১০ লাখ টাকার নির্মাণসামগ্রী লুট

কক্সবাজারে স্মার্ট গ্রুপের অটো গ্যাস ফিলিং স্টেশনে দুর্বৃত্তদের তান্ডব

কক্সবাজার প্রতিনিধি

41

কক্সবাজার সদরের খরুলিয়া মকবুল সওদাগর পাড়ায় স্মার্ট গ্রুপের নির্মাণাধীন অটো গ্যাস ফিলিং স্টেশনে ব্যাপক ভাঙচুর ও তান্ডবলীলা চালিয়েছে সশস্ত্র দুর্বৃত্তরা। লুট করেছে ১০ টন লোহার রড, ৩৫০ বস্তা সিমেন্ট, একটি জেনারেটরসহ অন্তত ১০ লাখ টাকার নির্মাণসামগ্রী। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন ম্যানেজার ফরিদুল ইসলাম (৩১)। তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। গতকাল বুধবার সকাল সাড়ে ১১টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। এ বিষয়ে সদর মডেল থানায় এজাহার দায়ের করা হয়েছে। এতে আবদুর রহিম (৩২), মোবারক হোসেন (৩০), জেসমিন আক্তার (২৮), মরিয়ম খাতুন (৫০), শাহিনা আক্তার (৩৫), শাহাব উদ্দিন (৩০) সহ অজ্ঞাতনামা ২০/২৫ জনকে অভিযুক্ত করা হয়েছে। ম্যানেজার ফরিদুল ইসলাম বাদি হয়ে গতকাল বুধবার কক্সবাজার সদর মডেল থানায় এজাহারটি দায়ের করেন।
তিনি অভিযোগ করেন, দেশের অন্যতম শিল্প প্রতিষ্ঠানে স্মার্ট গ্রুপের অধীনে নির্মাণাধীন অটো গ্যাস ফিলিং স্টেশনের জন্য রড, সিমেন্ট, বালি, কংক্রিট ইত্যাদি নির্মাণসামগ্রী মজুদ করা হয়। কিন্তু তাতে বিভিন্ন সময় বাধা দিয়ে আসছিল এলাকার চিহ্নিত কিছু দুর্বৃত্ত।
তারই ধারাবাহিকতায় ১৫ মে সকাল সাড়ে ১১টায় চিহ্নিত দুর্বৃত্তরা একটি পিকআপ ও দুটি ইসিজি গাড়িযোগে গিয়ে দেশীয় অস্ত্রশস্ত্রে সজ্জিত হয়ে ফিলিং স্টেশনের গোডাউনে ব্যাপক তাÐবলীলা চালায়। আব্দুর রহিম নামের এক ব্যক্তি ঘটনায় নেতৃত্ব দেন। আব্দুর রহিম প্রথমে ম্যানেজার ফরিদুল ইসলামের ডান হাতের বৃদ্ধাঙ্গুলে কোপ মারে। তাকে উদ্ধার করতে গেলে সবাইকে হত্যার হুমকি দেয় দুর্বৃত্তরা। এই ঘটনায় এলাকায় থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে।
এ প্রসঙ্গে কক্সবাজার সদর মডেল থানার ওসি মো. ফরিদ উদ্দিন খন্দকার জানান, এ ঘটনার বিষয়ে লিখিত অভিযোগ দিয়েছে। তদন্তপূর্বক আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।