কয়েক দিনে ডিজিটাল মুদ্রা বিটকয়েনের মূল্যে পতন

নিজস্ব সংবাদদাতা

29

ডিজিটাল মুদ্রা বিটকয়েনের মূল্য এক সপ্তাহেরও কম সময়ের মধ্যে এক তৃতীয়াংশ কমে গেছে। শুক্রবার এই মুদ্রাটির দাম ছিলো ১১,০০০ ডলারের সামান্য কম। কিন্তু গত সপ্তাহের শুরুতে এর মূল্য ছিলো ২০,০০০ এর কাছাকাছি। গত সোমবার বিটকয়েনের মূল্য রেকর্ড পর্যায়ে পৌঁছায়। তারপর থেকে এই মুদ্রাটির দাম ৪০ শতাংশ।
এবছরের শুরুর দিকে এই মুদ্রাটির দাম ছিলো এক হাজার ডলারের মতো। তারপর থেকে এর মূল্য হু হু করে বাড়তে থাকে। বিশেষ করে গত নভেম্বর থেকে গত সপ্তাহ পর্যন্ত এর দাম বাড়ছিলো রকেটের গতিতে। বিশ্লেষকরা সমপ্রতি এই মুদ্রায় বিনিয়োগের ব্যাপারে লোকজনকে সতর্ক করে দিচ্ছিলেন। এর মধ্যেই গত কয়েক দিন ধরে এর দাম পড়তে শুরু করেছে। এবং এখনও সেই পতন অব্যাহত রয়েছে। ক্রিপ্টোকারেন্সি সংক্রান্ত ওয়েবসাইট ক্রিপ্টোকমপেয়ারের প্রতিষ্ঠাতা চার্লস হাটার বলেছেন, এরকমের নজিরবিহীন উত্থানের পর এখন কিছুটা কমবে কারণ আবেগের পরিবর্তন ঘটেছে।
তিনি বলেন, চড়া দাম হওয়ার কারণে বাজারে প্রচুর লোকজন বিটকয়েন বিক্রি করে দিয়ে অর্থ তুলে নিচ্ছে। ফলে এখন তার দাম পড়ছে। শুক্রবার বাজার খুব উঠানামা করেছে। এই পরিস্থিতিতে সারা বিশ্বেই অর্থনৈতিক নিয়ন্ত্রক প্রতিষ্ঠানগুলো বিটকয়েনের পেছনে বিনিয়োগের ব্যাপারে হুঁশিয়ার করে দিয়েছে। এই মুদ্রাটির উৎস সম্পর্কে খুব কমই বোঝা যায় এবং ব্যবহারও খুব সীমিত। ডেনমার্কের কেন্দ্রীয় ব্যাঙ্ক এই বিটকয়েনকে ভয়াবহ এক জুয়া বলেও সবাইকে সতর্ক করে দিয়েছে। গত সপ্তাহে যুক্তরাজ্যের অর্থনৈতিক নিয়ন্ত্রক প্রতিষ্ঠানের প্রধানও বিনিয়োগকারীদের সতর্ক করে দিয়ে বলেছিলেন সব অর্থ হারানোর জন্যে প্রস্তুত থাকতে। এন্ড্রু বেইলি বলেন, কোনো দেশের কেন্দ্রীয় ব্যাংক কিংবা কোন সরকারই এই মুদ্রাকে সমর্থন করছে না। ফলে এই বিটকয়েনের পেছনে বিনিয়োগ মোটেই নিরাপদ নয়।