চবি ইতিহাস বিভাগের সেমিনারে উপাচার্য রোহিঙ্গা ইস্যু সমাধানে মানবিক দৃষ্টিভঙ্গী নিয়ে সোচ্চার হউন

বিজ্ঞপ্তি

60

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় ইতিহাস বিভাগের উদ্যোগে ‘আরাকানে বর্মি আগ্রাসন ও রোহিঙ্গা সংকটের গোড়ার কথা’ শীর্ষক সেমিনার গতকাল বেলা ১১টায় ইতিহাস বিভাগের কনফারেন্স রুমে অনুষ্ঠিত হয়। এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন চবি উপাচার্য প্রফেসর ড. ইফতেখার উদ্দিন চৌধুরী। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন চবি উপ-উপাচার্য প্রফেসর ড. শিরীণ আখতার। চবি ইতিহাস বিভাগের সভাপতি প্রফেসর ড. মাহবুবুল হকের সভাপতিত্বে  সেমিনারে প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন বিভাগের প্রফেসর ড. মোহাম্মদ আলী চৌধুরী।

উপাচার্য বলেন,  মিয়ানমারে রোহিঙ্গাদের জাতিগত নিধনযজ্ঞ এবং বিশ্বের বর্বরতম নৃশংসতা মানবতাবিরোধী কর্মকা- একটি দেশিয় ও আন্তর্জাতিক চক্রান্ত। উপাচার্য এ ষড়যন্ত্রের বিরুদ্ধে বাংলাদেশের প্রতিটি সচেতন মানুষকে জাগ্রত হওয়ার আহবান জানান এবং নির্যাতিত রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠীকে বাংলাদেশে মানবিক আশ্রয়ের বিষয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উদার নৈতিক দৃষ্টিভঙ্গীর প্রতি বিনম্র শ্রদ্ধা জ্ঞাপন করেন। মাননীয় উপাচার্য দেশ ও জাতির এ ক্রান্তিকালে রোহিঙ্গা ইস্যু নিয়ে কোনপ্রকার সাম্প্রদায়িকতা, জঙ্গি তৎপরতা, সহিংসতাসহ নেতিবাচক কর্মকা- যাতে মাথাচাড়া দিয়ে উঠতে না পারে এ বিষয়ে সকলকে সতর্ক থাকার আহবান জানান। উপাচার্য রোহিঙ্গা সমস্যা সমাধানে প্রধানমন্ত্রী কর্তৃক জাতিসংঘে উত্থাপিত কপি আনানের রিপোর্টসহ পাঁচদফা বাস্তবায়নে বিশ্ববাসীকে উদার দৃষ্টিভঙ্গী নিয়ে এগিয়ে আসার আহবান জানান। পরে তিনি সেমিনারের উদ্বোধন ঘোষণা করেন।

ইতিহাস বিভাগের প্রফেসর ড. জাহিদুর রহমানের সঞ্চালনায় সেমিনারে বক্তব্য রাখেন বিভাগের প্রফেসর ড. মোহাম্মদ শাহ, প্রফেসর ড. আবদুল্লাহ আল-মাসুম, নৃবিজ্ঞান বিভাগের প্রফেসর ড. নাসির উদ্দিন, আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিভাগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি আশরাফুল আজাদ প্রমুখ।