জুন-জুলাইয়ে ফ্রান্সে দাবদাহে নিহত দেড় হাজার

4

চলতি বছরে ভয়াবহ দাবদাহের কবলে পড়ে ইউরোপের বেশ কয়েকটি দেশ। তার মধ্যে অন্যতম ফ্রান্স। এই বছরে ভয়াবহ তাপদাহের কারণে দেহ সহগ্রাধিক লোকের প্রাণহানি হয়েছে। রবিবার ফরাসি রেডিওতে দেওয়া এক বক্তৃতায় একথা জানিয়েছেন দেশটির স্বাস্থ্যমন্ত্রী অ্যাগনেস বুজঁ। তিনি জানিয়েছেন, এ বছরের গ্রীষ্মে দাবদাহজনিত বিভিন্ন রোগে ১ হাজার ৫০০ জনের প্রাণহানি হয়েছে। দাবদাহে মৃতের সংখ্যা আরও বাড়তে পারত। কিন্তু জনসচেতনতা বৃদ্ধিতে সরকারি বিভিন্ন ক্যাম্পেইনের ফলে তা রোধ করা সম্ভব হয়েছে।
অ্যাগনেস বুজঁ বলেন, জুন ও জুলাই মাসে মোট ১৮ দিন ফ্রান্সে রেকর্ড মাত্রায় দাবদাহ বয়ে যায়। তারপরও ২০০৩ সালের দাবদাহের চেয়ে এবারে নিহতের সংখ্যা অনেক কম। সেবার দেশজুড়ে ১৫ হাজারের মতো মানুষের প্রাণহানি হয়।
দেশটির স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় বলছে, চলতি বছরের গ্রীষ্মের ২৪ জুন থেকে ৭ জুলাই পর্যন্ত প্রথম দাবদাহে ফ্রান্সে ৫৬৭ জনের প্রাণহানি ঘটেছে। পরবর্তী ২১ থেকে ২৭ জুলাইয়ে আরও ৮৬৮ জন মারা গেছেন।