সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন

কাল প্রার্থী ঘোষণা করতে পারে আওয়ামী লীগ

নিজস্ব প্রতিবেদক

95

চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন নির্বাচনকে সামনে রেখে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন ফরম বিক্রি অব্যাহত রয়েছে। আজ শুক্রবার ফরম বিক্রির শেষ দিন। এ পর্যন্ত মেয়র পদে সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীনসহ ১৫ জন ফরম নিয়েছেন। বিএনপি সমর্থিত সাবেক মেয়র এম মনজুর আলমও আওয়ামী লীগের দলীয় ফরম সংগ্রহ করেছেন। ৩৮৮ জন কাউন্সিলর পদে মনোনয়ন ফরম নিয়েছেন। আগামীকাল শনিবার চূড়ান্ত প্রার্থীর নাম ঘোষণা করতে পারে আওয়ামী লীগ। এদিন সংসদীয় ও স্থানীয় সরকার মনোনয়ন বোর্ডের বৈঠক আহব্বান করা হয়েছে। পরদিন ১৬ ফেব্রূয়ারি নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করার কথা রয়েছে।
জানা যায়, মার্চের শেষ সপ্তাহে নির্বাচন হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। বিষয়টি মাথায় রেখে গত ১০ ফেব্রূয়ারি থেকে মেয়র ও কাউন্সিলর পদে মনোনয়ন ফরম বিক্রি শুরু করে আওয়ামী লীগ। ঢাকায় দলীয় কার্যালয়ে ফরম বিক্রি করা হচ্ছে।
দলীয় সূত্রে জানা গেছে, গত চার দিনে মেয়র পদে ১৪ জন মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ করেছেন। গতকাল ফরম সংগ্রহ করেছেন সাবেক মেয়র এম মনজুর আলম। তিনি ২০১০ সালের বিএনপি সমর্থিত প্রার্থী হিসেবে মেয়র নির্বাচিত হয়েছিলেন।
তিনি ছাড়া আরও যারা মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ করেছেন তাদের মধ্যে রয়েছেন, বর্তমান মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন, সাবেক মন্ত্রী নুরুল ইসলাম বিএসসি ও তাঁর পুত্র মুজিবুর রহমান, সিডিএ’র সাবেক চেয়ারম্যান আবদুচ ছালাম, নগর আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি খোরশেদ আলম সুজন, সহ-সভাপতি রেজাউল করিম চৌধুরী, মরহুম জহুর আহমদ চৌধুরীর পুত্র হেলাল উদ্দিন চৌধুরী তুফান, মাইনুদ্দিন খান বাদলের সহধর্মিনী সেলিনা খান, সাবেক কাউন্সিলর রেখা আলম চৌধুরী, যুবলীগ নেতা আলতাফ হোসেন বাচ্চু, মেজর (অব.) এমদাদুল ইসলাম, এ কে এম বেলায়েত হোসেন, মো. ইনসাফ আলী ও মুক্তিযোদ্ধা ইউনুছ। তাদের কয়েকজন ইতিমধ্যে ফরম জমাও দিয়েছেন। বাকিরা আজ শুক্রবারের মধ্যে জমা দেবেন।
মনোনয়ন প্রত্যাশীরা বর্তমানে ঢাকায় অবস্থান করে আওয়ামী লীগের সমর্থন লাভে নানাভাবে চেষ্টা তদবির করে আসছেন। তাঁরা নীতিনির্ধারকদের সাথে যোগাযোগ করে চলেছেন। কিন্তু কেউউ এখনো পর্যন্ত আশ্বাসস পাননি। কেন্দ্রীয় নেতাদের একটাই কথা, নেত্রী যা বলেন বা করেন তাই-হবে,এতে অন্য কারো কিছু বলার বা করার কিছু নেই’।
এদিকে প্রার্থী চূড়ান্ত করতে কাল শনিবার সংসদীয় বোর্ড ও স্থানীয় সরকার নির্বাচনী মনোনয়ন বোর্ডের যৌথ সভা অনুষ্ঠিত হবে। এতে সভাপতিত্ব করবেন দলীয় প্রধান শেখ হাসিনা। বোর্ডের সভা শেষে প্রার্থীর নাম ঘোষণা করা হতে পারে।
রবিবার নির্বাচন কমিশন নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করার কথা রয়েছে। এদিন প্রধান নির্বাচন কমিশনার কে এম নুরুল হুদা কমিশনের বৈঠক আহŸান করেছেন।
কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের উপ দপ্তর সম্পাদক সায়েম খান জানান আওয়ামী লীগের মনোনয়ন ফরম বিতরণ অব্যাহত রয়েছে। শুক্রবারও বিতরণ করা হবে। তিনি বলেন, এ পর্যন্ত মেয়র পদে ১৫ জন এবং কাউন্সিলর পদে ৩৮৮ জন ফরম নিয়েছেন।
সূত্র জানায়, সাবেক মেয়র এ মনজুর আলম গতকাল বৃহস্পতিবার মেয়র পদে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ করেছেন। এদিন দুপুরে আলমগীর নামের এক ব্যক্তিসহ মোট তিনজন গিয়ে মনজুর আলমের পক্ষে মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ করেন। তবে এ নিয়ে বেশ গোপনীয়তা রক্ষা করা হলেও শেষ পর্যন্ত বিকেলে বিষয়টি ফাঁস হয়ে যায়।
আওয়ামী লীগের উপ দপ্তর সম্পাদক সায়েম খান এম মনজুর আলমের ফরম সংগ্রহ করার বিষয়টি জানান।
বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার উপদেষ্টা হিসেবে দায়িত্ব পালন করা মনজুর আলম দীর্ঘদিন রাজনীতিতে নিষ্ক্রিয় থাকলেও মেয়র পদে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পাওয়ার বিষয়ে অনেকদিন ধরেই তৎপর ছিলেন। তিনি সংবাদ মাধ্যমকে জানিয়েছেন, আওয়ামী লীগ ডাক দিলে ফের ভোটের লড়াইয়ে নামতে ইচ্ছুক। তবে ডাক পেয়েছেন কিনা তা জানা যায়নি।
মনজুর আলমের শুরুটা আওয়ামী লীগের রাজনীতি দিয়ে। টানা ১৬ বছর আওয়ামী লীগের সমর্থন নিয়েই নিজ এলাকা উত্তর কাট্টলী থেকে নির্বাচিত হন কাউন্সিলর। সেনা সমর্থিত তত্ত¡াবধাযক সরকারের সময়ে তিনি ভারপ্রাপ্ত মেয়র হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন। এরপর দলবদল করে ২০১০ সালের ১৭ জুন চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন (চসিক) নির্বাচনে বিএনপির সমর্থন নিয়ে মেয়রও নির্বাচিত হন। পাঁচ বছর দায়িত্ব পালন শেষে বিএনপির সমর্থনে দ্বিতীয়বারের মত মেয়র পদে ভোটযুদ্ধে অবতীর্ণ হন ২০১৫ সালের ২৮ এপ্রিল। তবে ভোটের মাঝপথেই ভোট কারচুপির অভিযোগ তুলে নির্বাচন বর্জনের পাশাপাশি রাজনীতি থেকেও সরে আসার ঘোষণা দেন মনজুর আলম।