স্বেচ্ছাসেবকদলের সভায় ডা. শাহাদাত হোসেন

তারুণ্যের আস্থার প্রতীক তারেক রহমান

6

চট্টগ্রাম মহানগর বিএনপির সভাপতি ডা. শাহাদাত হোসেন বলেছেন, ১৯৯১ সালে নির্বাচনী প্রচারণায় অংশগ্রহণের মাধ্যমে রাজনীতির প্রথম সারিতে তারেক রহমানের সক্রিয় আগমন ঘটে। দলের সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিবের দায়িত্ব পেয়ে জিয়াউর রহমানের ১৯ দফার আলোকে তিনি দেশব্যাপী দলের মাঠ পর্যায়ের নেতাকর্মী ও সমর্থকদের সাথে ব্যাপক গণসংযোগ শুরু করেন। এ সভাগুলোতে তিনি দলের গঠনতন্ত্র, উদ্দেশ্য ও ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা নিয়ে নেতাকর্মীদের সঙ্গে দীর্ঘ মতবিনিময় করেন। এই জনসংযোগের ফলে তারুণ্যের আস্থার প্রতীকে পরিণত হন তারেক রহমান।
তিনি বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব লায়ন আসলাম চৌধুরী ও চট্টগ্রাম মহানগর স্বেচ্ছাসেবক দলের যুগ্ম সম্পাদক আলী মর্তুজা খানের নি:শর্ত মুক্তি দাবী করেন। তিনি গত ২০ নভেম্বর বুধবার বিকালে দেশনায়ক তারেক রহমানের ৫৫তম জন্মদিন উপলক্ষ্যে চট্টগ্রাম মহানগর স্বেচ্ছাসেবকদলের উদ্যোগে নাসিমন ভবনস্থ দলীয় কার্যালয় চত্ত¡রে আলোচনা সভা ও স্বেচ্ছায় রক্তদান কর্মসূচিতে প্রধান অতিথির বক্তব্যে একথা বলেন। তারেক রহমানের জন্মদিন উপলক্ষে মহানগর স্বোচ্ছাসেবক দলের উদ্যোগে চট্টগ্রাম রেডক্রিসেন্ট সোসাইটির পরিচালনায় স্বেচ্ছায় রক্তদান কর্মসূচি অনুষ্ঠিত হয়। স্বোচ্ছাসেবক দলের ৫০ জন নেতাকর্মী স্বেচ্ছায় রক্তদান করেন।
এতে প্রধান বক্তার বক্তব্যে চট্টগ্রাম মহানগর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আবুল হাশেম বক্কর বলেন, তারেক রহমানের অভাবনীয় জনপ্রিয়তায় ঈর্ষান্বিত হয়ে ওয়ান ইলেভেনের সরকার গভীর চক্রান্তের নীলনক্সার চক একেছিল। তার নির্মম বলি হন আধুনিক রাজনীতির এই আইডল। কথিত দূর্নীতি মামলায় গ্রেফতার করে তার বিরুদ্ধে ১৩টি মামলা করা হয়। সেনা নিয়ন্ত্রিত সরকার তাকে গ্রেফতার করে নির্মম নির্যাতন করে।
বর্তমান সরকার ক্ষমতায় এসে আরো অনেক মিথ্যে মামলায় জড়িত করেছে। এই অবৈধ বাকশালি সরকার অনেক চেষ্টা করেও একটি মামলা প্রমাণ করতে পারেনি। বিশেষ অতিথির বক্তব্যে চট্টগ্রাম মহানগর বিএনপির সিনিয়র সহ-সভাপতি আবু সুফিয়ান বলেন, ৫৫তম জন্মদিনে ভবিষ্যৎ রাষ্ট্র নায়ক তারুণ্যের অহংকার তারেক রহমান’র জন্য দেশবাসীর কাছে দোয়া প্রার্থনা করছি। ভবিষ্যৎ এ দেশনায়ক সুস্থ হয়ে বীরের বেশে দেশে ফিরে আসবেন এবং দেশে গণতন্ত্র ও আইনের শাসন প্রতিষ্ঠা করবেন, ইনশাআল­াহ।
চট্টগ্রাম মহানগর স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি এইচ এম রাশেদ খানের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক বেলায়েত হোসেন বুলুর পরিচালনায় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন চট্টগ্রাম মহানগর বিএনপির সহ-সভাপতি আলহাজ্ব এম এ আজিজ, নাজিমুর রহমান, শফিকুর রহমান স্বপন, যুগ্ম সম্পাদক ইয়াছিন চৌধুরী লিটন, আনোয়ার হোসেন লিপু, শাহেদ বক্স, সামশুল হক, গাজী সিরাজ উল­াহ, সাংগঠনিক সম্পাদক মন্জুরুল আলম চৌধুরী মন্জু, মো. কামরুল ইসলাম, কোতয়ালী থানা বিএনপির সভাপতি মনজুর রহমান চৌধুরী, মহানগর স্বেচ্ছাসেবক দলের সি. সহ-সভাপতি তফাজ্জল হোসেন, সহ-সভাপতি আসাদুজ্জামান দিদার, সাংগঠনিক সম্পাদক জিয়াউর রহমান জিয়া, যুগ্ম সম্পাদক জমিরউদ্দীন নাহিদ প্রমুখ। বিজ্ঞপ্তি