জেলা আইনজীবী সমিতির ১২৫ বছর পূর্তি র‌্যালি

12

ঐতিহ্যবাহী চট্টগ্রাম জেলা আইনজীবী সমিতির ঐতিহ্য ও গৌরবের ১২৫ বছর পূর্তি উপলক্ষে গত ৭ ফেব্রæয়ারি পুরাতন জজ আদালত ভবন চত্বর হতে বর্ণাঢ্য র‌্যালি শুভ উদ্বোধন করেন চট্টগ্রামের মহানগর দায়রা জজ মো. আকবর হোসেন মৃধা। উদ্বোধনকালে উপস্থিত ছিলেন চট্টগ্রাম জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি শেখ ইফতেখার সাইমুল চৌধুরী ও সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ নাজিম উদ্দিন চৌধুরী। বিজ্ঞ বিচারকদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন চীফ মেট্টোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ ওসমান গণি, ১ম যুগ্ম মহানগর দায়রা জজ মোহাম্মদ হারুন অর-রশিদ, ৩য় যুগ্ম মহানগর দায়রা জজ বেগম বিলকিছ আকতার, অতিরিক্ত চীফ মেট্টোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট মহিউদ্দিন মুরাদ, মেট্টোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট যথাক্রমে মোহাম্মদ খায়রুল আমীন, আবু সালেম মোহাম্মদ নোমান, শফি উদ্দিন, মো. আল ইমরান খান, সারোয়ার জাহান, মেহনাজ রহমান প্রমুখ। এ সময় কার্যনির্বাহী পরিষদের পরিষদের সিনিয়র সহসভাপতি মো. ছুরত জামাল, সহসভাপতি মো. নুরুউদ্দিন আরিফ চৌধুরী, সহসাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ ইয়াছিন খোকন, অর্থ সম্পাদক মো. শফিউল হক চৌধুরী (সেলিম), পাঠাগার সম্পাদক মো. নুরুল করিম (এরফান), সাংস্কৃতিক ও ক্রীড়া সম্পাদক হাসনা হেনা, তথ্য ও প্রযুক্তি সম্পাদক মো. রাশেদুল আলম (রাশেদ), নির্বাহী সদস্য যথাক্রমে মো. লোকমান, সেলিনা আকতার, মোহাম্মদ ইয়াছিন, মুহাম্মদ আকিব চৌধুরী, এইচ.এস. সোহরাওয়ার্র্দী, মোহাম্মদ এহছানুল হক, মো. এনামুল হক, ইয়াসিন মাহমুদ (তানজিল), ফারহানা রবিউল (লিজা), মো. হাসান কায়েসসহ বিপুল সংখ্যক বিজ্ঞ আইনজীবী। উক্ত র‌্যালী আদালত ভবন চত্বর হতে শহীদ মিনার হয়ে নিউ মার্কেট ঘুরে আবার আদালত প্রাঙ্গন ফিরে আসে। র‌্যালি উদ্বোধনকালে মহানগর দায়রা জজ মো. আকবর হোসেন মৃধা বলেন, চট্টগ্রামের আদালত প্রতিষ্ঠার পর থেকে ন্যায় বিচার প্রতিষ্টায় ও আইনের শাসন অক্ষুন্ন রাখতে এ বারের সদস্যরা যুগান্তকারী ভূমিকা রেখেছেন। উপমহাদেশের কয়েকটি সমৃদ্ধ বারের মধ্য এটি অন্যতম। এখানে অনেক আইন বইয়ের রচয়িতা আছেন। গৌরবের ১২৫ বছরে তাঁরা তাদের ঐতিহ্যর ইতিহাস অক্ষুন্ন রেখেছেন। সকল স্বৈরাচার ও সাম্প্রদায়িক অপশক্তিসহ সকল অশুভ শক্তির বিরুদ্ধে সবসময় সোচ্চার ছিলেন। যেখানে মানবাধিকার ভুলুন্ঠিত হয়েছে সেখানেই চট্টগ্রাম বারের আইনজীবীরা জীবন বাজি রেখে লড়াই করে অধিকার আদায় করেছেন। ঐতিহ্য ও বীরত্বের ইতিহাসে যুক্ত চট্টগ্রাম জেলা বার। এ বারে বিচারক হিসাবে কাজ করতে পেরে আমি নিজেকে ধন্য মনে করছি। তাছাড়াও আর নিজেকে সৌভাগ্যবান মনে করি এ বারের ১২৫ বছর পূর্তি অনুষ্ঠানটি উদ্বোধন করে ইতিহাসের স্বাক্ষী হয়ে রইলাম। তিনি আরো বলেন, আইনজীবীরা সমাজের অঘোষিত ইঞ্জিনিয়ার। একজন আইনজীবী অনেক বিষয়ে জ্ঞান রাখেন এবং সকল সংকটে আইনি মোকাবেলা করতে নিজেকে প্রস্তুত করেন। সচেতন আইনজীবীরাই পারেন সমাজকে সঠিক সুন্দর ও গণতান্ত্রিকভাবে পরিচালিত করতে।
আইনজীবী সমিতির সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ নাজিম উদ্দিন চৌধুরী বলেন, ঐতিহ্যে লালিত চট্টগ্রাম জেলা আইনজীবী সমিতি। এই সমিতি নবীন ও প্রবীণ আইনজীবীদের পদচারনায় সদা মুখরিত। এই সমিতির অনেক বিজ্ঞ আইনজীবী বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ পদে আসীন আছেন। সেবা, সংগ্রাম, নেতৃত্ব আর ত্যাগের উজ্জলতায় সমৃদ্ধ চট্টগ্রাম জেলা আইনজীবী সমিতির অনেক বিজ্ঞ সদস্যর জীবন কাহিনী। আত্ম মর্যাদায় টনটন, মেধা, দক্ষতা ও মননে সমৃদ্ধ বিজ্ঞ আইনজীবীরা। তিনি বিজ্ঞ আইনজীবীদের সুস্বাস্থ্য ও সুখ-সমৃদ্ধি কামনা করেন।
সভাপতির বক্তব্য শেখ ইফতেখার সাইসুল চৌধুরী বলেন, ১২৫ বছরের আইনজীবীদের প্রানের প্রতিষ্ঠান এই জেলা আইনজীবী সমিতি। এ আইনজীবী সমিতির নেতৃত্ব দিতে পেরে নিজেকে ধন্য মনে করছি। ইতিহাসের কাল সন্ধিক্ষনে আমরা যারা বেঁচে আছি আমাদেরকে এমন কিছু সৃষ্টি করে যেতে হবে যেন পরবর্তী প্রজন্ম ন্যায় বিচার প্রতিষ্ঠা ও বিচারকদের অগ্রণী ভূমিকা পালন করে। সকল অশুভ শক্তির বিরুদ্ধে সর্বোচ্চ ত্যাগ স্বীকার করে সমাজকে বাস উপযোগী করার ভ’মিকা রাখতে হবে। দীর্ঘ চলার পথে এই সমিতি লালন করেছে বহু বিদগ্ধ আইনজীবী, বিজ্ঞ বিচারক, খ্যাতিমান আইনপ্রণেতা, বরেণ্য জননেতা, দক্ষ কূটনৈতিক ও নিবেদিত সমাজসেবক, বিপুল বর্ণাঢ্য স্মৃতিসম্ভার আর অনুপম অর্জনসমূহ আমাদের পরম গৌরবময় উত্তরাধিকার। আমাদের সৌভাগ্য বিদায় বরণে আমরা সমিতির দুইটি শতাব্দীর গর্বিত অংশীদার। বিজ্ঞপ্তি