চট্টগ্রাম ওয়াসার পানি ও বিল সমস্যা অধিক পরিমাণে দায়িত্বশীলতার পরিচয় জরুরি

5

চট্টগ্রাম মহানগরীতে ওয়াসা বিশুদ্ধ পানি সরবরাহের সরকারি প্রতিষ্ঠান। দীর্ঘদিন চট্টগ্রাম ওয়াসা মহানগরীতে চাহিদা মোতাবেক পানি সরবরাহ করতে পারেনি। এর প্রধান কারণ ছিল, যে পরিমাণ পানি চট্টগ্রাম মহানগরীতে প্রয়োজন ছিল তার চেয়ে ওয়াসার সরবরাহ ক্ষমতা কম ছিল। বর্তমানে নানা প্রকল্প বাস্তবায়ন হওয়ায় ওয়াসা পর্যাপ্ত পানি সরবরাহের জন্য সক্ষমতা অর্জন করেছে। দৈনিক পূর্বদেশ পত্রিকার এক প্রতিবেদন হতে জানা যায় চট্টগ্রাম ওয়াসা পর্যাপ্ত পানি সরবরাহের পাশাপাশি পানির মিটার ও বিল সংক্রান্ত জটিলতা নিরসনের উদ্যোগ নিয়েছে, এহেন বিষয় সাধুবাদ পাবার যোগ্য। চট্টগ্রাম ওয়াসার অধিনে প্রায় দশহাজার গ্রাহকের কোন মিটার ছিল না। এসব গ্রাহকদের গড় বিল দেয়া হতো, এক্ষেত্রে একদিকে চট্টগ্রাম ওয়াসাকে সিসটেম লসে পড়তে হতো, অন্যদিকে বহু গ্রাহককে কম পানি ব্যবহার করেও অতিরিক্ত বিলের বোঝা টানতে হতো। ওয়াসা মহানগরীর একটি গুরুত্বপূর্ণ সেবাদানকারী প্রতিষ্ঠান। এ প্রতিষ্ঠানকে যেমন টিকে থাকতে হবে তেমনি সেবা গ্রহণ করতে গিয়ে গ্রাহকদের যেন ছেঁছা খেতে না হয়, সে দিকটাও গুরুত্বপূর্ণ বিবেচ্য বিষয়। পত্রিকার প্রতিবেদন হতে জানা যায় ওয়াসা ইতোমধ্যে নয় হাজার নতুন মিটার স্থাপন করেছে। বাকী নতুন মিটার স্থাপন কার্যক্রমও দ্রুত সময়ের মধ্যে শেষ হবে এমন আশা ওয়াসা কর্তৃপক্ষের। চট্টগ্রাম ওয়াসার ৭০ হাজার গ্রাহকের মধ্যে দশ হাজার গ্রাহকের মিটার ছিল না। ২০ হাজার গ্রাহক মিনিমাম বিল প্রদান করতো। তার সাথে বহু গ্রাহকের মিটার নষ্টও ছিল। সবমিলিয়ে একটা বেহাল অবস্থার মধ্যে ওয়াসা সেবা চলেছে ইতোপূর্বে। বর্তমানে পানি সরবরাহ পর্যাপ্ত হবার পাশাপাশি ওয়াসা গ্রাহক হয়রানি নিরসনে যে সকল উদ্যোগ নিচ্ছে তা সাধারণ গ্রাহকদের কাছে প্রশংসার দাবী রাখে। তবে এ কথাও সত্য যে কিছু অসাধু কর্মচারী ও কর্মকর্তার কারণে ওয়াসা নানারকম ক্ষতির সম্মুখীন হয়েছে। তার সাথে বহু গ্রাহক ও হয়রানির শিকার হয়েছে। ওয়াসার সেবা কার্যক্রমে সততা, নিষ্ঠা, আন্তরিকতা এবং দায়বদ্ধতার পরিচয় আশা করে সাধারণ গ্রাহক। মিটারের রিডিং দেখে গ্রাহকদের সঠিক বিল প্রদানের ব্যবস্থা শতভাগ কার্যকর করা ওয়াসা কর্তৃপক্ষের দায়িত্ব। যার ফলে একদিকে ওয়াসা লাভবান হবে, অন্যদিকে গ্রাহক আর্থিক হয়রানি থেকে রক্ষা পাবে। ফলে ওয়াসার কিছু অসাধু কর্মচারী-কর্মকর্তা ওয়াসাকে সিস্টেম লস দেখিয়ে এ সেবা দানকারী প্রতিষ্ঠানটিকে ক্ষতিগ্রস্থ করতে পারবে না। আমরা চাই ওয়াসার মাধ্যমে চট্টগ্রাম মহানগরীতে ওয়াসার পানি ব্যবহারকারী গ্রাহকরা উপকৃত হবার পাশাপাশি ওয়াসাও যেন সরকারের লাভ জনক প্রতিষ্ঠানে রূপান্তরিত হয়। সচ্ছ¡তা, জবাব দিহীতা এবং দায়বদ্ধতার পরিবেশ তৈরিতে ওয়াসা কর্তৃপক্ষ সক্ষম হলে চট্টগ্রাম ওয়াসার সেবায় গ্রাহক সন্তুষ্ট থাকার পাশাপাশি ওয়াসাকেও সিস্টেম লসের ঘানি টানতে হবে না এমন মত সাধারণ গ্রাহকের।