ক্যারিবিয়ান পেসে কাঁদছে ইংল্যান্ড

11

কদিন আগে ব্রায়ান লারা বলেছিলেন, জিততে হলে ম্যাচের শুরু থেকেই ইংল্যান্ডের ওপর ঝাঁপিয়ে পড়তে হবে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে। সাউদম্পটনের রোজ বোলে কিংবদন্তি লারার কথামতোই এগুচ্ছেন ক্যারিবিয়ানরা। সাউদাম্পটন টেস্টে দলীয় একশ হওয়ার আগেই ইংল্যান্ডের ৫ উইকেট তুলে নিয়েছেন ওয়েস্ট ইন্ডিজের পেসাররা। দ্বিতীয় দিনে এই রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত ইংল্যান্ড ২০৪/১০ তুলতেই সবকটি উইকেট হারিয়েছে। ইংল্যান্ড-ওয়েস্ট ইন্ডিজের মধ্যকার সাউদাম্পটন টেস্টে নজর পুরো বিশ্বের। করোনাভাইরাস কালে প্রথম আন্তর্জাতিক ম্যাচ এটি। তাছাড়া ক্রিকেটের আদি বেশ কয়েকটি নিয়মের পরিবর্তনের সূচনাও হচ্ছে এই ম্যাচে। কিন্তু আগ্রহে কাল জল ঢেলে দিয়েছিল সাউদাম্পটনের আকাশ। বৃষ্টির কারণে প্রথম দিনে খেলা হয়েছে মাত্র ১৭.৪ ওভার।
আবহাওয়া অধিদপ্তর বলছিল আজ টেস্টের দ্বিতীয় দিনেও ভোগাতে পারে বৃষ্টি। দিনের শুরুতে অবশ্য বৃষ্টি সম্ভাবনা সত্যি হয়নি। নির্ধারিত সময়েই দিনের খেলা শুরু হয়েছে। তবে আকাশের কান্না থামলেও ক্যারিবিয়ান পেসে তোপে ঠিকই কাঁদতে হচ্ছে স্বাগতিক ইংল্যান্ডকে। প্রথমে ইংল্যান্ড সিরিজের দলে সুযোগ মিলেনি ক্যারিবিয়ান পেসার শ্যানেন গ্যাব্রিয়েল। প্রস্তুতি ম্যাচে নজর কেড়ে দলে ঢুকেছেন। সুযোগ না পাওয়া গ্যাব্রিয়েলেই কাঁপছে ইংল্যান্ড। টেস্টের প্রথম দিনে পতন হওয়া একমাত্র উইকেটটি তুলে নিয়েছিলেন ক্যারিবিয়ান পেসার। গতকাল দ্বিতীয় দিনে তুলে নিয়েছেন আরও ৩জন ইংলিশ ব্যাটসম্যানকে। ছয় উইকেট নিয়েছেন জেসন হোল্ডার।