ছেলেদেরে ক্রিকেটেওে সোনা জয়

পূর্বদেশ ক্রীড়া ডেস্ক

8

পূর্বদেশ ক্রীড়া ডেস্ক

জাতীয় পতাকা নিয়ে ক্রিকেটারদের উল্লাসএসএ গেমসে মেয়েদের পর ছেলেদের ক্রিকেটেও এলো সোনা। সোমবার ফাইনালে বাংলাদেশ ৭ উইকেটে হারিয়েছে শ্রীলঙ্কাকে। তাতে বাংলাদেশের সোনার সংখ্যা দাঁড়ালো ১৯টি। এসএ গেমসের ইতিহাসে এটাই দেশের সেরা সাফল্য। আগের সেরা অর্জন ছিল ১৮টি সোনা, ২০১০ সালে ঢাকায়। ফাইনালের আগের দিন রাউন্ড রবিন লিগের শেষ ম্যাচে বোলিং ব্যর্থতায় এই শ্রীলঙ্কার কাছে হেরেছিল বাংলাদেশ। তবে ফাইনালে দুর্দান্ত বোলিংয়ে লঙ্কানদের ১২২ রানে অলআউট করে তারা। এরপর ১৮.১ ওভারে ৩ উইকেটে ১২৫ রান করে নাজমুল হোসেন শান্তর দল।
টস হেরে ব্যাট করতে নেমে দুই ওপেনারের ৩৬ রানের জুটি ছিল সর্বোচ্চ। নিশান মাদুষ্কার (১৬) বিদায়ে ভেঙে পড়ে লঙ্কানদের ব্যাটিং লাইন আপ। এরপর কেবল দুই অঙ্কের ঘরে রান করেন পাথুম নিশানকা (২২), চারিথ আসালানকা (১২) ও শাম্মু আশান (২৫)।ষষ্ঠ ওভারে জোড়া আঘাত হানা হাসান মাহমুদ শেষ করেছেন ৩ উইকেট নিয়ে, ২০ রান দেন তিনি। তানভীর ইসলাম নেন দুটি উইকেট।
এই পদকের মূল্য মেহেদী-সুমনদের কাছে অসীমলক্ষ্যে নেমে অনায়াসে জিতে গেছে বাংলাদেশ। সাইফ হাসানের সঙ্গে সৌম্য সরকারের ৪৪ রানের উদ্বোধনী জুটিতে শুরুটা দারুণ করে তারা। ২৮ বলে সৌম্য ২৭ রানে আউট হলে ভাঙে এই জুটি। এরপর অধিনায়ক শান্তর সঙ্গে সাইফ ৩৯ রানের আরেকটি স্বস্তিদায়ক জুটি গড়েন। ৩০ বলে ৩৩ রান করে বিদায় নেন সাইফ। এরপর কেবল ইয়াসির আলীকে (১৯) হারিয়েছে বাংলাদেশ।
আফিফ হোসেনের সঙ্গে ১৭ রানের অবিচ্ছিন্ন জুটিতে দলকে জিতিয়ে মাঠ ছাড়েন শান্ত। ১৯তম ওভারের প্রথম বলে বাউন্ডারি মেরে জয় নিশ্চিত করেন তিনি। ২৮ বলে ২ চার ও ১ ছয়ে ৩৫ রানে অপরাজিত ছিলেন বাংলাদেশের অধিনায়ক। ৫ রানে খেলছিলেন আফিফ।
এনিয়ে টানা দ্বিতীয়বার এসএ গেমস ক্রিকেটে সোনা জিতলো বাংলাদেশ। এর আগে ২০১০ সালে প্রথমবার ক্রিকেট অন্তর্ভুক্ত হওয়ার পর বাংলাদেশ পেয়েছিল সেরা সাফল্য।