গান লেখেননি, অথচ মোদীর বায়োপিকে ক্রেডিট!

11

তৈরি হচ্ছে নরেন্দ্র মোদীর বায়োপিক। ছবির নাম ‘পি এম নরেন্দ্র মোদী’। পরিচালক ওমঙ্গ কুমার। সেখানে প্রধানমন্ত্রীর চরিত্রে অভিনয় করছেন বিবেক ওবেরয়। ছবিটির প্রযোজনা করছেন বিবেকের বাবা সুরেশ ওবেরয়। এ ছবি বলিউডে বিবেকের কামব্যাক ফিল্ম বলে মনে করছেন অনেকে। লোকসভা ভোটের ঠিক আগে এই ছবি নিয়ে এমনিতেই বিতর্ক ছিল। এ বার সেই তালিকায় যোগ হল নতুন বিতর্ক। ছবির ট্রেলারে নিজেদের নাম থাকা নিয়ে তীব্র প্রতিবাদ জানালেন জাভেদ আখতার এবং গীতিকার সমীর অঞ্জন।
গত বুধবার মুক্তি পেয়েছে এ ছবির ট্রেলার। সেখানে লেখা রয়েছে গান লিখেছেন, জাভেদ আখতার। কিন্তু এই তথ্য অস্বীকার করেছেন জাভেদ স্বয়ং। জাভেদ টুইট করে জানিয়েছেন, তিনি স্তম্ভিত। ওই ছবির কোনও গান তিনি লেখেননি। তাও পোস্টারে তাঁর নাম ব্যবহার করা হয়েছে। সেখানে সেন্সর কর্তা প্রসূন জোশীর সইও রয়েছে। গোটা ঘটনায় তিনি হতবাক।
জাভেদের টুইট নিয়ে প্রবল আলোচনা শুরু হয়েছে সোশ্যাল ওয়ালে। নিন্দায় সরব হয়েছেন বলি মহলের একটা বড় অংশ। একদল ওই ছবির নির্মাতাদের বিরুদ্ধে জাভেদকে মানহানির মামলা করার পরামর্শ দিয়েছেন। যদিও এখনও পর্যন্ত কোনও আইনি পদক্ষেপ নেবেন কিনা, তা জানাননি জাভেদ।
একই অভিযোগ করেছেন গীতিকার সমীরও। তিনি টুইট করেছেন, ‘আমার নাম ‘পি এম নরেন্দ্র মোদী’ ফিল্মের ট্রেলারে দেখে অবাক হলাম। এমন কোনও ছবির জন্য কোনও গান লিখিনি আমি।’
এই ঘটনার পর ‘পি এম নরেন্দ্র মোদী’-র সঙ্গে তরফে প্রযোজক সন্দীপ সিংহ টুইট করেছেন, ‘আমরা ‘১৯৪৭: আর্থ’ ছবি থেকে ‘ঈশ্বর আল্লা’ এবং ‘দশ’ ছবি থেকে ‘শুনো গউর সে দুনিয়াওয়ালো’ গান দুটো আমাদের ছবিতে ব্যবহার করেছি। সে কারণেই ওই দুটো গানের গীতিকার জাভেদ সাব এবং সমীরজিকে ক্রেডিট দিয়েছি।’
সম্ভবত ২০১৯-এর সাধারণ নির্বাচনের আগেই মুক্তি পাবে এই ছবি। এই ছবির বেশির ভাগ অংশের শুটিং হয়েছে গুজরাত, হিমাচল প্রদেশ এবং দিল্লিতে। প্রথমে অভিনেতা-সাংসদ পরেশ রাওয়ালের এই ছবির নাম ভ‚মিকায় অভিনয়ের কথা থাকলেও পরে সরে যান তিনি। তাঁর জায়গায় আসেন বিবেক।