কক্সবাজার-টেকনাফ সড়ক

খানাখন্দে বাঁশবোঝাই ট্রাক উল্টে দীর্ঘ যানজট

উখিয়া প্রতিনিধি

10

বৃষ্টিতে কক্সবাজার-টেকনাফ সড়কের বেহাল অবস্থা। সড়কের বিভিন্ন স্থানে গর্ত, খানা-খন্দকে দুর্ঘটনা ঘটছে প্রতিনিয়ত। গতকাল শনিবার সকালে উখিয়া পল্লীবিদ্যুৎ অফিসের সামনে বাঁশবোঝাই একটি ট্রাক গর্তে পড়ে উল্টে গিয়ে যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। এ সময় সড়কে দীর্ঘ যানজট লেগে স্থানীয় এবং দূরপাল্লার যাত্রীদের মাঝে দুর্ভোগ সৃষ্টি হতে দেখা গেছে।
জানা গেছে, গত ২০১৭ সালের ২৫ আগস্টের পর দেশি-বিদেশি বিভিন্ন এনজিও, আইএনজিও সংস্থা রোহিঙ্গাদের মানবিক সেবার নামে কক্সবাজারসহ উখিয়া-টেকনাফে অবস্থান নেয়। এসব সংস্থাগুলোর অন্তত ৫ হাজারের অধিক গাড়ি কক্সবাজার-টেকনাফ (শহীদ এটিএম জাফর আলম) আরকান সড়কে প্রতিনিয়ত চলাচল করে। এছাড়াও ক্যাম্পে বিভিন্ন উন্নয়নমূলক কর্মকান্ড পরিচালনার জন্য ঠিকাদারী সংস্থাগুলো ভারি যানবাহন দিয়ে মালামাল পরিবহনের কারণে সড়কের ভারসাম্য নষ্ট হয়ে কার্পেটিংসহ সড়ক লন্ড ভন্ড হয়ে যায়।
পরিকল্পিত উখিয়া চাই’র আহবায়ক সাংবাদিক নুর মোহাম্মদ সিকদার বলেন, সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের অবহেলা, কাজের ধীরগতি, অপরিকল্পিত সড়ক সংস্কারের কারণে কক্সবাজার-টেকনাফ আরকান সড়কের ৭৯ কিলোমিটার জুড়ে এই করুণ অবস্থা সৃষ্টি হয়েছে। তিনি এসময় বলেন, সড়কের প্রশস্থকরণের জন্য পুরো সড়কের দু’পাশ খুঁড়ে ফেলে রাখে। বৃষ্টিতে দু’পাশে গর্ত সৃষ্টি হয়ে দুর্ঘটনা বেড়েছে। বিশেষ করে উখিয়া পল্লীবিদ্যুত অফিসের সামনে সড়কের মাঝে গর্ত দুইটি দুই মাস আগে থেকে সৃষ্টি হয়েছে, কিন্তু সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ নজর না দেয়ার কারণে গর্তগুলো দিন দিন বড় আকার ধারণ করে আজকে এই পরিণতি। তিনি এ দুর্ঘটনার জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের অবহেলাকে দায়ী করছেন।
দীর্ঘ যানজটে পড়ে দুর্ভোগের শিকার স্পেশাল সার্ভিসের যাত্রী আমির হোছেন জানান, দীর্ঘ ১ ঘণ্টা যাবৎ সে গাড়িতে বসে আছেন। সড়কে অতিরিক্ত যানবাহন, দুর্ঘটনার কারণে এ যানজট লেগেছে। দ্রুত রাস্তা থেকে দুর্ঘটনা কবলিত গাড়িগুলো সরানো না হলে পথচারী থেকে শুরু করে স্কুল-কলেজগামী শিক্ষার্থী, চাকরিজীবীরা চরম দুর্ভোগে পড়বে।
সড়ক যানজটমুক্ত রাখার কাজে দায়িত্বরত উখিয়া থানার এসআই জহির জানান, রাস্তায় বড় ধরনের গর্ত তৈরি হওয়ায় বৃষ্টির পানিতে গর্ত ভরে যায়, যার কারণে ভোরে বাঁশবোঝাই ট্রাক গর্তে পড়ে উল্টে যায়। পাশাপাশি আরেকটি গাছবোঝাই ট্রাক আটকে গিয়ে সড়কে দীর্ঘ যানজট সৃষ্টি হয়েছে। তবে বর্তমানে সড়কে চলাচল স্বাভাবিক রয়েছে।
উখিয়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ভারপ্রাপ্ত) ফখরুল ইসলাম বলেন, বৃষ্টির কারণে সড়কে গাড়ি চলাচলে একটু ব্যাঘাত ঘটেছে। এখন কিন্তু গাড়ি চলাচল স্বাভাবিক রয়েছে বলে তিনি জানান।