ছিনতাইকারী-পুলিশ ‘বন্দুকযুদ্ধ,’ আহত ৩ অস্ত্র উদ্ধার

নিজস্ব প্রতিবেদক

22

নগরীতে পুলিশের সাথে ছিনতাইকারীর বন্দুকযুদ্ধের ঘটনা ঘটেছে। গতকাল বুধবার ভোররাতে নগরীর কোতোয়ালী থানাধীন নন্দনকানন মোড়ে এ ঘটনায় আসলাম হোসেন ওরফে ইমন ওরফে আলমাছ (৩০) নামের ছিনতাইকারী এবং দুই পুলিশ সদস্য এএসআই রুহুল ও এএসআই রনেশ বড়ুয়া আহত হন। এসময় ঘটনাস্থল থেকে একটি এলজি ও তিন রাউন্ড কার্তৃজসহ আহত ছিনতাইকারীকে গ্রেপ্তার করা হয়। কোতোয়ালী থানা সূত্র জানিয়েছে গ্রেপ্তার হওয়া আলমাছের বিরুদ্ধে বিভিন্ন থানায় অস্ত্র, ছিনতাই, ডাকাতিসহ বিভিন্ন অভিযোগে ১১টি মামলা রয়েছে।
পুলিশ জানিয়েছে, নন্দনকানন বোস ব্রাদার্সের সামনে একদল ছিনতাইকারীর অবস্থান জানতে পেরে কোতোয়ালী থানার একটি টিম অভিযান চালায়। এসময় পুলিশের অবস্থান জানতে পেরে ছিনতাইকারীরা পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করলে পুলিশ তাদের ধাওয়া দেয়। পালিয়ে যাওয়ার সময় ছিনতাইকারীরা পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলি ছোঁড়ে। এসময় পুলিশও পাল্টা গুলি করে। এসময় দুই পক্ষের গুলাগুলির পর ছিনতাইকারী আলমাছকে আহত অবস্থায় উদ্ধার করে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এ ঘটনায় দুই পুলিশ সদস্যও আহত হয়। এসময় ঘটনাস্থল থেকে একটি এলজি ও তিন রাউন্ড কার্তুজ উদ্ধার করা হয়েছে।
কোতোয়ালী থানার ওসি মোহাম্মদ মহসীন বলেন, ‘গ্রেপ্তার হওয়া আলমাছসহ ছিনতাইকারীদের এ গ্রুপটি নিউমার্কেট, নন্দন কানন, জুবিলী রোড, সিনেমা প্যালেস এলাকায় ছিনতাই করে করে থাকে বলে পুলিশের কাছে তথ্য রয়েছে। আমরা তাদের অবস্থান জানতে পেরে অভিযান চালাই। এ ঘটনায় ডাকাতি প্রস্তুতি ও অস্ত্র উদ্ধারের বিষয়ে দুটি পৃথক মামলা হয়েছে। ঘটনাস্থল থেকে পালিয়ে যাওয়া অন্য ছিনতাইকারীদের গ্রেপ্তারে পুলিশের অভিযান অব্যাহত রয়েছে।’