প্রধানমন্ত্রী আসছেন ২১ মার্চ

দক্ষিণ চট্টগ্রামজুড়ে উৎসবের আমেজ

আবেদ আমিরী, পটিয়া

59

প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা আগামী ২১ মার্চ পটিয়ায় জনসভায় যোগ দেবেন। আসন্ন নির্বাচন উপলক্ষে তিনি এ পর্যন্ত যতগুলো জনসভা করেছেন এর সবগুলো বিভাগীয় শহরে। কিন্তু ব্যতিক্রম শুধু পটিয়ার ক্ষেত্রে। বিভাগীয় শহর রেখে তার পটিয়ায় আগমনের আগ্রহে পটিয়াসহ দক্ষিণ চট্টগ্রামের জনসাধারণের মাঝেও বাড়তি কৌতুহল, আনন্দ আর উল্লাস দেখা যাচ্ছে। প্রধানমন্ত্রীর আগমনকে ঘিরে পটিয়া পৌর এলাকা থেকে শুরু করে উপজেলার সর্বত্র ঢেলে সাজানো হয়েছে। বাড়ানো হয়েছে নিরাপত্তা ব্যবস্থা।
শাহ আমানত সেতুর নগরী প্রান্ত থেকে শুরু করে প্রধানমন্ত্রীকে স্বাগতম ও শুভেচ্ছা জানিয়ে টাঙানো ব্যানার ফেস্টুনে পুরো দক্ষিণ চট্টগ্রাম পর্যন্ত চেয়ে গেছে। বর্ণিল সাজে সেজেছে পটিয়া। বিরাজ করছে সাজ সাজ রব। পটিয়াসহ দক্ষিণ চট্টগ্রামের সর্বত্র ব্যানার, পোস্টার ও পেস্টুনে ছেয়ে গেছে। থেমে থেমে চলছে স্বাগত মিছিল।
এদিকে আওয়ামী লীগ নেতারা বলছেন, এ জনসভায় পূর্বের সব রেকর্ড ভেঙে বিপুল জনসমাগম ঘটাতে ব্যাপক প্রস্তুতি রয়েছে আওয়ামী লীগের।
সরেজমিন দেখা গেছে, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার পটিয়া সফরকে কেন্দ্র করে আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের নেতা-কর্মীদের মাঝে বিরাজ করছে উৎসবের আমেজ। পুরো উপজেলা ছেয়ে গেছে ব্যানার, পোস্টার, ফেস্টুন, বিলবোর্ড আর তোরণে। জনসভা উপলক্ষে আওয়ামী লীগ নেতা-কর্মীদের প্রস্তুতি এখন শেষ পর্যায়ে।
জনসভার মাঠে মঞ্চসহ সব কাজ দ্রুতগতিতে এগিয়ে যাচ্ছে। পৌর কর্তৃপক্ষ পটিয়া পৌর এলাকাকে বর্ণিল রঙে সাজাচ্ছে।
দলটির নেতারা বলছেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার এবারের আগমনে দক্ষিণ চট্টগ্রামবাসীর যেসব স্বপ্ন অপূর্ণ রয়েছে, সেগুলো আলোর মুখ দেখবে। আওয়ামী লীগ নেতারা ব্যস্ত সময় পার করছেন প্রচার-প্রচারণায়। প্রধানমন্ত্রীর পটিয়ার আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয় মাঠের জনসভায় ব্যাপক জনসমাগম ঘটাতে প্রচারণা চালাচ্ছেন তারা। গ্রাম, ওয়ার্ড, ইউনিয়ন, উপজেলা থেকে শুরু করে সকল পর্যায়ের নেতা-কর্মীরা কর্মীসভা করছেন প্রতিদিন। এছাড়া দক্ষিণ চট্টগ্রামের বিভিন্ন আসনের দলীয় সংসদ সদস্যরা নিজ নিজ নির্বাচনী এলাকায় অব্যাহত প্রচারণা চালাচ্ছেন।
স্থানয়ীরা ধারণা করছেন, দক্ষিণ চট্টগ্রামবাসীর জন্য নানা উপহার নিয়ে আসবেন প্রধানমন্ত্রী। তবে তিনি কি কি উপহার এবং বার্তা নিয়ে আসছেন তা জানা না গেলেও কৌতুহল নিয়েই জনসভার মাঠমুখি হবেন সাধারণ মানুষ।
জেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি মোতাহেরুল ইসলাম চৌধুরী বলেন, নেতা-কর্মীদের মধ্যে উৎসবের আমেজ বিরাজ করছে। পটিয়াসহ দক্ষিণ চট্টগ্রামে ব্যানার-পোস্টার-ফেস্টুন লাগানো হচ্ছে। জেলার বিভিন্ন উপজেলা ও বিভিন্ন ইউনিটের পক্ষ থেকে চলছে ব্যাপক তৎপরতা।
দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মফিজুর রহমান জানান, পটিয়ায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জনসভা সফল করতে সব ধরনের প্রস্তুতি সম্পন্ন। এ জনসভাকে জনসমুদ্রে পরিণত হবে বলেও তিনি উল্লেখ করেন।
প্রধানমন্ত্রীর আগমন উপলক্ষে প্রশাসনও বেশ তৎপর। পটিয়ায় পুলিশসহ বিভিন্ন বাহিনীর সদস্যরা ইতোমধ্যে অবস্থান নিয়েছে। তারা নিরাপত্তা বলয় তৈরির কাজ শুরু করেছে। তারা প্রধানমন্ত্রীর নিরাপত্তার বিভিন্ন দিক খতিয়ে দেখছেন বলে জানা গেছে।
পটিয়া থানার ওসি শেখ মোহাম্মদ নেয়ামত উল্লাহ জানান, কয়েক স্তরের নিরাপত্তা চাদর তৈরি করা হচ্ছে। প্রধামন্ত্রীর সমাবেশের দিন যতই ঘনিয়ে আসবে এ নিরাপত্তা ব্যবস্থা আরো বিস্তৃত হবে।