চাক্তাই খালে পণ্যবোঝাই ট্রলারে আগুন

নিজস্ব প্রতিবেদক

6

চাক্তাই খালে একটি পণ্যবোঝাই ট্রলারে অগ্নিকান্ডের ঘটনা ঘটেছে। ‘এমভি জনসেবা’ নামের এ ট্রলারে গতকাল সন্ধ্যা ৬টার দিকে অগ্নিকান্ডের ঘটনা ঘটেছে। ফায়ার সার্ভিসের তিনটি স্টেশনের ৬টি ইউনিট রাত ৮ টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। বিভিন্ন উপজেলায় পণ্য সরবরাহের জন্য ট্রলারটিতে দুই হাজার মণ পণ্য ছিলো বলে জানা যায়।
আগ্রাবাদ ফায়ার সার্ভিসের পরিচালক আমান উদ্দিন ভূইয়া বলেন, চাক্তাই খালে ট্রলারে মালামাল তুলে বিভিন্ন জেলা-উপজেলায় সাপ্লাই দেওয়া হয়। আলী আকবর সওদাগর নামের এক ব্যক্তি ট্রলারে মাল ভর্তি করে রওনা হওয়ার প্রাক্কালে আগুন ধরে যায়। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে আমরা আগুন নিয়ন্ত্রণে আনার চেষ্টা চালাই। সর্ম্পূণ নিয়ন্ত্রণে আনতে রাত টা পর্যন্ত সময় লেগে যায়। প্রথম দিকে আমরা ট্রলারটির পাশেও যেতে পারিনি। দ্রাহ্য বস্তু থাকায় আগুনের তীব্রতা বাড়তে থাকে। পরে আগুন নিয়ন্ত্রণে আসে। তবে তেল জাতীয় পদার্থ থাকায় হালকা আগুন থেকে যায়। সেটা বিপজ্জনক নয়।
বিষয়টি সম্পর্কে আগ্রাবাদ ফায়ার সার্ভিসের উপ-সহকারী পরিচালক মো. জসীম উদ্দীন বলেন, পণ্যবোঝাই একটি ট্রলারে আগুন লাগার খবর পেয়ে আগ্রাবাদ, লামারবাজার ও নন্দনকানন ফায়ার স্টেশনের ৬টি গাড়ি ঘটনাস্থলে পাঠানো হয়েছে। রাত ৮টার দিকে আগুন নিয়ন্ত্রণে আসে, পুরোপুরি আগুন বন্ধ করা যায়নি। তাৎক্ষণিকভাবে ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ ও অগ্নিকাÐের কারণ নির্ণয় করা যায়নি।
জানা যায়, কুতুবদিয়াতে পণ্য সরবরাহের জন্য ট্রলারটি বিভিন্ন মুদির দোকানের পণ্যে ভর্তি করা হয়। প্রায় দুই হাজার মণ পণ্য বোঝাই করার পর কার্গো ট্রলারটি গন্তব্যের উদ্দেশে রওনা দেওয়ার পূর্বে অগ্নিকাÐের সূত্রপাত হয়। ট্রলারটিতে বিভিন্ন মুদির মালামালের মধ্যে দ্রাহ্য তেলও ছিলো। যার কারণে দ্রæত আগুন ছড়িয়ে পড়ে। রাত ১১টার দিকেও কিছুক্ষণ পর পর আগুন দেখতে পাওয়া যায়।
কথা হলে আগ্রাবাদ ফায়ার স্টেশনের অপারেটর জিল্লুর রহমান বলেন, এমভি জনসেবা নামের ট্রলারটি কুতুবদিয়া যাওয়ার কথা ছিলো। ট্রলারে মুদির দোকানের মালামাল তোলা হয়। দুই হাজার মণ পণ্য ছিলো ট্রলারটিতে। সেখানে বড় তেলের ড্রামও ছিলো। তেল থাকায় আগুন পুরোপুরি নিয়ন্ত্রণে আনতে বেগ পেতে হয়।