কবি জোবায়ের কবিতায় আবৃত্তি সন্ধ্যা অনুষ্ঠান ‘জীবনের আনন্দতটে’

26

শিল্পকলার মঞ্চের আলো আঁধারিতে শিল্পীদের একক ও সম্মিলিত উচ্চারণ ‘হাত বাড়িয়ে দিলাম, ধরো। হাতে হাত ধরে গড়ে তুলি মৈত্রী। মানুষ, ধরি মানুষের হাত। এ হাতেই গড়ে তুলি মমতামাখানো আশ্রয়। এসো যুক্ত করি হাতগুলো। ঊর্ধ্বে তুলে ধরি মুষ্টিবদ্ধ হাত। এ হাতের ছোঁয়াতেই হোক অশুভের লয়। হাতে হাত রেখে উচ্চস্বরে বলি। জয় মানুষেরই জয়। গত বুধবার জেলা শিল্পকলা একাডেমি মিলনায়তনে তারুণ্যের উচ্ছ্বাসের ‘জীবনের আনন্দতটে’ শিরোনামের আয়োজনটি ছিল কবি মোহাম্মদ জোবায়ের কবিতাকে ঘিরে কথামালা আবৃত্তি কবিতাপাঠ ও কবিতার গান। অনুষ্ঠান শুরু হয় কবির স্বকন্ঠে কবিতাপাঠের মধ্য দিয়ে। এসময় কবি জীবনী উপস্থাপন করেন আবৃত্তিশিল্পী মিঠু তলাপাত্র। এরপর শুরু হয় আবৃত্তিপর্ব। শুরুতেই মোহাম্মদ জোবায়েরের শিশুতোষ কবিতা আবৃত্তি করেন অপি দেবী, তৃধা সরকার, রাজমনী সেন, সুদেষ্ণা সেন ও জয়ীতা সাদাফ রুপন্তী। ছোটদের কবিতা আবৃত্তির পর কবিকে তারুণ্যের উচ্ছ্বাসের পক্ষ থেকে শুভেচ্ছা জানানো হয়। এ পর্বে তারুণ্যের উচ্ছ্বাস সাধারণ সম্পাদক মো. মুজাহিদুল ইসলামের সঞ্চালনায় এবং সভাপতি ভাগ্যধন বড়ুয়ার সভাপতিত্বে কবিকে শুভেচ্ছা জানিয়ে কথামালায় অংশ নেন আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় উপদপ্তর সম্পাদক ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া, অভিনয় ও আবৃত্তিশিল্পী রোকেয়া প্রাচী, চট্টগ্রাম সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি কবি নাজিমুদ্দীন শ্যামল এবং সম্মিলিত আবৃত্তি জোট চট্টগ্রামের সভাপতি আবৃত্তিশিল্পী অঞ্চল চৌধুরী। এরপর তিনটি পর্বে তারুণ্যের উচ্ছ্বাসের শিল্পীরা মোহাম্মদ জোবায়েরের কবিতা আবৃত্তি করেন। বঙ্গবন্ধু ও বাংলাদেশ শিরোনামের পর্বে আবৃত্তি করেন আবৃত্তিশিল্পী হিরন্ময় বড়ুয়া, এ এফ ফাহিম, সেজুঁতি দে, পিয়া দাশ ও মৌ দত্ত। প্রেমে অপ্রেমে শিরোনামের পর্বে আবৃত্তি করেন আবৃত্তিশিল্পী শ্রাবণী দাশগুপ্তা, কাঁকন আইচ, রবি ভৌমিক, গার্গী দেব ও মৃত্তিকা ধর।
প্রেমে অপ্রেমে ২’ শিরোনামের পর্বে আবৃত্তি করেন আবৃত্তিশিল্পী আরমান হাফিজ, আফরোজা চৌধুরী মুক্তা, সুমি বিশ্বাস, ইমাম হোসাইন এবং সুষ্মিতা দত্ত। তারা কবির মৃত্যুঞ্জয়ী মুজিব, পিতা তোমাকে, জলেশ্বরীর অধিকর্তা, ঠিকানাহীন, কিছুই নেই আগের মতো, জীবনের আনন্দতটে, শিলালিপি প্রভৃতি কবিতাগুলো আবৃত্তি করেন। শেষে মোহাম্মদ জোবায়েরের কবিতার সুরারোপিত গানে পরিবেশন করেন শিল্পী অশোক সেনগুপ্ত ও রুবেল চৌধুরী। বিজ্ঞপ্তি