এসডিজি ইয়ুথ ফোরামের সভায় ড. ইউনূস

তরুণরাই টেকসই উন্নয়ন ও জাতি গড়ার চালিকাশক্তি

35

তরুণদের উদ্ভাবনী চিন্তার বিকাশ ও উদ্যোক্তা হিসেবে গড়ে তোলা প্রয়োজন। দারিদ্রতা-ক্ষুধামুক্ত পৃথিবী, সকলের জন্য সুস্বাস্থ্য, মানসম্মত শিক্ষার প্রসার, শোভন কর্মসংস্থান সৃষ্টি, পরিবেশ সুরক্ষা-জলবায়ু পরিবর্তনের চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা ও বৈষম্যমুক্ত পৃথিবী নির্মাণে জাতিসংঘ ঘোষিত টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা (এসডিজি) বাস্তবায়নে তরুণরাই প্রাগ্রসর ভূমিকা রাখবে বলে অভিমত ব্যক্ত করেছেন নোবেল বিজয়ী অর্থনীতিবিদ অধ্যাপক ড. মুহাম্মদ ইউনূস। এসডিজি ইয়ুথ ফোরাম’র উদ্যোগে গত ৬ জুন চট্টগ্রামের বাসভবনে অনুষ্ঠিত মতবিনিময় সভায় তিনি উপরোক্ত মন্তব্য করেন।
এসডিজি ইয়ুথ ফোরাম’র সভাপতি নোমান উল্লাহ বাহার’র সভাপতিত্বে সভায় অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, ইস্ট ডেল্টা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর সিকান্দর খান, শিক্ষাবিদ শামসুদ্দীন শিশির, চট্টগ্রাম প্রতিবন্দী উন্নয়ন সংগঠনের সভাপতি এম.এ সবুর, এসডিজি ইয়ুথ ফোরাম’র সহ সভাপতি ফরিদ আলম, বাংলাদেশ যাত্রী কল্যাণ সমিতির মহাসচিব মোজাম্মেল হক চৌধুরী, মিনহাজ ওয়েলফেয়ার ফাউন্ডেশন বাংলাদেশ’র ট্রাস্টি এড. মুহাম্মদ শাহীদ রিজভী, সম্মিলিত সামাজিক সংগঠন পরিষদের সভাপতি ওসমান ফারুকী হিমাদ্রী, ডেল্টা লার্নিং সেন্টারের সিইও মো: আলমগীর, এ্যবাকাস’র প্রতিষ্ঠাতা রাসেল আহমেদ, পাওয়ার টু ব্লুম’র সভাপতি মিথেলা হক, কৃষকের বাজার’র সভাপতি আশিক সায়েম, জীবনের আলো-সিরাজগঞ্জের সভাপতি শেখ রাসেল বেলকুচি, শতাব্দী রায় মনীষা, এসডিজি ইয়ুথ ফোরামের সদস্য আল আমিন প্রমুখ। বৈশ্বিক সংযোগ সৃষ্টিতে তরুণদের দক্ষতা বৃদ্ধি ও নেতৃত্ব বিকাশের মাধ্যমে এসডিজি বাস্তবায়নে কার্যকর ভূমিকা পালন করা এসডিজি ইয়ুথ ফোরাম’র প্রয়াস বলে জানান সংগঠনের সভাপতি নোমান উল্লাহ বাহার। সভায় ড. মুহাম্মদ ইউনুস তরুণদের উদ্দ্যেশ্যে আরও বলেন, তথ্য-প্রযুক্তির উৎকর্ষতায় পৃথিবী এখন হাতের মুঠোয়। তথ্য-প্রযুক্তির সঠিক ব্যবহার, যোগাযোগ সক্ষমতা ও দক্ষতা বৃদ্ধির মাধ্যমে পৃথিবীর কল্যাণে নিয়োজিত হতে হবে তরুণদের। পৃথিবীব্যাপী প্রচলিত ধ্যান-ধারণা, বহুমাত্রিক জ্ঞান ও অন্যান্য বিষয়াদি সম্পর্কে সম্যক ধারণা অর্জনের মাধ্যমে স্থানীয় পর্যায়ে এসডিজি বাস্তবায়নে তারুণ্যের মেধা ও সৃজনশীলতাকে কাজে লাগানোর বিকল্প নেই। তারুণ্যের আত্মপ্রচেষ্টা ও স্বেচ্ছা-উদ্যোগই জীবনে সাফল্যের চাবিকাঠি। তরুণরাই টেকসই উন্নয়ন ও জাতি গড়ার মূল চালিকাশক্তি। উচ্ছ¡ল তারুণ্য অধ্যবসায় ও অদ্যম প্রচেষ্টার মাধ্যমে বিশ্ব নাগরিক হয়ে গড়ে উঠবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন শান্তিতে নোবেল বিজয়ী অর্থনীতিবিদ অধ্যাপক ড. মুহাম্মদ ইউনুস। বিজ্ঞপ্তি