টম হল্যান্ড-ই ‘স্পাইডার-ম্যান’

1

মার্ভেল স্টুডিও এবং সনি পিকচার্সের বিভক্তিতে ‘অ্যাভেঞ্জারস’ সিরিজ থেকে ছিটকে পড়ল ‘স্পাইডার-ম্যান’। মার্ভেল স্টুডিওর প্রধান কেভিন ফাইগি অগাস্টের শেষে ঘোষণা দিলেন তারা আর ‘স্পাইডার-ম্যান’য়ের সঙ্গে যুক্ত থাকছেন না। সেই থেকে ভক্তদের মনে শঙ্কা ছিল, ‘তবে কি টম হল্যান্ডকেও আর ‘স্পাইডার-ম্যান’ চরিত্রে দেখা যাবে না?’ ভক্তদের মনের সমস্ত শঙ্কা উড়িয়ে দিয়ে এই ব্রিটিশ অভিনেতা স¤প্রতি এক সাক্ষৎকারে বলেন, “মার্ভেল স্টুডিও যুক্ত না থাকলেও সনি পিকচার্সের তত্বাবধানে ‘স্পাইডার-ম্যান’য়ের পরের ছবিতে পিটার পার্কার চরিত্রে আমাকেই দেখা যাবে।”
‘দ্য ওয়াল্ট ডিজনি স্টুডিওজ’য়ের অধীনস্ত প্রতিষ্ঠান ‘মার্ভেল স্টুডিও’র মার্ভেল সিনেম্যাটিক ইউনিভার্স (এমসিইউ)’র সঙ্গে সনি পিকচার্স চুক্তিবন্ধ হওয়ার পর ‘অ্যাভেঞ্জার্স’ সিরিজের ‘ক্যাপ্টেইন আমেরিকা : সিভিল ওয়ার’, ‘অ্যাভেঞ্জারস : ইনফিনিটি ওয়ার’ এবং ‘অ্যাভেঞ্জারস : এন্ড গেইম’ ছবিতে স্পাইডার-ম্যানকে অন্যান্য সুপারহিরোদের সঙ্গে লড়তে দেখা যায়। এছাড়া ‘স্পাইডার-ম্যান হোম কামিং’ এবং ‘স্পাইডার-ম্যান ফার ফ্রম হোম’ ছবি দুটিও এমসিইউ’র তত্ববধানে তৈরি হয়। বহু আগে থেকেই ‘স্পাইডার-ম্যান’য়ের স্বত্ব সনি পিকচার্সের হাতে বন্দি। যে কারণে তৈরি হওয়া ‘স্পাইডার-ম্যান’য়ের যাবতীয় ছবির পরিবেশনার দায়িত্বে থাকে যুক্তরাষ্ট্রের এই চলচ্চিত্র প্রতিষ্ঠান। অন্যদিকে মার্ভেল কমিকসের অন্যান্য সুপারহিরো এবং অ্যাভেঞ্জারস সিরিজের স্বত্ব এমসিইউ’র হাতে। তাই এই দুই প্রতিষ্ঠানের বিভক্তিতে ‘অ্যাভেঞ্জারস’ দলের সদস্য হিসেবে নয়, সামনের ছবিগুলোতে ‘স্পাইডার-ম্যান’কে একাই জাল বুনতে হবে।