ইসলামী ছাত্রসেনার সমাবেশে বক্তারা

কলুষমুক্ত ছাত্ররাজনীতি ছাড়া আদর্শ জাতি গঠন সম্ভব নয়

46

ইসলামী ফ্রন্ট বাংলাদেশের কেন্দ্রীয় মহাসচিব অধ্যক্ষ আল্লামা জয়নুল আবেদীন জুবাইর বলেছেন, ছাত্রসমাজ হচ্ছে দেশ ও জাতির ভবিষ্যত কর্ণধার, চালিকা শক্তি। দেশের জাতীয় রাজনীতিতে ছাত্রসমাজের গৌরবদীপ্ত পদচারণা দৃশ্যমান। জাতীয় অর্জনসমূহে রয়েছে ছাত্রসমাজের আত্মত্যাগের কীর্তিগাঁথা। কিন্তু গৌরব ও অহংকারের প্রতীক সেই ছাত্রসমাজ এখন মহল বিশেষের ক্রীড়ানক। সন্ত্রাস, অস্ত্রবাজী, হলদখল, ক্যাম্পাসে আধিপত্য বিস্তারের অসম প্রতিযোগিতা এখন এদের কাছে মূখ্য বিষয়। টেন্ডারবাজী, চাঁদাবাজী, দখল-বেদখল, ইভটিজিংসহ অপরাধমূলক বিভিন্ন কর্মকাÐের সঙ্গে জড়িয়ে পড়ায় ক্রমাগত ¤øান হয়ে পড়ছে ছাত্ররাজনীতির গৌরবময় অতীত। তাই ছাত্র রাজনীতিকে কলুষমুক্ত করা না গেলে একটি আদর্শ জাতি গঠন সম্ভব নয়। ইসলামী ছাত্রসেনা চট্টগ্রাম জেলার উদ্যোগে সংগঠনের ৩৮তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে গত বুধবার লালদীঘি ময়দানে অনুষ্ঠিত ছাত্রসমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। ইসলামী ছাত্রসেনার চট্টগ্রাম মহানগর সভাপতি কাজী সুলতান আহমদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সমাবেশে উদ্বোধন করেন ইসলামিক ফ্রন্ট কেন্দ্রীয় পরিষদের প্রচার সম্পাদক অধ্যক্ষ আল্লামা হাছান রেজা আলকাদেরী। প্রধান বক্তা ছিলেন ইসলামী ছাত্রসেনার কেন্দ্রীয় সভাপতি এমএম নাঈম উদ্দিন। বিশেষ অতিথি ছিলেন ইসলামিক ফ্রন্ট বাংলাদেশর কেন্দ্রীয় ভাইস চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা অধ্যাপক মমতাজ উদ্দিন চৌধুরী, এড আবু নাসের তালুকদার, পীরে তরিকত আল্লামা নাসেরুল হক চিশতী, অধ্যক্ষ আল্লামা এসএম ফরিদ উদ্দিন, মাওলানা কাজী জসিম উদ্দিন, সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব এম সোলায়মান ফরিদ, অধ্যক্ষ আল্লামা কাজী আনোয়ারুল ইসলাম খান ও স ম হামেদ হোসাইন। সমাবেশ প্রস্তুতি কমিটির সচিব ছাত্রনেতা ইমদাদুল ইসলামের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত সমাবেশে অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন অধ্যাপক সৈয়দ হাফেজ আহম্মদ, অধ্যক্ষ মাওলানা নুরুল আমিন, এসএম আবদুল করিম তারেক, স ম শহীদুল হক ফারুকী, এম মহিউল আলম চৌধুরী, মাওলানা জয়নুল আবেদীন জিহাদী, মাওলানা ওয়াহেদ মুরাদ, স ম শওকত আজিজ, মঈন উদ্দিন চৌধুরী হালিম, এম আহমদ রেজা, খ ম জামাল উদ্দিন, এনামুল হক এনাম, কামরুল হাসান শাকিল, মিজবাহ উদ্দিন প্রমুখ। সমাবেশে প্রধান বক্তা এম এম নাঈম উদ্দিন বলেন, শিক্ষা ক্ষেত্রে বাণিজ্যিকীকরণ ক্রমাগত বৃদ্ধি পাচ্ছে। রাষ্ট্র নিয়ন্ত্রিত শিক্ষা প্রতিষ্ঠান জনসংখ্যার তুলনায় অপেক্ষাকৃত অপ্রতুল। ফলে অসংখ্য শিক্ষার্থী ভাল ফলাফল করেও কাঙ্কিত প্রতিষ্ঠানে লেখাপড়ার সুযোগ থেকে বঞ্চিত হচ্ছে। তাই নতুন নতুন সরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান গড়ে তোলার কোনো বিকল্প নেই। বিজ্ঞপ্তি