ওয়াসার কাছে চসিকের পাওনা ও প্রাপ্তি নির্ণয়ে কমিটি গঠিত

28

নগরীর পানি সরবরাহের জন্য চট্টগ্রাম ওয়াসার কাছে চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের রাস্তা কাটার ক্ষতিপূরণের বকেয়া টাকা ও পাওনা ও প্রাপ্তি নির্নয়ের জন্য ৪ সদস্য বিশিষ্ট একটি কমিটি গঠন করা হয়। কমিটির সদস্যরা হলেন চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের প্রধান হিসাব রক্ষন কর্মকর্তা মো. সাইফুদ্দিন আহমদ ও তত্ত¡াবধায়ক প্রকৌশলী আবু ছালেহ এবং ওয়াসার তত্ত¡াবধায়ক প্রকৌশলী মাকসুদ আলম ও মো. আরিফুল ইসলাম। তারা ৭ মার্চ বৃহস্পতিবার ক্ষতিপূরণের তালিকা নির্নয় করে কর্পোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা নিকট হস্তান্তর করবেন। এই রিপোর্টের ভিত্তিতে আগামী সপ্তাহে উচ্চ পর্যায়ে এক বৈঠক অনুষ্ঠিত হবে। এ বৈঠকে দুই সংস্থার উন্নয়ন কাজ সমন্বয় সাধনের জন্য রোড ম্যাপ তৈরি করা হবে। গত রোববার সকালে কর্পোরেশনের কনফারেন্স হলে কর্পোরেশন ও ওয়াসার মধ্যে একটি দ্বি-পক্ষীয় সভায় এ কমিটি গঠন করা হয়। সভায় চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আলহাজ্ব আ জ ম নাছির উদ্দীন উপস্থিত ছিলেন। এতে অন্যান্যের মধ্যে যারা উপস্থিত ছিলেন তারা হলেন চট্টগ্রাম ওয়াসার ব্যবস্থাপনা পরিচালক প্রকৌশলী এ কে এম ফজলুল্লাহ, ওয়াসার প্রধান প্রকৌশলী এয়াকুব সিরাজদ্দৌল্লা এবং কর্পোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মো. সামসুদ্দোহা, প্রধান প্রকৌশলী লে. কর্নেল মহিউদ্দিন আহমেদ, তত্ত¡াবধায়ক প্রকৌশলী আনোয়ারা হোসেন, কামরুল ইসলাম, মনিরুল হুদা, সুদীপ বসাক, অসীম বড়ুয়া, শাহীনুল ইসলাম চৌধুরী, আবু সাদাত মো. তৈয়ব, ফারজানা মুক্তা উপস্থিত ছিলেন।
সভায় মেয়র বলেন, নগরীতে ওয়াসাসহ বিভিন্ন সেবা সংস্থার চলমান উন্নয়ন কাজের জন্য নগরবাসীর সাময়িক দুর্ভোগ হচ্ছে। বর্ষার পূর্বে উন্নয়ন কাজ সম্পন্ন করে ফেলার সময়সীমা নির্ধারণ করা হয়েছে। ইতোমধ্যে চট্টগ্রাম ওয়াসা নগরীর যে সব সড়কে সংযোগ লাইন স্থাপনের কাজ করছে তা দ্রুত শেষ করার তাগিদ দেয়া হয়েছে। বলা হয়েছে গুরুত্বপূর্ণ সড়কের কাজ যাতে আগে শেষ করে। ওয়াসা তাদের কাজ সম্পন্ন করলে চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন সড়কগুলো মেরামতের কাজ করবে।
তিনি চলমান উন্নয়ন কাজের কারণে সাময়িক দুর্ভোগের জন্য নগরবাসীর কাছে দুঃখ প্রকাশ করে বলেন, আমরা চেষ্টা করছি নাগরিক জীবনকে স্বাভাবিক রাখতে। মেয়র ওয়াসার কাজ সম্পন্ন হওয়া সড়কগুলো দ্রুত মেরামতে চসিকের প্রকৌশলীদের নির্দেশ দিয়ে বলেন সংস্কার কিংবা মেরামতকৃত রাস্তা আগামী ১ বছরের মধ্যে কর্তন করার সুযোগ থাকবে না। এ ব্যাপারে তিনি নগরীর সকল সেবাধর্মী প্রতিষ্ঠানকে অবহিত করার জন্য চসিক প্রকৌশলীদেরকে নির্দেশনা দেন। সভায় কর্পোরেশন ও ওয়াসার মধ্যে যৌথভাবে ওয়াসার কাটা সড়কগুলোর ক্ষতিপূরণ পরিমাপের সিদ্ধান্ত, মে মাসের মধ্যে ওয়াসার চলমান আগ্রাবাদ এক্সেস রোডের কাজ ও ডি সি রোডের কাজ দ্রুত শেষ করার সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়। এছাড়াও কর্পোরেশনের যে সব সড়কে এডিপি’র প্রকল্প রয়েছে, সেসব সড়কে ওয়াসার সংযোগ লাইন স্থাপনের কাজ সম্পন্ন হলে উন্নয়ন কাজ করা হবে বলে জানানো হয়। বিজ্ঞপ্তি