চকরিয়ায় মাতামুহুরীতে গোসল করতে নেমে দুই ভাইসহ ৫ স্কুলছাত্র নিহত

ইকবাল ফারুক, চকরিয়া

37

মাতামুহুরী নদীতে গোসল করতে নেমে চকরিয়া গ্রামার স্কুলের ৫ ছাত্রের মৃত্যু হয়েছে। গতকাল শনিবার বিকাল সাড়ে ৩ টার দিকে নদীর ব্রিজ পয়েন্টে এ দুর্ঘটনা ঘটে।জানা গেছে, নদীতে গোসল করতে নেমে চকরিয়া গ্রামার স্কুলের ৬ ছাত্র নিখোঁজ হন। পরে জেলেরা নদীতে জাল ফেলে তাদের সন্ধান করেন। এছাড়া রাত সাড়ে ১১ টার মধ্যে এলাকার লোকজন ও ফায়ার সার্ভিস সদস্যরা ৫ জনের মরদেহ উদ্ধার করেন।তারা হলো চকরিয়া আনোয়ার শপিংয়ের মালিক আনোয়ার হোসেনের ছেলে ও দশম শ্রেণির ছাত্র আমিনুল হোসেন এমশাদ (১৫), তার ভাই একই স্কুলের অষ্টম শ্রেণির ছাত্র আফতাব হোসেন মেহরাব (১৩), কাকারা ইউনিয়নের শওকত আলীর ছেলে দশম শ্রেণির ছাত্র ফারহান বিন শওকত (১৫), স্কুলের প্রধান শিক্ষক রফিকুল ইসলামের পুত্র ও দশম শ্রেণির ছাত্র সাঈদ জাওয়াদ অর্বি এবং সহকারী শিক্ষিকা জলি ভট্টাচার্যের ছেলে তূর্ণ ভট্টাচার্য। এ সময় মারুফুল ইসলাম জামিকে জীবিত উদ্ধার করা হয়।এদিকে ছাত্র নিখোঁজের খবর পেয়ে হাজার হাজার লোক মাতামুহুরী নদীর চরে জড়ো হন। তখন ছাত্রদের অভিবাবকরা কান্নায় ভেঙে পড়েন।চকরিয়া গ্রামার স্কুলের শিক্ষক জাহেদুল ইসলাম বলেন, গতকাল শনিবার স্কুলের অর্ধ-বার্ষিকী পরীক্ষা শেষ হয়। উচ্চতর গণিত পরীক্ষা শেষে আমাদের স্কুলের বিজ্ঞান বিভাগের ২২ জন ও অষ্টম শ্রেণির এক ছাত্র মাতামুহুরী ব্রিজ সংলগ্ন নদীর চরে ফুটবল খেলতে যায়। তারা দুই ভাগে বিভক্ত হয়ে ২টা থেকে ৩টা পর্যন্ত ফুটবল খেলে। খেলা শেষে পাশের একটি বাড়ি থেকে তারা পানি পান করে নদীতে গোসল করতে নামে। সাতজন চরের মধ্যে অবস্থান করলেও নদীর একপাশ দিয়ে দশজন ও অন্যপাশ দিয়ে ছয়জন নদীতে নামে। নদীতে নামা ৬ জন মাঝ নদীতে গোসল করতে নামামাত্রই চোরাবালিতে আটকে পড়ে ডুবে যায়।তিনি বলেন, এ সময় মারুফুল ইসলাম জামি ডুবে যেতে থাকলে নদীতে থাকা একটি ডিঙ্গি নৌকার লোকজন থাকে জীবিত উদ্ধার করে প্রাইভেট হাসপাতালে নিয়ে যায়। এরপর স্থানীয় লোকজন ও দমকল বাহিনীর সদস্যরা রাত সাড়ে ১১টার মধ্যে ৫ জনের লাশ উদ্ধার করে।এদিকে ঘটনার পরপরই ঘটনাস্থলের ছুটে যান চকরিয়া উপজেলা সরকারীকমিশনার (ভ‚মি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট খোন্দকার মো. ইখতিয়ার উদ্দিন আরাফাত। তার নেতৃত্বেই উদ্ধার অভিযান চলে।এ সময় তিনি বলেন, স্থানীয় ফায়ার সার্ভিস ও এলাকার লোকজন একজনকে জীবিত ও ৫ জনের মরদেহ উদ্ধার করেছে।চকরিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) নুরুদ্দীন মুহাম্মদ শিবলী নোমান বলেন, স্থানীয়দের সহায়তায় ফায়ার সার্ভিস কর্মীরা নিখোঁজ ছাত্রদের উদ্ধারে অভিযান চালায়। রাত সাড়ে ১১টার মধ্যে ৫ জনের মরদেহ উদ্ধার করা হয়।
নদীতে ছাত্র নিখোঁজের খবর পেয়ে মাতামুহুরীরর চরে ছুটে আসা চকরিয়া উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান জাফর আলম এমএ বলেন, চকরিয়ায় অতীতে এমন মর্মান্তিক ঘটনা ঘটেনি।