চন্দনাইশে জায়গা সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে সংঘর্ষ

চন্দনাইশ প্রতিনিধি

12

উপজেলার বৈলতলী এলাকায় জায়গা জমি সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে পক্ষদ্বয়ের মধ্যে সংঘর্ষে ২ জন গুলিবিদ্ধসহ ৭ জনের অধিক আহত হয়। গত ২৫ মে ঈদের নামাজের পর পর বৈলতলী জাফরাবাদ এলাকায় দু’দফা সংঘর্ষের ঘটনায় ১৫ রাউন্ডের অধিক গোলাগুলির ঘটনা ঘটে। এ সময় জাফরাবাদ এলাকার মৃত বাঁচা মিয়ার ছেলে মো. হানিফ (২৮), মৃত আহমদ কবিরের ছেলে আকাশ কবির তুষার (২৭), প্রতি পক্ষের আবু ছৈয়দের ছেলে শহীদুল ইসলাম মিনার (২৫) গুলিবিদ্ধ হয়। তাছাড়া পক্ষদ্বয়ের মধ্যে সংঘর্ষে মৃত জাহেদ হোসেনের ছেলে মো.জাবেদ (৩০), মৃত আহমদ কবিরের ছেলে কনিক (৩২), নুরুল হকের ছেলে মফিক (১২), আবুল কাশেম চৌধুরী’র ছেলে রনি চৌধুরী (৩৫) আহত হয়। আহতদের মধ্যে হানিফ ও তুষারকে দোহাজারী স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক প্রাথমিক চিকিৎসার পর চমেক হাসপাতালে প্রেরণ করেন। অপরদিকে শহীদুল ইসলাম মিনার ও রনি চৌধুরীকে চমেক হাসপাতালে সরাসরি চিকিৎসার জন্য নেয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন মেম্বার মহিবুল্লাহ। অন্যদের স্থানীয়ভাবে চিকিৎসা দেয়া হয়। স্থানীয়রা জানান, পক্ষদ্বয়ের মধ্যে জায়গা সম্পত্তির বিরোধকে কেন্দ্র করে একাধিকবার সংঘর্ষ হয়েছে। মামলাও চলমান রয়েছে। অদ্য ২৫ মে ঈদের নামাজের পর পর পক্ষদ্বয়ের মধ্যে কথা কাটাকাটির এক পযার্য়ে গোলাগুলি শুরু হয়। এ সময় ১৫ রাউন্ডের অধিক গুলির শব্দ শোনা যায় দীর্ঘ ২ ঘন্টা ধরে পক্ষদ্বয়ের মধ্যে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া চলে। পুলিশ ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনে। বর্তমানে এলাকায় থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে। থানা অফিসার ইনচার্জ কেশব চক্রবর্ত্তী বলেছেন, গোলাগুলির বিষয়টি তিনি জানেন না। ২ জন আহত হয়ে চমেক হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য নেয়া হয়েছে বলে তিনি জেনেছেন। পুলিশ ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে এনেছে। পক্ষদ্বয়ের মধ্যে দীর্ঘদিন থেকে জায়গা সম্পত্তি নিয়ে বিরোধ চলে আসছিল। একাদিক মামলাও রয়েছে।