ধর্মঘটে বেপরোয়া গাড়ি

চবিতে ভর্তি পরীক্ষা দেওয়া হলো না মারজানের

সীতাকুন্ড প্রতিনিধি

13

সীতাকুন্ডে সড়ক দুর্ঘটনায় চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি পরীক্ষা দিতে যাওয়া এক শিক্ষার্থী নিহত হয়েছেন। গতকাল রবিবার সকালে উপজেলার ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের সিরাজ ভূইয়া রাস্তার মাথা এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে। নিহত শিক্ষার্থী মারজান আক্তার (১৯) নোয়াখালীর মাইজদি চৌরাস্তার ৪নং আলীয়াপুর এলাকার মানিক মিয়ার মেয়ে। দুর্ঘটনার সময় তিনি একটি মাইক্রোবাসে ছিলেন। পরিবহন ধর্মঘটের কারণে ফাঁকা মহাসড়কে বেপরোয়া গতিতে চালাতে গিয়ে মাইক্রোবাসটি একটি গাছের সাথে ধাক্কা লাগে।
জানা যায়, মারজান পরীক্ষা দেওয়ার জন্য একদিন আগে নিজ বাড়ি মাইজদি থেকে সীতাকুন্ড সোবহানবাগ এলাকায় পিতাসহ খালার বাসায় অবস্থান করেন। গতকাল রবিবার সকালে পৌরসদর থেকে পিতার সাথে ভাড়া মাইক্রোবাস যোগে বিশ্ববিদ্যালয়ের উদ্দেশ্যে রওনা দেন। এসময় সিরাজ ভূইয়া রাস্তার মাথা এলাকায় মাইক্রোবাসটি নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে সড়কের পার্শ্ববর্তী গাছের সাথে সজোরে ধাক্কা লাগে। এতে মাইক্রোবাসটি দুমড়ে-মুচড়ে গিয়ে ঘটনাস্থলেই নিহত হন মারজান। পরে স্থানীয়রা মাইক্রোবাসে থাকা অন্যদের উদ্ধার করে সীতাকুন্ড স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করান।
সীতাকুন্ড থানার ওসি (তদন্ত) মো. আফজাল হোসেন ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, ‘আমরা দুর্ঘটনাকবলিত মাইক্রোবাসটি উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসি এবং নিহত বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি পরীক্ষা দিতে যাওয়া ছাত্রীটির লাশ তার পরিবারের কাছে হস্তান্তর করি।