খলিফা মোস্তফা কামাল মাইজভাণ্ডারীর দাফন

38

মাইজভাণ্ডার দরবার শরীফের সাজ্জাদানশীন হযরত শাহ্সূফী সৈয়দ সাইফুদ্দীন আহমদ আল্-হাসানীর (মাজিআ) খেলাফতপ্রাপ্ত খলিফা ও বরুড়া সুন্নিয়া কামিল মাদ্রাসার প্রতিষ্ঠাতা ও সাবেক শিক্ষক মরহুম কারী মোহাম্মদ আবদুল গফুর সাহেবের ছেলে মোস্তফা কামাল মাইজভাণ্ডারী ৬ ডিসেম্বর সকাল ৭টায় হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে ইন্তেকাল করেন (ইন্নালিল্লাহি…রাজিউন)। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৫৫ বছর। তিনি ১ কন্যা ও ৫ ছেলে, ২ স্ত্রী রেখে যান। তার নামাজে জানাযায় ইমামতি করেন হযরত শাহ্সূফী সৈয়দ সাইফুদ্দীন আহমদ আল্-হাসানী আল্-মাইজভাণ্ডারী (মাজিআ)। জানাজায় উপস্থিত ছিলেন স্থানীয় এমপি নাসিমুল আলম চৌধুরী নজরুল, আন্জুমান সাধারণ সম্পাদক খলিফা আলমগীর খান মাইজভাণ্ডারী, চান্দিনা পৌরসভার সাবেক মেয়র খলিফা আলমগীর খান, খলিফা সিরাজুল ইসলাম কবিরাজ, খলিফা সাব্বির আহমদ, খলিফা আক্তারুজ্জামান ভূঁইয়া, খলিফা পবন খান, খলিফা ও খাদেম সেলিম আহমদ, খলিফা মো. সালাহ উদ্দিন সেলিম, খলিফা অ্যাডভোকেট বেলায়েত হোসেন বিল্লাল, খলিফা মো. আনোয়ার সাদাত জিয়াদ, খলিফা আবুল কালাম আজাদ, খলিফা মাওলানা মো. শাহজাহান সিদ্দিকী, বরুড়া আলিয়া মাদ্রাসার অধ্যক্ষ হযরত মাওলানা আলি আকবর ফারুকী, উপাধ্যক্ষ হযরত মাওলানা মিজানুর রহমান জাফরীসহ আন্জুমানে রহমানিয়া মইনীয়া মাইজভাণ্ডারীয়া ও মইনীয়া যুব ফোরামের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতৃবৃন্দ। শুক্রবার বাদ আছর জানাযা শেষে তাকে বরুড়া আলিয়া মাদ্রাসার পাশে দাফন করা হয়। তার ইন্তেকালে গভীর শোক প্রকাশ করেন শাহ্সূফী সৈয়দ সাইফুদ্দীন আহমদ আল্-হাসানী (মাজিআ)। শোক জানিয়েছেন আন্জুমান সাধারণ সম্পাদক খলিফা আলমগীর খান মাইজভাণ্ডারী, এডভোকেট কাজী মহসীন চৌধুরী, খাদেম মহসীন মোহন, মাওলানা রুহুল আমিন ভূঁইয়া চাঁদপুরী, শাহ্ মোহাম্মদ ইব্রাহিম মিয়া মাইজভাণ্ডারীসহ আন্জুমান ও মইনীয়া যুব ফোরামের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতৃবৃন্দ। বিজ্ঞপ্তি