কক্সবাজার ও আলীকদমে শীতবস্ত্র বিতরণ

কক্সবাজার ও বান্দরবান প্রতিনিধি

12

কক্সবাজার : কক্সবাজারে শহরের অলিগলিতে অসংখ্য পথশিশু ও ছিন্নমূল ভাসমান মানুষের মাঝে শীতবস্ত্র বিতরণ করেছেন জেলা প্রশাসক মো. কামাল হোসেন। গতকাল শনিবার বিকালে শহীদ মিনারে শতাধিক পথশিশু ও শুক্রবার রাতে প্রধান সড়ক ও অলিগলিতে হেঁটে দোকান, যাত্রী ছাউনি ও দেয়াল ঘেঁষে ঘুমিয়ে থাকা ছিন্নমূল মানুষদের খুঁজে বের করে কম্বলসহ প্রয়োজনীয় শীতবস্ত্র পরিয়ে দেন তিনি। এ সময় তাদের শারীরিক অবস্থারও খোঁজখবর নেন। গভীর রাতে শহরের হলিডে মোড় ও লাবণী পয়েন্ট, ৬নং রাস্তার মাথাসহ বিভিন্ন খোলা জায়গা ও ফুটপাতে আশ্রয় নেয়া ছিন্নমূল বৃদ্ধ নারী-পুরুষ ও শিশুরা শীতবস্ত্র পেয়ে জেলা প্রশাসনের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানান।
এ সময় জেলা প্রশাসক মো. কামাল হোসেনের সঙ্গে অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট (এডিএম) মো. শাজাহান আলী, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক এসএম সরওয়ার কামাল, সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান কায়সারুল হক জুয়েল, সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এএইচএম মাহফুজুর রহমান প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।
জেলা প্রশাসক মো. কামাল হোসেন বলেন, প্রথমদিন দুই শতাধিক ছিন্নমূল ও অসহায় পরিবারের মাঝে শীতবস্ত্র বিতরণ করা হয়েছে। শীত শেষ না হওয়া পর্যন্ত এ তৎপরতা অব্যাহত থাকবে বলেও জানান জেলা প্রশাসক।
আলীকদম : বান্দরবানের আলীকদম উপজেলায় দরিদ্র জনগোষ্ঠির মাঝে শীত বস্ত্র ও শিক্ষা উপকরণ বিতরণ করেছে পাবলিক ডোনার নামের একটি বেসরকারি সংস্থা। শুক্রবার উপজেলার চৈক্ষ্যং ইউনিয়নের শীবাতলী গ্রামের ১হাজার ৬০০ মানুষের মাঝে এসব বিতরণ করা হয়। এ সময় সংস্থার সদস্য মুকবল হোসেন জুয়েল, লামা প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক মো.কামরুজ্জামান, স্থানীয় সমন্বয়ক মো. খলিলুর রহমান, ইউনিয়ন পরিষদ সদস্য মাহমুদুর রহমান প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন। দেশের প্রথম কমনওয়েল্থ গেমসে স্বর্ণ পদক বিজয়ী জাতীয় শ্যুটার আতিকুর রহমান ও চট্টগ্রামের ব্যবসায়ী সাইফুদ্দিন জালালীর উদ্যোগে শীতবস্ত্র বিতরণ করা হয়।
এ বিষয়ে স্বর্ণ বিজয়ী জাতীয় শ্যুটার আতিকুর রহমান ও সাইফুদ্দিন জালালী জানান, তারা প্রতি বছর এই এলাকায় দরিদ্র জনগোষ্ঠির মাঝে শীত বস্ত্র বিতরণ করে থাকেন। এরই ধারাবাহিকতায় এ বছরও ৫৫০টি শীত কম্বল, ৬৭০টি সোয়েটার, ৩০০টি শার্ট-প্যান্ট, ১০০টি পাঞ্জাবি, শিশুদের জন্য ২০০টি স্কুল ব্যাগ, ৫০০ ছাত্রদের মাঝে ১৬০০ পিচ খাতা-কলম এবং বেশ কিছু চক-পেন্সিল, রাবার ও ৭০ টি রিচার্জাবল বৈদ্যুতিক বাল্প বিতরণ করা হয়। একই সাথে পীড়িত মানুষের কল্যাণে তারা চিকিৎসা সেবাসহ নানা ধরনের সামাজিক সেবামূলক কাজ করছেন শীবাতলী গ্রামে। এসবের মধ্যে রয়েছে, দরিদ্র পাহাড়ি-বাঙালি শিশুদের মাঝে শিক্ষা সামগ্রী, মেধাবীদের বৃত্তি প্রদান, বিশুদ্ধ পানি চাহিদা পূরণে রিং-টিউব ওয়েল স্থাপন, বিদ্যুৎ বাল্প সরবরাহ প্রদান করে।