সংগঠক খোকন দত্তের শোকসভায় হাসনী

গুণীজনরা আমাদের সমাজ বিনির্মাণের বাতিঘর

14

চসিক প্যানেল মেয়র চৌধুরী হাসান মাহমুদ হাসনী বলেছেন, গুণীজনরা সমাজে তাদের কর্মে বেঁচে থাকেন। সমাজ তাদের আলোয় আলোকিত হয়। সমাজ বিনির্মাণে গুণীজনরা হলেন বাতিঘর। সে রকম এক মহানুভব ব্যক্তি ছিলেন প্রয়াত খোকন দত্ত। তিনি ছিলেন একাধারে সমাজসেবক ও সংগঠক। খোকন দত্তের মতো মানুষগুলোর মৃত্যু নেই। গতকাল ২৮ জুন সন্ধ্যায় বিশিষ্ট সংগঠক ও সমাজসেবক খোকন দত্তের শোকসভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।
নগরীর সিরাজউদ্দৌলা রোডের সাবএরিয়াস্থ এসি আর্কেড মিলনায়তনে আয়োজিত শোকসভায় প্রধান বক্তা ছিলেন অদুল-অনিতা ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান দানবীর অদুল চৌধুরী। কাঞ্চন সেনগুপ্তের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন চসিক কাউন্সিলর শৈবাল দাশ সুমন, প্রয়াতের কন্যা অনিতা চৌধুরী, পুত্র উত্তম দত্ত, উজ্জ্বল দত্ত, সাবেক কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সদস্য দেবাশীষ আচার্য্য। তাপস কুমার ঘোষের সঞ্চালনায় বক্তব্য রাখেন বিসিডিএস চট্টগ্রামের সচিব নারায়ণ দাশ, অবসরপ্রাপ্ত জেলা ত্রাণ ও পুনর্বাসন কর্মকর্তা বিশ্বনাথ মজুমদার, ব্যবসায়ী পংকজ দাশ, আশীষ মুহুরী প্রমুখ। শুরুতে পবিত্র গীতাপাঠ করেন বাবুল ধর। সভায় প্রয়াত খোকন দত্তের আত্মার সদ্গতি কামনায় এক মিনিট দাঁড়িয়ে নিরবতা পালন করা হয়। বিজ্ঞপ্তি