চট্টগ্রামের ১৫ উপজেলা ভিটামিন ‘এ’ ক্যাপসুল খাবে ৭ লাখ ৮৭ হাজার শিশু

নিজস্ব প্রতিবেদক

15

চট্টগ্রাম জেলায় এ বছর মোট ৭ লাখ ৮৭ হাজার ২৩৩ জন শিশুকে ভিটামিন ‘এ’ ক্যাপসুল খাওয়ানো হবে। এরমধ্যে ৮৮ হাজার ৭১৩ জন শিশুকে একটি করে নীল রঙের ভিটামিন ‘এ’ ক্যাপসুল এবং ৬ লাখ ৯৮ হাজার ৫২০ জন শিশুকে একটি করে লাল রঙের ভিটামিন ‘এ’ ক্যাপসুল খাওয়ানো হবে। গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে সিভিল সার্জন কার্যালয়ে জাতীয় ভিটামিন ‘এ’ প্লাস ক্যাম্পেইন-২০২০ উপলক্ষে সংবাদ সম্মেলনে ডা. সেখ ফজলে রাব্বি এসব তথ্য জানান।
সিভিল সার্জন বলেন, ৪ অক্টোবর সকাল ৮টা থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত স্বাস্থ্যবিধি মেনে ভিটামিন ‘এ’ ক্যাপসুল খাওয়ানো শুরু হবে। চট্টগ্রামের ১৫ উপজেলায় ২০০টি ইউনিয়নের ৬০০টি ওয়ার্ডে, ১৫টি স্থায়ী কেন্দ্র ও ৪ হাজার ৮০০টি অস্থায়ী কেন্দ্রে সর্বমোট ৭ লাখ ৮৭ হাজার ২৩৩ জন শিশুকে একটি করে ভিটামিন ‘এ’ ক্যাপসুল খাওয়ানো হবে। এরমধ্যে ৬-১১ মাস বয়সী ৮৮ হাজার ৭১৩ জন শিশুকে একটি করে নীল রঙের ভিটামিন ‘এ’ ক্যাপসুল এবং ১২-৫৯ মাস বয়সী ৬ লাখ ৯৮ হাজার ৫২০ জন শিশুকে একটি করে লাল রঙের ভিটামিন ‘এ’ ক্যাপসুল খাওয়ানো হবে। চাহিদা অনুযায়ী ইতোমধ্যে ৭ লাখ ২৯ হাজার ৭৭৪টি লাল রঙের ও ৮৯ হাজার ৪০৫টি নীল রঙের ভিটামিন ‘এ’ ক্যাপসুল ১৫ উপজেলায় বিতরণ করা হয়েছে।
তিনি আরও বলেন, ক্যাম্পেইন সফল করার লক্ষ্যে জেলার ১৫ উপজেলায় পর্যবেক্ষণ করতে ১০ জন কর্মকর্তাকে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। ক্যাম্পেইন চলাকালীন সময়ে জরুরী পরিস্থিতিতে মাঠ পর্যায়ে কাজ করবে ৫ সদস্যের মনিটরিং টিম।
কোনো শিশু যাতে বাদ না পড়ে এ জন্য জেলার ১৫টি উপজেলায় মাইকিং, মসজিদ, হাটবাজার, বাস স্ট্যান্ড, নৌ-ঘাটসহ গুরুত্বপূর্ণ স্থানেও প্রচার-প্রচারণা অব্যাহত রাখা হয়েছে বলেও জানান সিভিল সার্জন।
জেলার পাশাপাশি একই সময়ে চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের (চসিক) ব্যবস্থাপনায় নগরীর ৫ লাখ ৩৩ হাজারের বেশি শিশুকে ভিটামিন ‘এ’ ক্যাপসুল খাওয়ানো হবে। এর মধ্যে ৬-১১ মাসের ৮১ হাজার ৫০০ শিশুকে নীল রঙের, ১২-৫৯ মাসের ৪ লাখ ৫২ হাজার শিশুকে লাল রঙের ক্যাপসুল খাওয়ানোর লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে। গত বুধবার দুপুরে সদরঘাটের চসিক জেনারেল হাসপাতালের সম্মেলন কক্ষে সংবাদ সম্মেলন করে এসব তথ্য জানান চসিকের প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. সেলিম আকতার চৌধুরী।