কাপ্তাই শিল্পকলা একাডেমির জমজমাট সাংস্কৃতিক সন্ধ্যা

12

সেদিন আকাশে ছিলো মেঘ, ছিলো না বৃষ্টির ঘনঘঁটা, এমনি এক শ্রাবনের পড়ন্ত সন্ধ্যায় কাপ্তাই উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে বসেছিল শিল্পিদের মিলন মেলা। দিনটি ছিল ৩০ জুলাই। ঘঁড়ির কাটা যখন সন্ধ্যা ৬ টায় ছুঁই ছুঁই তখন অনুষ্ঠানের সঞ্চালক নুর মো. বাবু, খোদেজা আক্তার বাবু এবং অমিত বিশ্বাস বাবলু অনুষ্ঠান শুরর ঘোষনা দেন। অনুষ্ঠানের শুরুতে মঞ্চে এসে মাউথ অর্গানে আধুনিক গানের সুর তুলেন শিল্পি থুইক্রাচিং মার্মা। মাউথ অর্গানের সুরে হারিয়ে যায় উপস্থিত স্রোতামহল। এরপর দ্বৈত কন্ঠে হারানো দিনের গান পরিবেশন করেন বেতার শিল্পি বিপুল বড়ুয়া ও রওশন শরীফ তানি। সংগীতা দত্ত এনির পরিচালনায় সাংস্কৃতিক সন্ধ্যায় একক ও দ্বৈত নৃত্য দর্শকরা উপভোগ করে তুমুল করতালিতে। অনুষ্ঠানে মংসুপ্র মার্মা ও তানি এবং বাপ্পা মল্লিক ও জ্যাকলিন তংচংগ্যার কন্ঠে চমৎকার দ্বৈত গান পরিবেশনা অনুষ্ঠানকে প্রানবন্ত করে। বাউল শিল্পি রফিক আশেকী এবং বসুদেব মল্লিকের কন্ঠে বাউল গান পরিবেশনা দর্শকদের অনাবিল আনন্দ প্রদান করেন। এছাড়া বেতার ও টিভি শিল্পি ফারজানা ইসলাম লিপি, মো. রফিক, সবুজ সাহার কন্ঠে পরিবেশিত জনপ্রিয় আধুনিক গান গুলো সাংস্কৃতিক সন্ধ্যাকে আরোও বিকশিত করে। সোহেল চৌধুরী খোকনের কন্ঠে একক আবৃত্তি পরিবেশনা প্রশংসার দাবিদার। অনুষ্ঠানে সংগীত পরিচালনায় ছিলেন শিল্পকলা একাডেমির সাধারণ সম্পাদক ফনিন্দ্র লাল ত্রিপুরা যন্ত্রসংগীত পরিচালনা করেন একাডেমির যুগ্ম সম্পাদক :ঝুলন দত্ত। এছাড়া যন্ত্রসংগীতে সহযোগীতা করেন, অর্ণব , মিনহাজ, অভিজিত, রোকন, কাননজয়, জয়, অপূর্ব,রাতুল এবং মিশু। কাপ্তাই উপজেলা শিল্পকলা একাডেমির আয়োজনে এই সাংস্কৃতিক সন্ধ্যায় গেস্ট অব অনার হিসাবে উপস্থিত ছিলেন রাঙ্গুনিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ কামাল হোসেন। এসময় কাপ্তাই উপজেলা শিল্পকলা একাডেমির সভাপতি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রুহুল আমীন, উপজেলা পরিষদ ভাইস চেয়ারম্যান সুব্রত বিকাশ তংচংগ্যা, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান নুরনাহার বেগম, শিল্পকলা একাডেমির সহ সভাপতি ওয়াগ্গা টি লিমিটেডের পরিচালক খোরশেদুল আলম কাদেরী, কাপ্তাই বিদ্যুৎ সরবরাহ বিভাগের আবাসিক প্রকৌশলী আশফাকুর রহমান মুজিব, রাঙ্গুনিয়া প্রেস ক্লাব এর সাধারণ সম্পাদক জিগারুল ইসলাম জিগার সহ শিল্পকলা একাডেমির সদস্য, সরকারি কর্মকর্তা এবং সংস্কৃতিমনা দর্শক স্রোতা উপস্থিত ছিলেন।-মাসুদ নাসির