কয়েক সেকেন্ডেই তালা ভেঙে চুরি

11

পেশা তার চুরি; একটি তালা ভাঙতে সময় লাগে কয়েক সেকেন্ড। সব মিলিয়ে চুরি করে সটকে পড়তে লাগে সর্বোচ্চ ১৫ মিনিট। পুরনো কাপড় কেনার আড়ালে গত পাঁচ বছর ধরে শতাধিক চুরির ঘটনা ঘটালেও ধরা পড়েননি কখনও। জাহাঙ্গীর আলম (৪০) নামের ‘দক্ষ’ সেই চোর অবশেষে পুলিশের জালে আটকা পড়েছেন।
নগরীর স্টেশন রোড এলাকা থেকে মঙ্গলবার রাতে কোতোয়ালী পুলিশ জাহাঙ্গীরকে গ্রেপ্তার এবং শতাধিক মোবাইল ফোন, জুতা, কাপড়সহ বিভিন্ন চুরি করা মালামাল উদ্ধার করে।
কোতোয়ালী থানার ওসি মোহাম্মদ মহসিন বলেন, পুরনো কাপড় কেনার কৌশল করে মাথায় একটি টুকরি নিয়ে জাহাঙ্গীর বিভিন্ন ভবনে উঠে পড়ে। সেখানে কয়েকবার উঠানামা করে টার্গেট করে নেয় তালা ঝোলানো বাসার। সেই বাসার সামনে গিয়ে ডাক দেয় কাপড় কেনার জন্য।
সাড়া না পেলেই তালা ভেঙে ঢুকে পড়ে বাসায়। মোবাইল, টিভি থেকে শুরু করে জামা কাপড়সহ গৃহস্থালী বিভিন্ন পণ্য চুরি করে সটকে পড়ে। সবমিলিয়ে একটি বাসায় চুরি করতে জাহাঙ্গীর সময় নেয় ১০ থেকে ১৫ মিনিট। খবর বিডিনিউজের
ওসি জানান, চুরির মালামাল জাহাঙ্গীর বিক্রি করেন পুরাতন স্টেশন এলাকার জানে আলম নামের এক ব্যক্তির কাছে।
জাহাঙ্গীরকে গ্রেপ্তারের পর জানে আলমের বাসায় অভিযান চালিয়ে উদ্ধার করা হয় বিভিন্ন ব্র্যান্ডের ১৪৫টি মোবাইল সেট, ১০৬ জোড়া জুতা, জামা কাপড়সহ বিভিন্ন গৃহস্থালী সামগ্রী। জানে আলম পালিয়ে গেলেও তার স্ত্রী রেহেনা বেগমকে (৪৫) গ্রেপ্তার করা হয়েছে।
কোতোয়ালী থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মো. কামরুজ্জামান বলেন, জাহাঙ্গীরের কাছে ৮-১০ ইঞ্চি লম্বা একটি লোহার পাইপ থাকে। সে পাইপটি দিয়েই মূলত ঘরের তালা, আলমারি ও ওয়ারড্রপ খুলে ফেলে কয়েক সেকেন্ডের মধ্যে।
মূলত চান্দগাঁও ও পাঁচলাইশ এলাকার বিভিন্ন ভবনে সে চুরি করে। সেজন্য সকাল ১০টা থেকে ১২টা ও বিকাল ৪টা থেকে ৬টা এই সময়টিকে বেছে নেয়। বছর পাঁচেক ধরে সে চুরির পেশায় যুক্ত থাকলেও কখনও গ্রেপ্তার হয়নি।
পুলিশ কর্মকর্তা কামরুজ্জামান জানান, জানে আলম পুরাতন স্টেশন এলাকায় পুরানো জিনিসের আড়ালে চোরাই মালামাল বিক্রি করে। জাহাঙ্গীর বিভিন্ন বাসা থেকে চুরি করে সেগুলো জানে আলমের বাসায় নিয়ে যায়।
জাহাঙ্গীর ও রেহেনার বিরুদ্ধে কোতোয়ালী থানায় মামলা হয়েছে বলে জানান পুলিশ কর্মকর্তা কামরুজ্জামান।