ত্রাণ পেয়েছে সোয়া ছয় কোটি মানুষ

8

করোনাভাইরাস সংক্রমণ পরিস্থিতিতে মানবিক সহায়তা হিসেবে এ পর্যন্ত সারা দেশে সোয়া ছয় কোটি মানুষকে ত্রাণ দিয়েছে সরকার। ৬৪টি জেলা প্রশাসন থেকে পাওয়া তথ্যের ভিত্তিতে মঙ্গলবার এক সরকারি তথ্য বিবরণীতে এই তথ্য জানানো হয়েছে। সেখানে বলা হয়, ১ জুন পর্যন্ত সারা দেশে ত্রাণ হিসেবে এক লাখ ৯২ হাজার মেট্রিক টন চাল বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে। এতে এক কোটি ৪১ লাখ ১৮ হাজার ৪৮৮টি পরিবারের ৬ কোটি ২৩ লাখ ১৪ হাজার ৪০৯ জন উপকারভোগী। সরকারি ভাষ্যে বলা হয়েছে, ত্রাণ হিসেবে নগদ ৮৬ কোটি ৪৩ লাখ ৭২ হাজার টাকা বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে। এর মধ্যে বিতরণ করা হয়েছে ৭৫ কোটি ৭১ লাখ ১৮ হাজার টাকা।
এই নগদ টাকায় ৮৪ লাখ ৭ হাজার ১০৭টি পরিবারের ৩ কোটি ৭৬ লাখ ১৫ হাজার ৭৯ জন উপকার ভোগ করেছেন।
এছাড়া শিশুদের খাদ্য কিনতে নগদ ২৩ কোটি ৯৪ লাখ টাকা বরাদ্দ দেওয়া হলেও ১৯ কোটি ৩১ লাখ ৫৩ হাজার টাকা বিতরণ করা হয়েছে। এতে ৬ লাখ ১০ হাজার ২৫১টি পরিবারের উপকারভোগীর সংখ্যা ১২ লাখ ৮৪ হাজার ২০০ জন।
করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের প্রেক্ষাপটে সরকার গত ২৬ মার্চ থেকে ৩০ মে পর্যন্ত সব অফিস আদালত বন্ধ রাখে সরকার।
এই সময় গণপরিবহনও বন্ধ থাকা রাখা হয়েছিল এবং কোভিড-১৯ এর সংক্রমণ এড়াতে বিশেষ প্রয়োজন ছাড়া সবাইকে ঘরে থাকার পরামর্শ দিয়েছে সরকার। ফলে বেশিরভাগ শ্রমজীবী কর্মহীন হয়ে পড়েন।
এই কর্মহীনদের পাশরাপাশি দরিদ্র জনগোষ্ঠীর মধ্যে তাৎক্ষণিক মানবিক সহায়তা হিসেবে বিতরণের জন্য সরকার ধাপে ধাপে নগদ টাকা এবং চাল বরাদ্দ দিচ্ছে।