জামানত ছাড়াই ঋণ পাবেন তথ্যপ্রযুক্তি খাতের উদ্যোক্তারা

15

তথ্যপ্রযুক্তি খাতে উদ্যোক্তা তৈরিতে জামানত ছাড়া ঋণ দেয়ার উদ্যোগ নিয়েছে সরকার। এ খাতের উদ্যোক্তাদের আর্থিক সহায়তায় ‘স্টার্টআপ বাংলাদেশ লিমিটেড’ কোম্পানি গঠনের প্রস্তাবে সায় দিয়েছে মন্ত্রিসভা। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে সোমবার প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত মন্ত্রিসভার নিয়মিত বৈঠকে এ প্রস্তাবের অনুমোদন দেয়া হয়। বৈঠক শেষে সচিবালয়ে মন্ত্রিপরিষদ সচিব মোহাম্মদ শফিউল আলম সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান।
তিনি বলেন, ‘দেশে আইসিটি খাতে উদ্যোক্তা তৈরিতে এ কোম্পানি গঠন করা হচ্ছে। প্রাথমিক অথরাইজড ক্যাপিটাল হবে ৫ বিলিয়ন অর্থাৎ ৫০০ কোটি টাকা। ক্যাপিটাল শেয়ার পার ভ্যালু হবে ১০ টাকা। ইনিশিয়ালি ২০০ কোটি টাকা পেইডআপ ক্যাপিটাল নিয়ে কোম্পানিটি যাত্রা শুরু করবে।’
শফিউল আলম বলেন, ‘বিভিন্ন রকমের আইসিটি প্রোডাক্ট নিজেরা তৈরি করবে, মার্কেটিং করবে, যেমন- আউটসোর্সিং থেকে শুরু করে সব করার জন্য কোম্পানি উদ্যোক্তাদের আর্থিক সহায়তা দেবে। ব্যাংকে লোন পেতে হলে মটগেজ লাগে, কত কিছু লাগবে, এটার ক্ষেত্রে এসব লাগবে না। তাদের মাথায় যে আইডিয়া আছে তা থেকে টাকা পাবে।’
তিনি আরও বলেন, ‘তথ্যপ্রযুক্তি সচিব কোম্পানির চেয়ারম্যান হিসেবে থাকবেন এবং মোট পরিচালক হবেন ৭ জন।’ তবে কী পরিমাণ ঋণ দেয়া হবে এবং সুদের হার কেমন হবে -তা এখনো নিদিষ্ট হয়নি জানিয়ে মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, কোম্পানি কাজ শুরু করলে তা ঠিক করা হবে। এছাড়া বৈঠকে সরকারি মালিকানাধীন রুরাল পাওয়ার কোম্পানি লিমিটেড এবং চীনের বেসরকারি কোম্পানি শেনজেন স্টার ইন্সট্রুমেন্টের যৌথ উদ্যোগে বাংলাদেশ পাওয়ার ইকুইপমেন্ট ম্যানুফ্যাকচারিং কোম্পানি গঠনের প্রস্তাবের অনুমোদন দেয়া হয়। এ কোম্পানি দেশেই বিদ্যুতের প্রি-পেইড মিটার উৎপাদন করবে বলে জানান মন্ত্রিপরিষদ সচিব।