জাগির হোসেন সর্দারের শোকসভায় সিটি মেয়র দুঃসময়ের নেতারাই দলের সম্পদ

17

চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মাহতাব উদ্দিন চৌধুরী বলেছেন, তৃণমূল স্তরের যে সকল নেতাকর্মী দলের দুঃসময়ে রাজপথে মাথা উঁচু করে প্রতিরোধ গড়ে তুলেছিলেন তারাই দল ও দেশের সম্পদ। তাদের জীবন ও কর্মের প্রতি শ্রদ্ধা, সম্মান ও ভালোবাসা আগামীদিনের পরীক্ষিত নেতাকর্মীর জন্ম দেবে। তিনি গত ২১ মে জেলা পরিষদ মিলনায়তনে কোতোয়ালী থানা আওয়ামী লীগের সদ্য প্রয়াত সহ-সভাপতি জাগির হোসেন সর্দারের শোকসভা এবং দোয়া ও ইফতার মাহফিল অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি থা বলেন। তিনি আরো বলেন, জাগির হোসেন সর্দার সত্যিকার অর্থেই একজন নিবেদিত প্রাণ রাজনীতিক ছিলেন। দলের যে কোন প্রয়োজনে তিনি সাড়া দিয়েছেন। তাই তিনি আমাদের মাঝে বেঁচে থাকবেন। চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সিটি মেয়র আ.জ.ম নাছির উদ্দীন বলেছেন, পর পর দল তৃতীয় মেয়াদে ক্ষমতায় থাকায় অনেক বসন্তের কোকিলের সমাগম হয়েছে। এরা সুবিধাভোগী এবং আখের গোছানোর জন্যই দলের পদ-পদবী পেতে উৎগ্রীব হয়ে পড়েছেন। আমি নিশ্চিতভাবে বলতে পারি। দুঃসময়ে এরা দলের সাথে বিশ্বাস ঘাতকতা করবেন। তিনি আরো বলেন, জাগির হোসেন সর্দার কোতোয়ালী থানা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি থাকলেও তিনি চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের সকল রাজনীতিক কর্মকাÐে প্রত্যক্ষভাবে শরীক ছিলেন। দলীয় প্রয়োজনে তাঁর কাছে যখন যে নির্দেশনা দেয়া হতো তিনি তা যথাযথভাবে পালন করতেন এবং তিনি কখনো অর্থবিত্তের জন্য দলকে ব্যবহার করেননি। কারণ বণেদী পরিবারের সন্তান এবং পৈত্রিক সূত্রে আর্থিকবাবে সচ্ছল। তিনি একজন ব্যবসায়ী হলেও ব্যবসার চেয়েও রাজনীতিই ছিল তাঁর প্রধান কর্তব্যবোধ। আমৃত্যু তিনি এ কর্তব্য থেকে চ্যুৎ হননি। কোতোয়ালী থানা আওয়ামী লীগের উদ্যোগে অনুষ্ঠিত এ শোকসভা এবং দোয়া ও মিলাদ মাহফিল অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন কোতোয়ালী থানা আওয়ামী লীগের সভাপতি আলহাজ্ব ফিরোজ আহমেদ। সাধারণ সম্পাদক আবুল মনসুরের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত প্রয়াত জাগির হোসেন সর্দারের প্রতি শ্রদ্ধাঞ্জলি নিবেদন করা হয়। এতে বিশেষ অতিথি ছিলেন চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি এড. সুনীল কুমার সরকার, সিডিএ চেয়ারম্যান আলহাজ জহিরুল আলম দোভাষ, সাংগঠনিক সম্পাদক শফিক আদনান, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক শফিকুল ইসলাম ফারুক ও আইন বিষয়ক সম্পাদক এড. ইফতেখার সাইমুল চৌধুরী। এতে অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন মশিউর রহমান রোকন, টিংকু বড়–য়া, কাউন্সিলর গিয়াস উদ্দিন, তারেক ইমতিয়াজ ইমতু, আলহাজ্ব সাহাবউদ্দিন আহমেদ, মাস্টার জসিম উদ্দিন, আবু জাফর চৌধুরী, বাবু রতন আচার্য, আফছার উদ্দিন চৌধুরী, আবুল বশর, মো. আনিছ মিয়া, মো. রাশেদ, মো. জাহাঙ্গীর আলম, এড. রনি কুমার দে, মো. আবদুল জলিল, আবু বক্কর বক্কু, মো. নাছির উদ্দিন, পীযুষ কান্তি বিশ্বাস, মো. সালাউদ্দিন, আবদুস সালাম, পরিবারের পক্ষ থেকে বক্তব্য রাখেন ছোট ভাই প্রাক্তন কমিশনার সালাউদ্দিন সর্দার, মরহুমের পুত্র জয়নাল আবেদীন টিপু প্রমুখ। মিলাদ মাহফিল পরিচালনা করেন অধ্যাপক মাসুম চৌধুরী। বিজ্ঞপ্তি