নগর বিএনপির মানববন্ধনে শামীম

জনগণ আন্দোলন করে খালেদাকে মুক্ত করবে

নিজস্ব প্রতিবেদক

40

মহানগর বিএনপির উদ্যোগে দলের চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করা হয়েছে। কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে গতকাল সোমবার সকালে নগরীর নুর আহম্মদ সড়কে এ কর্মসূচির আয়োজন করা হয়। মানববন্ধনে নগর বিএনপির ভারপ্রাপ্ত সভাপতি আবু সুফিয়ানের সভাপতিত্ব করেন।
এতে প্রধান অতিথি ছিলেন বিএনপির বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদক মাহবুবুর রহমান শামীম।
তিনি বলেন, সরকার যে আশায় বেগম খালেদা জিয়াকে কারাগারে পাঠিয়েছে সে আশা কখনো পূরণ হবে না। বাংলাদেশে খালেদা জিয়াকে ছাড়া কোন নির্বাচন হবে না। দেশের সাধারণ মানুষ গণ আন্দোলনের মাধ্যমে খালেদা জিয়াকে মুক্ত করে আনবে।
বিএনপির শান্তিপূর্ণ কর্মসূচি সরকারের পছন্দ হচ্ছে না মন্তব্য করে তিনি বলেন, আওয়ামী লীগ চেয়েছিলো বেগম খালেদা জিয়ার রায়কে কেন্দ্র করে বিএনপির নেতা-কর্মীরা গাড়ি ভাঙচুর করুক। আর এই সুযোগে আওয়ামী লীগ গাড়িতে আগুন দিয়ে মানুষ হত্যা করে দোষ চাপাত বিএনপির উপর। বিএনপি রায় ও সাজাকে কেন্দ্র করে কোন সহিংস আন্দোলন করেনি তাই সরকারি দল হতাশ।
নগর বিএনপির ভারপ্রাপ্ত সভাপতি আবু সুফিয়ান বলেন, সরকার বিএনপির উপর যতই নির্যাতনের স্টিম রোলার চালাচ্ছে, ততই বিএনপির জনপ্রিয়তা বাড়ছে। বেগম জিয়াকে কারাগারে পাঠিয়ে তার জনপ্রিয়তা আরো বাড়িয়ে দিয়েছে।
সরকার মামলার রায়ের দিন ভীতিকর পরিবেশ সৃষ্টি করলেও বেগম খালেদা জিয়া অবিচলভাবে পরিস্থিতি মোকাবেলা করেছেন। হাজার হাজার নেতাকর্মী নিয়ে আদালতে গিয়ে ইতিবাচক রাজনীতির দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন। সরকারের মারমুখী ভূমিকার বিপরীতে তার দৃঢ় এবং অবিচল অবস্থান সাধারণ মানুষের মাঝে নতুন পরিচয় তুলে ধরেছে।
তিনি বলেন, সরকারের বিরুদ্ধে সাধারণ মানুষ ক্ষোভে ফুঁসছে। আগামী নির্বাচনেই তার বহিঃপ্রকাশ ঘটাবে। ক্ষমতায় যাওয়ার রাস্তা আওয়ামী লীগের জন্য কঠিন হয়ে উঠেছে। তাই সরকার ভীত হয়ে বেগম খালেদা জিয়াকে কারাগারে রেখে বিএনপিকে দুর্বল করতে টার্গেটে পরিণত করেছে।
নগর বিএনপির সভাপতি ডা. শাহাদাত হোসেন সহ চট্টগ্রামে গ্রেপ্তারকৃত সকল নেতার মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার করে নিঃশর্ত মুক্তির দাবি জানিয়ে আজ মঙ্গলবার বিকেলে দলীয় কার্যালয়ের সামনে অবস্থান কর্মসূচি সফল করার আহŸান জানান।
মানববন্ধনে আরো বক্তব্য রাখেস নগর বিএনপি’র সহ সভাপতি এম এ আজিজ, মিয়া ভোলা, অ্যাডভোকেট আবদুস সাত্তার, মো. আলী, জয়নাল আবেদিন জিয়া, হারুন জামান, অধ্যাপক নুরুল আলম রাজু, ইকবাল চৌধুরী, এসএম আবুল ফয়েজ, যুগ্ম সম্পাদক এসএম সাইফুল আলম, কাজী বেলাল উদ্দিন, এসকান্দর মির্জা, আর ইউ চৌধুরী শাহীন, ইয়াছিন চৌধুরী লিটন, আবদুল মান্নান, আনোয়ার হোসেন লিপু, মোশারফ হোসেন দীপ্তি, টিংকু দাশ, শেখ নুরুল্লাহ বাহার, সাংগঠনিক সম্পাদক মনজুর আলম চৌধুরী মনজু, কামরুল ইসলাম, মহিলা দলের সভাপতি কাউন্সিলর মনোয়ারা বেগম মনি, সাধারণ সম্পাদক জেলি চৌধুরী প্রমুখ।