করোনা থেকে মুক্তি পেতে সিডিএ জামে মসজিদে মাহফিল

35

ইসলামিক ফ্রন্ট বাংলাদেশ এর কেন্দ্রীয় মহাসচিব ও বাংলাদেশ আহলে সুন্নাত ওয়াল জামায়াতের কেন্দ্রীয় প্রেসিডিয়াম সদস্য আন্তর্জাতিক ইসলামিক স্কলার অধ্য আল্লামা জয়নুল আবেদীন জুবাইর বলেছেন- প্রাণঘাতি সংক্রামক “করোনা ভাইরাসের” ভয়াবহতা এখন মহামারি আকার ধারন করে বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে পড়েছে ক্রমাগতভাবে। এযাবত এ ভাইরাসের অশুভ শিকারে পরিণত হয়েছে প্রায় ১৮৩টি দেশ। জিবনবিনাশী এ ভাইরাসের বিষাক্ত ছোবলে ইতোমধ্যে হাজার-হাজার মানুষের প্রাণহানি ঘটেছে। এখনও ক্রমশঃ দীর্ঘ থেকে দীর্ঘতর হচ্ছে লাশের মিছিল। ইতোমধ্যে বাংলাদেশেও এটির প্রাদুর্ভাব দেখা দিয়েছে। মরণঘাতি এ ভাইরাসের স্থায়ী কোন প”তিষেধক না থাকায় এটির মোকাবিলায় আক্রান্ত সকল দেশই কিন্তু আত্নসচেতনতার উপর জোর দিয়েছে । তাই বাংলাদেশেও আত্নসচেতনতার লক্ষে সরকার ও চিকিৎসা বিষয়ক সার্জন প”দত্ত যাবতীয় নির্দেশনার প”তি অধিকতর গুরুত্বারোপ করতে হবে । এছাড়াও আল্লাহর দরবারে সকলকে তাওবা করার আহবান জানিয়ে তিনি আরও বলেন,- জ্বর,সর্দি-কাঁশি জনিত রোগীর চিকিৎসােেত্র চিকিৎসকদের অপারগতা ও অনীহা সংক্রান্ত গণমাধ্যমে প”কাশিত সংবাদ সত্যিই দূঃখজনক। চিকিৎসকদের উপর যদি আতংক ভর করে কিংবা তাদের দায়সারা ভূমিকা পরিলতি হয়,তাহলে কস্মিনকালেও এটির মোকাবিলা সম্ভব নয়। খোদার পরে একজন রোগীর নিকট চিকিৎসকই হচ্ছে অন্যতম ভরসা। তাই সকল কিছুর উর্ধ্বে উঠে মানবিক ও ঈমানী দায়িত্ব হিসেবে একজন রোগীকে নিরবচ্ছিন্ন সেবা দেয়ার জন্য সম্মানিত চিকিৎসকদের প্রতি তিনি বিনীত অনুরোধ জানান। এছাড়াও এক্ষেত্রে পর্যাপ্ত বাজেট বরাদ্দ সহ প্রয়োজনীয় চিকিৎসা উপকরণ ও সরঞ্জামাদি সরবরাহ করে এ বিষয়ে অধিকতর নজরদারি বৃদ্ধি করতে তিনি সরকারের সংশ্লিষ্ট কর্তৃপরে সদয় দৃষ্টি আকর্ষণ করেন। আবার এ সুযোগে এক শ্রেণীর অসাধু ব্যবসায়ী নিত্যপণ্যের মূল্য বৃদ্ধি করে বাজারে অস্থিরতা সৃষ্টির পাঁয়তারায় লিপ্ত রয়েছে। যা নাগরিক জীবনে নেতিবাচক প্রভাব ফেলবে বলে তিনি শংকা প”কাশ করেন। অতএব এ বিষয়টিকেও সংশ্লিষ্ট কর্তৃপকে কঠোর নজরদারির আওতায় আনতে হবে বলে মন্তব্য করেন। অদ্য ২০ মার্চ ২০২০ ইং রোজ শুক্রবার বাদে জুমা আগ্রাবাদ সি ডি এ জামে মসজিদে হাজার-হাজার মুসল্লিদের নিয়ে অনুষ্ঠিত এক দোয়া মাহফিলে তিনি এসব কথা বলেন। প্রাণঘাতি করোনা ভাইরাস থেকে বাংলাদেশ সহ বিশ্ব মানবতার সুরায় খতমে ইউনুস পরিবেশন, আল্লাহর দরবারে তওবাকরণ, মিলাদ-কিয়াম সহ বিশেষ মুনাজাত করা হয়। এসময় হাজার- হাজার মুসল্লিদের বুক ফাটা কান্নার আওয়াজে আকাশ-বাতাস ভারী হয়ে উঠে। বিজ্ঞপ্তি