লাইসেন্সের শর্ত অমান্য

তিন ফার্মেসিকে ৪০ হাজার টাকা জরিমানা

19

নগরের কেবি ফজলুল কাদের সড়কের ইপিক মার্কেটের তিনটি ওষুধের দোকানকে ৪০ হাজার টাকা জরিমানা করেছে ভ্রাম্যমাণ আদালত। লাইসেন্সের শর্ত অমান্য, অনুমোদনহীন বিদেশি ওষুধ সংরক্ষণ ও বিক্রি, ক্রেতাদের রশিদ না দেওয়া, নির্ধারিত তাপমাত্রায় ওষুধ সংরক্ষণ না করায় এ জরিমানা করা হয়।
গতকাল বুধবার চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসনের সহকারী কমিশনার ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. আলী হাসান এ অভিযানে নেতৃত্ব দেন। অভিযানে ওষুধ প্রশাসন, চট্টগ্রামের তত্ত¡াবধায়ক হোসাইন মোহাম্মদ ইমরানসহ সিএমপির সদস্যরা অংশ নেন।
মো. আলী হাসান জানান, চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের সামনে ড্রাগ অ্যাক্ট ১৯৪০ এর আওতায় ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করেছি। ইপিক মার্কেটের গাজী ফার্মেসি ও সার্জিক্যাল, সাথী মেডিকেল হল এবং ডায়মন্ড ফার্মেসি ওষুধ প্রশাসন কর্তৃক ইস্য করা লাইসেন্সের শর্ত অমান্য করে ব্যবসা পরিচালনা করছিল। তারা অনুমোদনহীন বিদেশি ওষুধ সংরক্ষণ ও বিক্রি করছিলেন। খবর বাংলানিউজের
সাথী মেডিকেল হলে লাইসেন্সের মেয়াদ ছিল না। তিনটি ফার্মেসিতেই দেখা যায়, ওষুধ বিক্রির পর কোনো ক্যাশ মেমো দিচ্ছে না। এছাড়াও সঠিক তাপমাত্রায় মেডিসিনগুলো ফ্রিজে সংরক্ষণ করার নির্দেশনা থাকলেও ফার্মেসিগুলো ফ্রিজ ছাড়াই বাইরে ওষুধ সংরক্ষণ করছিল।
এসব অপরাধের কারণে গাজী ফার্মেসি ও সার্জিক্যালকে ১৫ হাজার টাকা, সাথী মেডিকেল হলকে ২০ হাজার টাকা ও ডায়মন্ড ফার্মেসিকে ৫ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।
অনুমোদনহীন ওষুধগুলো জব্দক্রমে নষ্ট করা হয় এবং ভবিষ্যতে এ ধরনের অপরাধ না করার ব্যাপারে সতর্ক করা হয়।