ক্ষোভে অভিযোগ তুলে নিচ্ছেন কেট

2

ক্ষুব্ধ অভিনেত্রী কেট শর্মা। বলিউডের নামকরা পরিচালক সুভাষ ঘাইয়ের বিরুদ্ধে গত ২৬ অক্টোবর মুম্বাইয়ের ভারসোভা থানায় গিয়ে তিনি ধর্ষণের অভিযোগ করেছিলেন। তিন পাতার সেই লিখিত অভিযোগে অভিনেত্রী জানিয়েছিলেন, পানীয়র সঙ্গে ঘুমের ওষুধ মিশিয়ে খাইয়ে অচেতন করে পরিচালক সুভাষ ঘাই তাকে ধর্ষণ করেছিলেন।
কিন্তু স¤প্রতি ভারতের মিড ডে পত্রিকাকে দেয়া সাক্ষাৎকারে কেট জানিয়েছেন, সুভাষ ঘাইয়ের বিরুদ্ধে করা অভিযোগ তিনি তুলে নিতে চান। ইতিমধ্যে তিনি বিষয়টি নাকি মুম্বাই পুলিশকে জানিয়েছেন। কিন্তু হঠাৎ কেন এমন সিদ্ধান্ত নিলেন অভিনেত্রী? যেখানে ধর্ষণের দায়ে ইতোমধ্যে অভিনেতা অলোক নাথকে বহিষ্কার করেছে সিনে অ্যান্ড টেলিভিশন আর্টিস্ট অ্যাসোসিয়েশন।
ক্ষোভ প্রকাশ করে এ সম্পর্কে কেট জানিয়েছেন, ‘হ্যাশট্যাগ মি টু’ আন্দোলনকে মানুষ এখন মজায় পরিণত করেছে। অভিযুক্ত কাউকে গ্রেপ্তার করা হচ্ছে না। পুলিশ শুধু মামলা নিতে ব্যস্ত। কাউকে যদি গ্রেপ্তার করা না হয়, তাহলে এই আন্দোলনের মানে কী? এই সবকিছুতে আমি বিরক্ত। তাই অভিযোগ তুলে নেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছি।’
অভিনেত্রী আরও বলেন, ‘সুভাষ ঘাই আমার সঙ্গে যা করেছেন তা আমি আগেও সবার সামনে বলেছি, প্রয়োজনে আবার বলব। কিন্তু গত এক মাস ধরে সবকিছু দেখে মনে হয়েছে, এসব অভিযোগ নিয়ে দৌড়াদৌড়ি করার চেয়ে নিজের পরিবার এবং অসুস্থ মায়ের দেখাশোনা করাই বেশি গুরুত্বপূর্ণ। তবে আমার সঙ্গে যা ঘটেছে, তার বিচার একদিন অবশ্যই পাব।’
এদিকে নিজের বিরুদ্ধে ওঠা অভিযোগ সে সময় অস্বীকার করেছিলেন পরিচালক সুভাষ ঘাই। তিনি বলেছিলেন, ‘মানি লোকদের সম্মানহানি করতে এসব অভিযোগ উদ্দেশ্যমূলক। মেয়েটির অভিযোগ যদি সত্যি হয় তবে সে আদালতে গিয়ে প্রমাণ করুক।’ অভিনেত্রী কেট শর্মার অভিযোগের বিপক্ষে তার বিরুদ্ধে মানহানি মামলা করার হুমকিও দিয়েছেন ঘাই।