জুমার নামাজের জন্য প্রস্তুত ক্রাইস্টচার্চের আল নূর মসজিদ

19

ক্রাইস্টচার্চের বুলেট জর্জরিত আল নূর মসজিদে মেরামত কাজ সেরে রং করার পর জুমার নামাজের জন্য সাফসুতরা করা হচ্ছে। ভয়াবহ সন্ত্রাসী হামলার এক সপ্তাহ পর শুক্রবার মসজিদটিতে ফের জুমার নামাজ অনুষ্ঠিত হবে, খবর বার্তা সংস্থা রয়টার্সের। শুক্রবার জুমার নামাজের আযান জাতীয়ভাবে সম্প্রচার করার ঘোষণা দিয়েছেন নিউ জিল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী জেসিন্ডা অ’ডুর্ন। আজানের পর দুই মিনিট নিরবতা পালনের ঘোষণাও দিয়েছেন তিনি।
গত শুক্রবার জুমার নামাজের সময় বর্ণবাদী এক জঙ্গির নির্বিচার গুলিবর্ষণে ক্রাইস্টচার্চের দুটি মসজিদে ৫০ জন নিহত হওয়ার পর নিউ জিল্যান্ডের মসজিদগুলো ঘিরে পাহারা দিচ্ছে সশস্ত্র পুলিশ। বৃহস্পতিবার এক বিবৃতিতে পুলিশ বলেছে, “শুক্রবার জুমার নামাজ পড়তে আসা লোকজনকে ভরসা দিতে শুক্রবার আমাদের উচ্চ উপস্থিতি থাকবে। “অপরাধ সংঘটনের স্থান থেকে উপযুক্ত সব প্রমাণ সংগ্রহ করার জন্য নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে পুলিশ, আমাদের ক্ষমতার সবটুকু দিয়ে সবকিছু করছি যেন যত দ্রুত সম্ভব লোকজনকে মসজিদটিতে ফিরে আসার অনুমতি দিতে পারি আমরা।”
আক্রান্ত আল নূর ও নিকটবর্তী লিনউড মসজিদ, দুটিই খুলে দেওয়ার পরিকল্পনা করা হয়েছে। আল নূর মসজিদে কয়েক হাজার নামাজি উপস্থিত হবে বলে ধারণা করা হচ্ছে, এখানেই সবচেয়ে বেশি হতাহতের ঘটনা ঘটেছিল। নিহত বেশিরভাগ লোকই অভিবাসী অথবা শরণার্থী। এরা বাংলাদেশ, পাকিস্তান, ভারত, মালয়েশিয়া, ইন্দোনেশিয়া, তুরস্ক, সোমালিয়া ও আফগানিস্তান মতো দেশগুলো থেকে সেখানে গিয়েছিল।
এ হামলার পর নিউ জিল্যান্ডের ডানেডিনে বসবাসকারী বর্ণবাদী অস্ট্রেলীয় যুবক ব্রেন্টন ট্যারান্টের (২৮) বিরুদ্ধে নরহত্যার অভিযোগ আনা হয়েছে। পুলিশ রিমান্ডে থাকা ট্যারান্টকে আগামী ৫ এপ্রিল ফের আদালতে হাজির করার কথা রয়েছে। তখন তার বিরুদ্ধে আরও অভিযোগ আনা হতে পারে বলে জানিয়েছে পুলিশ।