জেসিয়াকে স্বাগত জানালেন বিশ্বসুন্দরী স্টেফানি

.

26

‘মিস ওয়ার্ল্ড বাংলাদেশ’ জেসিয়া ইসলামকে স্বাগত জানালেন বর্তমান বিশ্বসুন্দরী পুয়ের্তোরিকোর স্টেফানি। গত ২৬ অক্টোবর চীনের শেনজেন শহরে মিস ওয়ার্ল্ড দাতব্য নিলাম অনুষ্ঠানে প্রতিযোগীদের একে একে মঞ্চে ডাকা হয়। সেখানে তাদেরকে স্বাগত জানান মিস ওয়ার্ল্ড ২০১৬ স্টেফানি দেল ভালে।

পরিচয় পর্ব শেষে স্টেফানির নেতৃত্বে প্রতিযোগীরা সম্মিলিত কণ্ঠে গেয়েছেন মিস ওয়ার্ল্ডের থিম সং ‘লাইট দ্য প্যাশন, শেয়ার দ্য ড্রিম’। পরিবেশনা শেষে প্রতিযোগীরা টেবিলে বসে ১২ পদের খাবারের স্বাদ নিয়েছেন।

এর আগে জাঁকালো পোশাক পরা প্রত্যেক প্রতিযোগীকে পরিচয় করিয়ে দেওয়া হয় লালগালিচায়। এরপর তারা ক্যাটওয়াক করেছেন ৭০০ প্রভাবশালী ব্যবসায়ী নেতা ও চীনের সরকারি কর্মকর্তাদের সামনে। এ সময় প্রতিযোগীদের দেশের নাম ইংরেজি ও চীনা ভাষায় বলা হয় মাইকে।

নিলামের জন্য নিজ নিজ দেশের একটি করে উপহার নিয়ে যান প্রত্যেক প্রতিযোগী। এখান থেকে প্রাপ্ত অর্থ (দেড় লাখ পাউন্ড) দেওয়া হয় মাদারওয়ার্কসের তহবিলে। চীনে বিভিন্ন প্রান্তে মায়েদের সহায়তা করে থাকে সংস্থাটি।

অনুষ্ঠানে মিস ওয়ার্ল্ড চায়না ফাউন্ডেশনের ঘোষণা দেওয়া হয়। বিউটি উইথ অ্যা পারপাস প্রকল্পের জন্য তহবিল সংগ্রহই এর মূল লক্ষ্য। বাংলাদেশের প্রতিনিধিত্ব করে দাতব্য সেবায় অবদান রাখতে পেরে আনন্দিত জেসিয়া।

গুয়াংজু থেকে গত ২৭ অক্টোবর শুক্রবার ভোরে হংজো শহরে পাড়ি জমিয়েছেন প্রতিযোগীরা। এই শহরে ওয়েন্সলি সিল্ক কালচারাল মিউজিয়াম ঘুরে দেখেছেন জেসিয়াসহ সবাই। বেসরকারি সিল্ক জাদুঘরটিতে তাদের প্রত্যেককে দেওয়া হয় সিল্কের তৈরি স্কার্ফ। তাদের পরবর্তী গন্তব্য হুয়াংশান।

এদিকে বিভিন্ন দেশের প্রতিযোগীর সঙ্গে তোলা সেলফি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক, টুইটার ও ইনস্টাগ্রামে শেয়ার দিয়েছেন জেসিয়া। এর মধ্যে হংজো শহরে সুন্দর একটি উপহার পাওয়ার কথাও তিনি জানান একটি সেলফিতে।

অন্য প্রতিযোগীদের সঙ্গে জেসিয়ার সেলফি অন্য প্রতিযোগীদের সঙ্গে জেসিয়ার সেলফিএর আগে গত ২৩ অক্টোবর জেসিয়াসহ সব প্রতিযোগী ঘুরে বেড়িয়েছেন শেনজেন শহরের পূর্বাঞ্চলে ওভারসিস চাইনিজ টাউনে। ঘোরাঘুরির পর ওসিস ও. সিটির মঞ্চে শেনজেন থিয়েটারের পরিবেশনায় চীনের বৈচিত্রময় সংস্কৃতি উপভোগ করেন তারা।

এদিকে বিশ্বসুন্দরী প্রতিযোগিতার অফিসিয়াল ইউটিউব চ্যানেলে যুক্ত হয়েছে ‘মিস ওয়ার্ল্ড বাংলাদেশ ২০১৭’ জেসিয়া ইসলামের পরিচিতি ভিডিও। এরও কিছুদিন আগে মিস ওয়ার্ল্ড-এর অফিসিয়াল ওয়েবসাইটে যুক্ত হয় লাল-সবুজের এই তরুণীর ছবি। যিনি ১৬ বছর পর বিশ্বসুন্দরী প্রতিযোগিতায় অংশ নিচ্ছে বাংলাদেশের কোনও সুন্দরী।

‘মিস ওয়ার্ল্ড’ প্রতিযোগিতার ৬৭তম আসরে অংশ নিতে গত ২০ অক্টোবর চীনের গুয়াংজু বিমানবন্দরে পৌঁছান জেসিয়া। অন্যান্য দেশের প্রতিযোগীদের সঙ্গে তাকে লড়তে হবে টপ মডেল, ট্যালেন্ট, মাল্টিমিডিয়া, স্পোর্ট, বিউটি উইথ অ্যা পারপাস বিভাগগুলোতে। এরপর হেড টু হেড চ্যালেঞ্জে অংশ নেবেন শীর্ষ ৪০ প্রতিযোগী। তাদের মধ্য থেকে নির্বাচন করা হবে সেরা ২০।

আগামী ৩১ অক্টোবর শিমেলং ওশান কিংডমে হবে এবারের আসরের উদ্বোধনী অনুষ্ঠান। আর কার মাথায় যাবে বিশ্বসুন্দরীর মুকুট সেই ফয়সালা হবে আগামী ১৮ নভেম্বর। ওইদিন চীনের সানাইয়া সিটি এরেনায় হবে মিস ওয়ার্ল্ড ফাইনাল। নতুন মিস ওয়ার্ল্ডের মাথায় মুকুট পরিয়ে দেবেন বর্তমান বিশ্বসুন্দরী স্টেফানি দেল ভালে।