প্রতিবাদ সমাবেশে সুফিয়ান খালেদা জিয়াকে মুক্ত করেই আগামী নির্বাচনে যাব

খালেদা জিয়াকে মুক্ত করেই আগামী নির্বাচনে যাব

নিজস্ব প্রতিবেদক

35

বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে গতকাল শনিবার ঢাকায় বিএনপির কালো পতাকা মিছিলে পুলিশের হামলার প্রতিবাদে তাৎক্ষণিক সমাবেশ করেছে নগর বিএনপি। বিকেলে কাজীর দেউড়িস্থ দলীয় কার্যালয়ে সংগঠনের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি আবু সুফিয়ানের সভাপতিত্বে এ প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।
সমাবেশে আবু সুফিয়ান বলেন, দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার কারামুক্তির দাবিতে শান্তিপূর্ণ কালো পতাকা প্রদর্শন কর্মসূচিতে পুলিশের বর্বর হামলা, লাঠিচার্জ ও গরম পানি নিক্ষেপ এবং গ্রেপ্তারের মাধ্যমে সরকার প্রমাণ করেছে তারা বিএনপির শান্তিপূর্ণ আন্দোলনেও ভয় পায়। নয়া পল্টনে বিএনপি মহাসচিবসহ নেতাকর্মীদের লাঠিচার্জ, জলকামানের রঙিন পানি নিক্ষেপে আক্রান্ত বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব মোয়াজ্জেম হোসেন আলালসহ প্রায় ৫০ জন নেতা কর্মীকে গ্রেপ্তার করেছে। তিনি বলেন, সরকারের বর্বরতা, স্বেচ্ছাচারিতা, স্বৈরাচারী আচরণ, গুম-খুন, মামলা-হামলা, লুট, নৈরাজ্য অতীতের স্বৈরাচারী শাসকদের হার মানিয়েছে। সরকার বিরোধী পক্ষকে ঘায়েল করতে মরিয়া হয়ে উঠেছে। তাই রাজনৈতিক দলগুলোর সভা-সমাবেশ করার গণতান্ত্রিক অধিকার হরণ করছে। বিএনপিসহ বিরোধী দলের সভা-সমাবেশের কর্মসূচি দিলেই সরকার ভীত হয়ে পড়ে। তাই পতনের আগে সরকার বিরোধী দলের উপর মরণ কামড় দিচ্ছে। শেষ চেষ্টা করছে নিজেদের অবৈধ ক্ষমতা ধরে রাখতে। এদেশের জনগণ খালেদা জিয়াকে মুক্ত করেই আগামী নির্বাচনে যাবে ইনশাআল্লাহ।
তিনি চট্টগ্রাম মহানগর বিএনপির সভাপতি ডা. শাহাদাত হোসেনসহ গ্রেপ্তারকৃত নেতাকর্মীদের নিঃশর্ত মুক্তি এবং মহানগর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আবুল হাসেম বক্করসহ বিভিন্ন থানায় নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে দায়ের করা মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারের জোর দাবি জানান। এ সময় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন নগর বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম সম্পাদক এস এম সাইফুল আলম, যুগ্ম সম্পাদক ইয়াছিন চৌধুরী লিটন, আনোয়ার হোসেন লিপু, সাংগঠনিক সম্পাদক কামরুল ইসলাম, কোতোয়ালী থানা বিএনপির সভাপতি মনজুর রহমান চৌধুরী, ডবলমুরিং থানা সভাপতি সাবেক কাউন্সিলর মো. সেকান্দর মিয়া, নগর বিএনপির সহ সাংগঠনিক সম্পাদক আবদুল হালিম স্বপন, সহ দপ্তর সম্পাদক মো. ইদ্রিস আলী প্রমুখ।