ঝুমঝুমি

7

ডানপিটে বন্ধুরা, নিদিষ্ট সময়ে প্রকাশিত হল তোমাদের -আমাদের সকলের প্রিয় মাসিক ছোটদের কাগজ ‘ঝুমঝুমি’। সবাই বুঝতে পেরেছো ‘ঝুমঝুমি’ অক্টোবর ২০১৮এর কথা বলছি। যে পত্রিকার জন্য আমরা মাসের শুরুতেই অপেক্ষা করে থাকি কখন বের হচ্ছে আমাদের প্রিয় এই পত্রিকাটি। নানা প্রতিকুলতার মধ্যেও মাসের প্রথম সপ্তাহে এই পত্রিকাটি আমাদের হাতে এসে যায়। তার জন্য ধন্যবাদ জানাই প্রধান সম্পাদক পাশা মোস্তফা কামাল ভাই ও সম্পাদক শায়লা রহমান তিথি আপাকে। এবারে দেখা যাক -এসংখ্যায় কি কি রয়েছে। প্রতিবারের মতো -‘চির নতুন পুরানো লেখায় এবার রয়েছে সুফিয়া কামালের লেখা ‘হেমন্ত’ কবিতাটি। হারিয়ে যাওয়া গল্প ‘নেকড়ে বাঘ আর ভেড়ার বাচ্চা’ গল্পটি সম্পাদনা করেছেন ডঃ মোহাম্মদ হাননান, শিশুসাহিত্যিক আলী ইমাম লিখেছেন ‘খরগোশ ও নেকড়ে’ গল্পটি সুন্দরভাবে আমাদের শিশুকিশোরদের গ্রামীণখেলা ‘ডাংগুলি’ নিয়ে গল্পটি লিখেছেন তুফান মাজহার খান। রূপকথার ঝুমঝুমি বিভাগে এবার থাকছে মাহফুজুর রহমান এর ‘‘সরলমনা শিকারি’ গল্পটি। সময়ের আলোচিত গল্পকার মিলন বনিক আমাদের জন্য এনেছেন তার গল্প ‘টিয়ের বাড়ি তেঁতুল গাছে’ আতিক এ রহিম এর অনবদ্য গল্প ‘টুলির কান্না’।
ছড়া-কবিতা বিভাগে এবার লিখেছেন বিলু কবির ‘রাজকন্যার বোন’ জাহাঙ্গীর আলম জাহান ভাইয়া পান্থজনের সখা ‘চন্দনকৃষ্ণ পাল’ তোমাদের জন্য ‘সুমন্ত বর্মণ বাংলা ও গনিত তর্ক’ গোরফান উদ্দিন টিটু ‘ঘুড়ি ‘বেনীমাধব সরকার ‘স্বাধীনতা মান’ ইউনুস আহমেদ ‘ফড়িংয়ের নাচ ‘শরৎ ঋতুকে নিয়ে ‘ঋতুরানি’ লিখেছেন মোস্তাফিজুল হক, বঙ্গবন্ধুর সাথে শাহাদাৎ বরণকারী কনিষ্ঠ রাসেলকে নিয়ে আবেগমাখা নিবেদিত লেখা ‘থাকলে রাসেল’ লিখেছেন সুজন সাজু,‘পুজোর ছুটি’ কে নিয়ে লিখেছেন হামীম রায়হান। বন্ধুরা, লিখিয়ে বন্ধুদের জন্য ‘তোমাদের লেখা তোমাদের আঁকা ’বিভাগে যাদের লেখা জায়গা করে নিয়েছে বন্ধু চাপা খাতুন ‘মা যে আমার’ সাব্বির মাহমুদ ‘মা’ সুনহেরা খান ‘দোয়েল পাখি’ আসমা বেগম ‘সোনার বাংলা’ আসাদুজ্জামান নূর ছোট্ট আঁকিয়ে ‘হাসিবুল হাসান শোভন প্রিয় ক্রিকেট খেলাকে নিয়ে লিখেছে ‘স্বপ্নকথা’ আর অসম্ভব সুন্দর ছবি এঁকেছে আমাদের প্রথম শ্রেণিতে পড়ুয়া বন্ধু শ্রেয়ান চৌধুরী । ‘বাংলার ফুল’ বিভাগে এবার ‘বকুল’ নিয়ে লখছেন প্রিয় লেখক মোকারম হোসেন।
আমাদের প্রিয় শিল্পী উত্তম সেনের প্রচ্ছদ ও ভেতরের আঁকায় ঝুমঝুমি হয়ে উঠেছে আরো সুন্দর পরিপাটি। এ সংখ্যার দাম রাখা হয়েছে মাত্র চল্লিশ টাকা। ডানপিটে বন্ধুরা যারা এখনও পড়োনি তারা দেরি না করে নিকটস্থ দোকান থেকে সংগ্রহ করতে পারো তাড়াতাড়ি।