টেকনাফে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ মাদক ব্যবসায়ী নিহত

টেকনাফ প্রতিনিধি

19

টেকনাফ উপজেলায় বন্দুকযুদ্ধে মোহাম্মদ হোছন (৩৯) নামে এক ‘মাদক ব্যবসায়ী’ নিহত হয়েছেন। শনিবার (২০ জুলাই) গভীর রাতে উপজেলার হোয়াইক্যং ইউনিয়নের পশ্চিম সাতঘরিয়া পাড়া এলাকার শিয়াল্যা ঘোনা পাহাড়ে এ ঘটনা ঘটে। গতকাল রবিবার সকাল ১১টায় টেকনাফ মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) প্রদীপ কুমার দাশ এক ক্ষুদে বার্তায় এ তথ্য জানান।
নিহত হোছন পশ্চিম সাতঘরিয়া পাড়া এলাকার আনু মিয়ার ছেলে। সে চিহ্নিত মাদক কারবারি বলে দাবি করেছে পুলিশ।
পুলিশ জানায়, বন্দুকযুদ্ধের সময় তাদের তিন জন সদস্য আহত হয়েছেন। তারা হলেন, এএসআই অহিদ উল্লাহ, কনস্টেবল সজিব সরকার ও মনির হোসাইন। ঘটনাস্থল থেকে দুটি দেশে তৈরি আগ্নেয়াস্ত্র, ৯ রাউন্ড কার্তুজ, ১২ রাউন্ড কার্তুজের খোসা ও দুই হাজার পিস ইয়াবা উদ্ধার করা হয়।
ওসি প্রদীপ কুমার দাশ বলেন, শনিবার রাতে এএসআই অহিদের নেতৃত্বে একদল পুলিশ সাতঘরিয়া পাড়া এলাকা থেকে একাধিক মামলার পলাতক আসামি ও মাদক কারবারি মো. হোছনকে গ্রেপ্তার করে। তার কাছ থেকে পাওয়া তথ্যের ভিত্তিতে রাতেই পশ্চিম সাতঘরিয়া পাড়া এলাকার শিয়াল্যা ঘোনা পাহাড়ে ইয়াবা উদ্ধারে অভিযানে যায় পুলিশ। সেখানে ওঁৎ পেতে থাকা তার সহযোগীরা পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলি চালায়। আত্মরক্ষার্থে পুলিশও পাল্টা গুলি চালায়। কিছুক্ষণ গোলাগুলির পর ইয়াবা কারবারিরা পালিয়ে যায়। পরে ঘটনাস্থল থেকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় হোছনকে উদ্ধার করে টেকনাফ উপজেলা হাসপাতালে নেওয়া হয়। সেখানে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে তাকে কক্সবাজার সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়। কক্সবাজার সদরের কর্তব্যরত চিকিৎসকরা তাকে মৃত ঘোষণা করেন। লাশ ময়নাতদন্তের জন্য কক্সবাজার সদর হাসপাতাল মর্গে রাখা হয়েছে। ঘটনাস্থল থেকে অস্ত্র, গুলি ও ইয়াবা উদ্ধার করা হয়েছে।