জন্মশতবর্ষে কৃতজ্ঞতায় জাতির পিতাকে স্মরণ

30

পূর্বদেশ ডেস্ক

আইইবি, চট্টগ্রাম কেন্দ্র : হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালি, বাঙালি জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান তার নেতৃত্ব ও কুটনৈতিক প্রজ্ঞার মধ্য দিয়ে তিনি বঙ্গবন্ধু থেকে আজ বিশ্ববন্ধু হিসেবে বিশ্বব্যাপী প্রতিটি মানুষের হৃদয়ে স্থান করে নিয়েছেন। ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন, বাংলাদেশ চট্টগ্রাম কেন্দ্রের উদ্যোগে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এর জন্মশতবার্ষিকী ‘মুজিববর্ষ’ উদযাপন উপলক্ষে ১৭ মার্চ এক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাক্তন উপাচার্য অধ্যাপক ড. ইফতেখার উদ্দিন চৌধুরী এসব কথা বলেন। এদিন জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী ‘মুজিববর্ষ’ উদযাপন উপলক্ষে ১৭ মার্চ আইইবি চট্টগ্রাম কেন্দ্রে জাতীয় পতাকা উত্তোলন এবং জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন কেন্দ্রের নেতৃবৃন্দ। মুজিববর্ষ উপলক্ষে সন্ধ্যায় কেন্দ্রের সেমিনার কক্ষে আয়োজন করা হয় এক আলোচনা সভার। কেন্দ্রের ভাইস-চেয়ারম্যান প্রকৌশলী প্রবীর কুমার সেনের সভাপতিত্বে এবং সম্পাদক প্রকৌশলী রফিকুল ইসলাম মানিকের সঞ্চালনায় প্রধান অতিথি ছিলেন চট্টগ্রাম বিশ^বিদ্যালয়ের প্রাক্তন উপাচার্য অধ্যাপক ড. ইফতেখার উদ্দিন চৌধুরী। সভার শুরুতে প্রধান অতিথি কেক কেটে বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী ‘মুজিববর্ষ’র আলোচনা সভার উদ্বোধন করেন।
প্রধান অতিথি অধ্যাপক ড. ইফতেখার উদ্দিন চৌধুরী আরো বলেন, বঙ্গবন্ধুর জন্ম না হলে এদেশের জন্ম হত না, ১৯৭৫ পরবর্তী জাতির জনককে হত্যার বিচার বন্ধ করতে ইন্ডেমিনিটি বিলসহ অনেক ধরনের কলাকৌশলের আশ্রয় নিয়েও ঘাতকের দল এবং সুবিধাভোগিরা বঙ্গবন্ধু হত্যার বিচার বন্ধ করতে পারেনি। দীর্ঘ একুশ বছর বঙ্গবন্ধুর নাম, বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধ, দীর্ঘ আন্দোলন সংগ্রামের ইতিহাস মানুষকে বলতে দেয়া হয়নি। কিন্তু ইতিহাস বড়ই কঠিন, বড়ই নির্মম। সত্য ইতিহাস কেউ কখনো মুছে ফেলতে পারে না। প্রধান অতিথি তার বক্তব্যে আরো বলেন, বাংলাদেশ, বাঙালি তথা পৃথিবীর ইতিহাস যতদিন থাকবে ততদিন বাঙালি জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এর নামও থাকবে।
আলোচনা সভায় আরও বক্তব্য রাখেন, কেন্দ্রের প্রাক্তন চেয়ারম্যান প্রকৌশলী এ কে এম ফজলুল্লাহ, প্রকৌশলী মোহাম্মদ হারুন, প্রকৌশলী সাদেক মোহাম্মদ চৌধুরী, প্রাক্তন ভাইস-চেয়ারম্যান প্রকৌশলী এম. এ. রশীদ, সিনিয়র প্রকৌশলী ও নগর পরিকল্পনাবিদ সুভাষ চন্দ্র বড়ুয়া, পিডিবি’র প্রধান প্রকৌশলী মো. শামসুল আলম এবং প্রকৌশলী খোরশেদ উদ্দিন বাদল প্রমুখ।
পেকুয়া : কক্সবাজারের পেকুয়া উপজেলায় জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশত বার্ষিকী উদযাপিত হয়েছে। মঙ্গলবার সকালে উপজেলা প্রশাসন ও বিভিন্ন রাজনৈতিক ও পেশাজীবী সংগঠনের পক্ষে বঙ্গবন্ধু প্রতিকৃতিতে পুষ্পমাল্য প্রদান করা হয়। বেলা ১১টায় পেকুয়া উপজেলা পরিষদের মিলনায়তনে বঙ্গবন্ধুর জন্মশত বার্ষিকী উপলক্ষে কেক কাটা হয়। এতে উপস্থিত ছিলেন- সাংসদ জাফর আলম, পেকুয়া উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান জাহাঙ্গীর আলম, পেকুয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) সাঈকা সাহাদাত, নারী ভাইস চেয়ারম্যান উম্মে কুলসুম, উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) মীকি মারমা, পেকুয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কামরুল আজম, জেলা আয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য মুক্তিযোদ্ধা এড. কামাল হেসেন, আবু হেনা মোস্তফা কামাল ও আবুল কাশেম। এদিন উপজেলায় স্কুল, কলেজ, মাদ্রাসা, সরকারি- বেসরকারি প্রতিষ্ঠান, এনজিও সংস্থা সহ বিভিন্ন সামাজিক সংগঠন বঙ্গবন্ধুর জন্মশত বার্ষিকী উদযাপন করে। ‘বাস্তব সমৃদ্ধি’ কর্মসূচির উদ্যোগে শিলখালী ইউনিয়ন পরিষদ হল রুমে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশত বার্ষিকী ও জাতীয় শিশু দিবস উপলক্ষে এক আলাচনা সভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান করেছে। সকাল সাড়ে ৯টায় বাস্তব কমসূচির কার্যালয় থেকে একটি র‌্যালি বের হয়ে প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে আলোচনা সভায় মিলিত হন। পরে এলাকার যুবকদের অংশ গ্রহণে করোনা ভাইরাস সংক্রমণ প্রতিরোধে গণসচেতনতামূলক লিফলেট বিতরণ করা হয়।
বঙ্গবন্ধু পেশাজীবী পরিষদ: ‘জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান মানেই বাংলাদেশ। এই ক্ষণজন্মা মহান পুরুষ একধারে বাংলাদেশের স্বপ্নদ্রষ্টা, বাংলাদেশের স্থপতি এবং জাতির জনক। সারা জীবনের আন্দোলন সংগ্রাম, ত্যাগ এবং জনগণকে ভালবাসার মহিমায় প্রমাণিত হয়েছে তিনিই বাঙালির আত্মার আত্মীয়, বাঙালির অহংকার এবং অস্তিত্ব। আমরা তার গৌরবে গৌরাবান্বিত’। বঙ্গবন্ধু পেশাজীবী পরিষদ, চট্টগ্রাম আয়োজিত মুজিববর্ষের প্রথম অনুষ্ঠানে বক্তারা এই অভিমত ব্যক্ত করেন। অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করেন চট্টগ্রাম জেলা আইনজীবী সমিতির সাধারণ সম্পাদক ও নগর স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি অ্যাডভোকেট এ. এইচ. এম. জিয়া উদ্দীন জিয়া।
১৭ মাচ ‘মুজিববর্ষ উদযাপন পরিষদের’ আহ্বায়ক অ্যাডভোকেট কানুরাম শর্মার সভাপতিত্বে সদস্য সচিব মাহমুদুল করিমের সঞ্চালনায় চট্টগ্রাম প্রেসক্লাব চত্বরে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন সংগঠনের প্রেসিডিয়াম সদস্য অ্যাডভোকেট বি. কে. বিশ্বাস (বিপ্লব)। প্রধান আলোচক ছিলেন অধ্যাপক ড. আবু জাফর চৌধুরী। অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন চট্টগ্রাম বিভাগীর সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট জাহাঙ্গীর আলম, জেলার সভাপতি ইঞ্জিনিয়ার রুহুল আমিন, সিনিয়র সহ সভাপতি অধ্যাপক প্রদীপ রায়, সহ-সভাপতি শাহীন আক্তার বিউটি, এম, এনায়েতউল্লাহ, মহানগর সভাপতি ডা. সৈয়দ সাইফুল ইসলাম, জেলার সাধারণ সম্পাদক আবছারুল হক, এড. আবদুল্লাহ আল মামুন, আবদুল মোবারক রিমু, অধ্যাপক মুজিবল হক, সেলিম উদ্দীন চৌধুরী, ইঞ্জিনিয়ার জানে আলম, এড. রোকসানা আক্তার, এড. বিবি আয়েশা, অধ্যাপক প্রবীর বড়ুয়া, এড. শফিউল আজম বাবর, ইঞ্জিনিয়ার আনন্দ চক্রবর্তী, এড. দিলরাবী আজিজ, ডা. মিশুক সাহা, অধ্যাপক মিল্টন কুমার নাথ, সাইফুল ইসলাম সায়মন, ইঞ্জিনিয়ার শাহীন চৌধুরী, অধ্যাপক মনোয়ারা বেগম, পংকজ রায় প্রমুখ।
সভায় বক্তারা বাংলাদেশের প্রতিটি স্কুল-কলেজে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতি স্থাপন এবং বঙ্গবন্ধুর ৭ মার্চের ভাষণটি কলেজ ও বিশ^বিদ্যালয়ের পাঠ্যসূচীতে অন্তর্ভূক্ত করার দাবি জানান।
সভা শেষে সংগঠনের পক্ষ থেকে একটি বর্ণাঢ্য র‌্যালি বের করা হয়। র‌্যালিটি প্রেসক্লাব থেকে জামালখান রোড ও মোমিন রোড হয়ে সাবেক সিটি কর্পোরেশনে এসে শেষ হয়। পরে চসিক চত্বরে স্থাপিত বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ করে জাতির জনকের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করা হয়।
ইউসিবি: ইউনাইটেড কমার্শিয়াল লিমিটেড চট্টগ্রাম জোনের উদ্যেগে হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবাষিকী উপলক্ষে র‌্যালি ও কেক কাটার মাধ্যমে উৎসবমুখর পরিবেশে অনুষ্ঠিত হয়। চট্টগ্রাম জোনের ইভিপি ও হেড অব রিকভারি মুসলেহ উদ্দীন মনসুরের নেতৃত্বে অনুষ্ঠানে রিজোয়ানাল অপারেশন সেন্টার ও চট্টগ্রাম অফিসের সকল নির্বাহী ও কর্মকর্তারা র‌্যালিতে অংশগ্রহণ করেন। র‌্যালি শেষে কেক কাটা হয়।
অপরাধী সংশোধন ও পুনর্বাসন সংস্থা: সমাজসেবা অধিদফতরের প্রবেশন এন্ড আফটার কেয়ার কার্যক্রমের আওতায় গঠিত অপরাধী সংশোধন ও পুনর্বাসন সংস্থার উদ্যোগে চট্টগ্রাম কেন্দ্রীয় কারাগারে মুজিব শতবর্ষ ও জাতীয় শিশু দিবস ২০২০ উদযাপন করা হয়। এ উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে চট্টগ্রামের অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট এ. জেড. এম. শরীফ হোসেন প্রধান অতিথি থেকে কারাবন্দী মায়েদের সাথে থাকা শিশুদের মাঝে কেককাটা, পোষাক সামগ্রী বিতরণ, কারাগার হতে মুক্তিপ্রাপ্ত কয়েদীদের পুনর্বাসনের লক্ষে ৩ টি সেলাই মেশিন, ২ টি ভেনগাড়ি প্রদান এবং কারাবন্দী মহিলাদের নিয়ে দক্ষতা উন্নয়নে সেলাই প্রশিক্ষণ ও হস্তশিল্প প্রশিক্ষণ কোর্স উদ্বোধন করেন। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন চট্টগ্রাম কেন্দ্রীয় কারাগারের সিনিয়র জেল সুপার ও সংস্থার সহ সভাপতি মো. কামাল হোসেন। প্রবেশন অফিসার ও সংস্থার সাধারণ সম্পাদক পারুমা বেগম স্বাগত বক্তব্য রাখেন। অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন- সংস্থার সহ সম্পাদক আব্দুর রহমান মিন্টু, আইন সহায়তা সম্পাদক এডভোকেট জেসমিন আক্তার, কোষাধ্যক্ষ নাছিমা শওকত, নির্বাহী সদস্য হাফেজ মোহাম্মদ আমান উল্লাহ, আজিজুর রহমান, সৈয়দ মোহাম্মদ মোরশেদ হোসেন, চট্টগ্রাম জেলা করাগারের জেল সুপার ও সহকারী জেল সুপার ফেরদৌসী আক্তার।
পেকুয়া উপজেলা প্রেস ক্লাব: স্বাধীন বাংলার স্বপ্নদ্রষ্টা ও সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশত বার্ষিকী (মুজিববর্ষ) উদযাপন করেছে পেকুয়া উপজেলা প্রেস ক্লাব। বুধবার বিকেল সাড়ে ৩টায় উপজেলা প্রেস ক্লাব হল রুমে কেক কেটে ওই দিবসটি পালন করে। এসময় উপস্থিত ছিলেন পেকুয়া উপজেলা প্রেস ক্লাবের প্রতিষ্ঠাতা ও সভাপতি এ.এম.এমরান আহমেদ, সাধারণ সম্পাদক এম, দিদারুল করিম, এম. কফিল উদ্দিন বাহাদুর, সাংগঠনিক সম্পাদক রেজাউল করিম (, সদস্য সাজ্জাদুল ইসলাম, রিপোর্টাস ইউনিটি পেকুয়া শাখার সহ সভাপতি জালাল উদ্দিন প্রমুখ।
চকরিয়া সাপ্তাহিক মাতামুহুরী : কক্সবাজারের চকরিয়ায় জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশত বার্ষিকী তথা মুজিববর্ষ উদযাপন উপলক্ষে সাপ্তাহিক মাতামুহুরী পত্রিকার নিজস্ব কার্যালয়ের উদ্বোধন করা হয়েছে। মঙ্গলবার বিকাল ৫টায় চকরিয়া পৌর সদরের পুরাতন বিমানবন্দর সড়কস্থ ওশান সিটি মার্কেটের দ্বিতীয় তলায় ফিতা কেটে কার্যালয়ের উদ্বোধন করেন অনুষ্ঠানের উদ্বোধক ও চকরিয়া পৌর সভার মেয়র আলমগীর। পরে অনুষ্ঠানস্থলে কেক কেটে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশত বার্ষিকী তথা মুজিববর্ষ উদযাপন অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করেন অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি চকরিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও উপজেলা ইউপি চেয়ারম্যান সমিতির সভাপতি গিয়াস উদ্দিন । অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন, উপজেলা আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি সরওয়ার আলম, সহ-সভাপতি মোক্তার আহামদ ও এম আর, শাহ নেওয়াজ তালুকদার, চকরিয়া প্রেসক্লাবের সভাপতি এম জাহেদ, কক্সবাজার জেলা পরিষদ সদস্য অধ্যাপক সোলতান আহামদ ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক ক্রীড়া সম্পাদক আলমগীর হোসাইন প্রমুখ।
এছাড়া চকরিয়া প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক ও সাপ্তাহিক মাতামুহুরী পত্রিকার নির্বাহী সম্পাদক মিজবাউল হক, উপজেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি তপন কান্তি দাশ, চকরিয়া প্রেসক্লাবের মনজুর আলম প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন। পূর্বদেশ ডেস্ক

আইইবি, চট্টগ্রাম কেন্দ্র : হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালি, বাঙালি জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান তার নেতৃত্ব ও কুটনৈতিক প্রজ্ঞার মধ্য দিয়ে তিনি বঙ্গবন্ধু থেকে আজ বিশ^বন্ধু হিসেবে বিশ^ব্যাপী প্রতিটি মানুষের হৃদয়ে স্থান করে নিয়েছেন। ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন, বাংলাদেশ চট্টগ্রাম কেন্দ্রের উদ্যোগে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এর জন্মশতবার্ষিকী ‘মুজিববর্ষ’ উদযাপন উপলক্ষে ১৭ মার্চ এক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে চট্টগ্রাম বিশ^বিদ্যালয়ের প্রাক্তন উপাচার্য অধ্যাপক ড. ইফতেখার উদ্দিন চৌধুরী এসব কথা বলেন। এদিন জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী ‘মুজিববর্ষ’ উদযাপন উপলক্ষে ১৭ মার্চ আইইবি চট্টগ্রাম কেন্দ্রে জাতীয় পতাকা উত্তোলন এবং জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন কেন্দ্রের নেতৃবৃন্দ। মুজিববর্ষ উপলক্ষে সন্ধ্যায় কেন্দ্রের সেমিনার কক্ষে আয়োজন করা হয় এক আলোচনা সভার। কেন্দ্রের ভাইস-চেয়ারম্যান প্রকৌশলী প্রবীর কুমার সেনের সভাপতিত্বে এবং সম্পাদক প্রকৌশলী রফিকুল ইসলাম মানিকের সঞ্চালনায় প্রধান অতিথি ছিলেন চট্টগ্রাম বিশ^বিদ্যালয়ের প্রাক্তন উপাচার্য অধ্যাপক ড. ইফতেখার উদ্দিন চৌধুরী। সভার শুরুতে প্রধান অতিথি কেক কেটে বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী ‘মুজিববর্ষ’র আলোচনা সভার উদ্বোধন করেন।
প্রধান অতিথি অধ্যাপক ড. ইফতেখার উদ্দিন চৌধুরী আরো বলেন, বঙ্গবন্ধুর জন্ম না হলে এদেশের জন্ম হত না, ১৯৭৫ পরবর্তী জাতির জনককে হত্যার বিচার বন্ধ করতে ইন্ডেমিনিটি বিলসহ অনেক ধরনের কলাকৌশলের আশ্রয় নিয়েও ঘাতকের দল এবং সুবিধাভোগিরা বঙ্গবন্ধু হত্যার বিচার বন্ধ করতে পারেনি। দীর্ঘ একুশ বছর বঙ্গবন্ধুর নাম, বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধ, দীর্ঘ আন্দোলন সংগ্রামের ইতিহাস মানুষকে বলতে দেয়া হয়নি। কিন্তু ইতিহাস বড়ই কঠিন, বড়ই নির্মম। সত্য ইতিহাস কেউ কখনো মুছে ফেলতে পারে না। প্রধান অতিথি তার বক্তব্যে আরো বলেন, বাংলাদেশ, বাঙালি তথা পৃথিবীর ইতিহাস যতদিন থাকবে ততদিন বাঙালি জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এর নামও থাকবে।
আলোচনা সভায় আরও বক্তব্য রাখেন, কেন্দ্রের প্রাক্তন চেয়ারম্যান প্রকৌশলী এ কে এম ফজলুল্লাহ, প্রকৌশলী মোহাম্মদ হারুন, প্রকৌশলী সাদেক মোহাম্মদ চৌধুরী, প্রাক্তন ভাইস-চেয়ারম্যান প্রকৌশলী এম. এ. রশীদ, সিনিয়র প্রকৌশলী ও নগর পরিকল্পনাবিদ সুভাষ চন্দ্র বড়–য়া, পিডিবি’র প্রধান প্রকৌশলী মো. শামসুল আলম এবং প্রকৌশলী খোরশেদ উদ্দিন বাদল প্রমুখ।
পেকুয়া : কক্সবাজারের পেকুয়া উপজেলায় জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশত বার্ষিকী উদযাপিত হয়েছে। মঙ্গলবার সকালে উপজেলা প্রশাসন ও বিভিন্ন রাজনৈতিক ও পেশাজীবী সংগঠনের পক্ষে বঙ্গবন্ধু প্রতিকৃতিতে পুষ্পমাল্য প্রদান করা হয়। বেলা ১১টায় পেকুয়া উপজেলা পরিষদের মিলনায়তনে বঙ্গবন্ধুর জন্মশত বার্ষিকী উপলক্ষে কেক কাটা হয়। এতে উপস্থিত ছিলেন- সাংসদ জাফর আলম, পেকুয়া উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান জাহাঙ্গীর আলম, পেকুয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) সাঈকা সাহাদাত, নারী ভাইস চেয়ারম্যান উম্মে কুলসুম, উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) মীকি মারমা, পেকুয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কামরুল আজম, জেলা আয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য মুক্তিযোদ্ধা এড. কামাল হেসেন, আবু হেনা মোস্তফা কামাল ও আবুল কাশেম। এদিন উপজেলায় স্কুল, কলেজ, মাদ্রাসা, সরকারি- বেসরকারি প্রতিষ্ঠান, এনজিও সংস্থা সহ বিভিন্ন সামাজিক সংগঠন বঙ্গবন্ধুর জন্মশত বার্ষিকী উদযাপন করে। ‘বাস্তব সমৃদ্ধি’ কর্মসূচির উদ্যোগে শিলখালী ইউনিয়ন পরিষদ হল রুমে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশত বার্ষিকী ও জাতীয় শিশু দিবস উপলক্ষে এক আলাচনা সভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান করেছে। সকাল সাড়ে ৯টায় বাস্তব কমসূচির কার্যালয় থেকে একটি র‌্যালি বের হয়ে প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে আলোচনা সভায় মিলিত হন। পরে এলাকার যুবকদের অংশ গ্রহণে করোনা ভাইরাস সংক্রমণ প্রতিরোধে গণসচেতনতামূলক লিফলেট বিতরণ করা হয়।
বঙ্গবন্ধু পেশাজীবী পরিষদ: ‘জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান মানেই বাংলাদেশ। এই ক্ষণজন্মা মহান পুরুষ একধারে বাংলাদেশের স্বপ্নদ্রষ্টা, বাংলাদেশের স্থপতি এবং জাতির জনক। সারা জীবনের আন্দোলন সংগ্রাম, ত্যাগ এবং জনগণকে ভালবাসার মহিমায় প্রমাণিত হয়েছে তিনিই বাঙালির আত্মার আত্মীয়, বাঙালির অহংকার এবং অস্তিত্ব। আমরা তার গৌরবে গৌরাবান্বিত’। বঙ্গবন্ধু পেশাজীবী পরিষদ, চট্টগ্রাম আয়োজিত মুজিববর্ষের প্রথম অনুষ্ঠানে বক্তারা এই অভিমত ব্যক্ত করেন। অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করেন চট্টগ্রাম জেলা আইনজীবী সমিতির সাধারণ সম্পাদক ও নগর স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি অ্যাডভোকেট এ. এইচ. এম. জিয়া উদ্দীন জিয়া।
১৭ মাচ ‘মুজিববর্ষ উদযাপন পরিষদের’ আহ্বায়ক অ্যাডভোকেট কানুরাম শর্মার সভাপতিত্বে সদস্য সচিব মাহমুদুল করিমের সঞ্চালনায় চট্টগ্রাম প্রেসক্লাব চত্বরে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন সংগঠনের প্রেসিডিয়াম সদস্য অ্যাডভোকেট বি. কে. বিশ্বাস (বিপ্লব)। প্রধান আলোচক ছিলেন অধ্যাপক ড. আবু জাফর চৌধুরী। অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন চট্টগ্রাম বিভাগীর সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট জাহাঙ্গীর আলম, জেলার সভাপতি ইঞ্জিনিয়ার রুহুল আমিন, সিনিয়র সহ সভাপতি অধ্যাপক প্রদীপ রায়, সহ-সভাপতি শাহীন আক্তার বিউটি, এম, এনায়েতউল্লাহ, মহানগর সভাপতি ডা. সৈয়দ সাইফুল ইসলাম, জেলার সাধারণ সম্পাদক আবছারুল হক, এড. আবদুল্লাহ আল মামুন, আবদুল মোবারক রিমু, অধ্যাপক মুজিবল হক, সেলিম উদ্দীন চৌধুরী, ইঞ্জিনিয়ার জানে আলম, এড. রোকসানা আক্তার, এড. বিবি আয়েশা, অধ্যাপক প্রবীর বড়ুয়া, এড. শফিউল আজম বাবর, ইঞ্জিনিয়ার আনন্দ চক্রবর্তী, এড. দিলরাবী আজিজ, ডা. মিশুক সাহা, অধ্যাপক মিল্টন কুমার নাথ, সাইফুল ইসলাম সায়মন, ইঞ্জিনিয়ার শাহীন চৌধুরী, অধ্যাপক মনোয়ারা বেগম, পংকজ রায় প্রমুখ।
সভায় বক্তারা বাংলাদেশের প্রতিটি স্কুল-কলেজে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতি স্থাপন এবং বঙ্গবন্ধুর ৭ মার্চের ভাষণটি কলেজ ও বিশ^বিদ্যালয়ের পাঠ্যসূচীতে অন্তর্ভূক্ত করার দাবি জানান।
সভা শেষে সংগঠনের পক্ষ থেকে একটি বর্ণাঢ্য র‌্যালি বের করা হয়। র‌্যালিটি প্রেসক্লাব থেকে জামালখান রোড ও মোমিন রোড হয়ে সাবেক সিটি কর্পোরেশনে এসে শেষ হয়। পরে চসিক চত্বরে স্থাপিত বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ করে জাতির জনকের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করা হয়।
ইউসিবি: ইউনাইটেড কমার্শিয়াল লিমিটেড চট্টগ্রাম জোনের উদ্যেগে হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবাষিকী উপলক্ষে র‌্যালি ও কেক কাটার মাধ্যমে উৎসবমুখর পরিবেশে অনুষ্ঠিত হয়। চট্টগ্রাম জোনের ইভিপি ও হেড অব রিকভারি মুসলেহ উদ্দীন মনসুরের নেতৃত্বে অনুষ্ঠানে রিজোয়ানাল অপারেশন সেন্টার ও চট্টগ্রাম অফিসের সকল নির্বাহী ও কর্মকর্তারা র‌্যালিতে অংশগ্রহণ করেন। র‌্যালি শেষে কেক কাটা হয়।
অপরাধী সংশোধন ও পুনর্বাসন সংস্থা: সমাজসেবা অধিদফতরের প্রবেশন এন্ড আফটার কেয়ার কার্যক্রমের আওতায় গঠিত অপরাধী সংশোধন ও পুনর্বাসন সংস্থার উদ্যোগে চট্টগ্রাম কেন্দ্রীয় কারাগারে মুজিব শতবর্ষ ও জাতীয় শিশু দিবস ২০২০ উদযাপন করা হয়। এ উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে চট্টগ্রামের অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট এ. জেড. এম. শরীফ হোসেন প্রধান অতিথি থেকে কারাবন্দী মায়েদের সাথে থাকা শিশুদের মাঝে কেককাটা, পোষাক সামগ্রী বিতরণ, কারাগার হতে মুক্তিপ্রাপ্ত কয়েদীদের পুনর্বাসনের লক্ষে ৩ টি সেলাই মেশিন, ২ টি ভেনগাড়ি প্রদান এবং কারাবন্দী মহিলাদের নিয়ে দক্ষতা উন্নয়নে সেলাই প্রশিক্ষণ ও হস্তশিল্প প্রশিক্ষণ কোর্স উদ্বোধন করেন। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন চট্টগ্রাম কেন্দ্রীয় কারাগারের সিনিয়র জেল সুপার ও সংস্থার সহ সভাপতি মো. কামাল হোসেন। প্রবেশন অফিসার ও সংস্থার সাধারণ সম্পাদক পারুমা বেগম স্বাগত বক্তব্য রাখেন। অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন- সংস্থার সহ সম্পাদক আব্দুর রহমান মিন্টু, আইন সহায়তা সম্পাদক এডভোকেট জেসমিন আক্তার, কোষাধ্যক্ষ নাছিমা শওকত, নির্বাহী সদস্য হাফেজ মোহাম্মদ আমান উল্লাহ, আজিজুর রহমান, সৈয়দ মোহাম্মদ মোরশেদ হোসেন, চট্টগ্রাম জেলা করাগারের জেল সুপার ও সহকারী জেল সুপার ফেরদৌসী আক্তার।
পেকুয়া উপজেলা প্রেস ক্লাব: স্বাধীন বাংলার স্বপ্নদ্রষ্টা ও সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশত বার্ষিকী (মুজিববর্ষ) উদযাপন করেছে পেকুয়া উপজেলা প্রেস ক্লাব। বুধবার বিকেল সাড়ে ৩টায় উপজেলা প্রেস ক্লাব হল রুমে কেক কেটে ওই দিবসটি পালন করে। এসময় উপস্থিত ছিলেন পেকুয়া উপজেলা প্রেস ক্লাবের প্রতিষ্ঠাতা ও সভাপতি এ.এম.এমরান আহমেদ, সাধারণ সম্পাদক এম, দিদারুল করিম, এম. কফিল উদ্দিন বাহাদুর, সাংগঠনিক সম্পাদক রেজাউল করিম (, সদস্য সাজ্জাদুল ইসলাম, রিপোর্টাস ইউনিটি পেকুয়া শাখার সহ সভাপতি জালাল উদ্দিন প্রমুখ।
চকরিয়া সাপ্তাহিক মাতামুহুরী : কক্সবাজারের চকরিয়ায় জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশত বার্ষিকী তথা মুজিববর্ষ উদযাপন উপলক্ষে সাপ্তাহিক মাতামুহুরী পত্রিকার নিজস্ব কার্যালয়ের উদ্বোধন করা হয়েছে। মঙ্গলবার বিকাল ৫টায় চকরিয়া পৌর সদরের পুরাতন বিমানবন্দর সড়কস্থ ওশান সিটি মার্কেটের দ্বিতীয় তলায় ফিতা কেটে কার্যালয়ের উদ্বোধন করেন অনুষ্ঠানের উদ্বোধক ও চকরিয়া পৌর সভার মেয়র আলমগীর। পরে অনুষ্ঠানস্থলে কেক কেটে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশত বার্ষিকী তথা মুজিববর্ষ উদযাপন অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করেন অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি চকরিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও উপজেলা ইউপি চেয়ারম্যান সমিতির সভাপতি গিয়াস উদ্দিন । অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন, উপজেলা আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি সরওয়ার আলম, সহ-সভাপতি মোক্তার আহামদ ও এম আর, শাহ নেওয়াজ তালুকদার, চকরিয়া প্রেসক্লাবের সভাপতি এম জাহেদ, কক্সবাজার জেলা পরিষদ সদস্য অধ্যাপক সোলতান আহামদ ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক ক্রীড়া সম্পাদক আলমগীর হোসাইন প্রমুখ।
এছাড়া চকরিয়া প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক ও সাপ্তাহিক মাতামুহুরী পত্রিকার নির্বাহী সম্পাদক মিজবাউল হক, উপজেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি তপন কান্তি দাশ, চকরিয়া প্রেসক্লাবের মনজুর আলম প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।