ড

নিজস্ব প্রতিবেদক

3

দশ বছর আগে একটি বেসরকারি ব্যাংকের রাউজানের পথেরহাট শাখার ভল্ট ভেঙে টাকা লুটের মামলায় তিন ডাকাতকে বিভিন্ন মেয়াদে কারাদন্ড দিয়েছেন আদালত। গতকাল রবিবার চতুর্থ অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ মোসলেহ উদ্দিন আহমেদ এই রায় দেন। দন্ডিতরা হলেন, দিদারুল আলম, হোসেন বাদশা এবং আবুল হাশেম। এদের মধ্যে দু’জন পলাতক রয়েছেন।
আদালত সূত্র জানায়, মামলার তিন আসামির মধ্যে আদালত দিদারুল আলম ও হোসেন বাদশাকে ১০ বছর করে কারাদন্ড এবং ১০ হাজার টাকা করে জরিমানা, অনাদায়ে আরও চার মাসের কারাদন্ড দিয়েছেন। আরেক আসামি আবুল হাশেমকে তিন বছরের কারাদন্ড ও ৩০ হাজার টাকা জরিমানা, অনাদায়ে আরও এক মাসের কারাদন্ড দেন আদালত। দন্ডিত তিন আসামির মধ্যে আবুল হাশেম রায় ঘোষণার সময় উপস্থিত ছিলেন। তাকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। বাকি দুজন জামিনে গিয়ে পলাতক রয়েছেন। তাদের বিরুদ্ধে সাজা পরোয়ানা জারি করা হয়েছে।
মামলার সংক্ষিপ্ত বিবরণ উদ্ধৃত করে আদালতে বাদী পক্ষে মামলা পরিচালনাকারী জিয়া হাবীব আহসান জানান, ২০০৯ সালের ১৩ সেপ্টেম্বর ইউনাইটেড কমার্শিয়াল ব্যাংক রাউজান পথেরহাট শাখার ভল্ট ভেঙে নগদ পাঁচ লাখ ৪৭ হাজার টাকা লুট করা হয়। এই ঘটনায় করা মামলার তদন্ত শেষে পুলিশ একই বছরের ২৩ ডিসেম্বর আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করে। আসামিদের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠনের পর রাষ্ট্রপক্ষে ১৩ জন সাক্ষীর সাক্ষ্য শেষে আদালত রায় ঘোষণা করেন।