এসডিজি ইয়ুথ ফোরামের ক্যাম্পেইন

করোনাসহ সংক্রামক রোগ প্রতিরোধে হাত ধোয়ার অভ্যাস অপরিহার্য

16

‘পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন থাকব বেশ, গড়তে চাই সুন্দর পরিবেশ’, ‘হাত ধোয়ার অভ্যাস গড়ুন, সুস্থ দেহে নীরোগ থাকুন’ ¯েøাগানে বিশ্ব হাত ধোয়া দিবস উপলক্ষে দুইদিনব্যাপী কর্মসূচির প্রথম দিন পালন করলো এসডিজি ইয়ুথ ফোরাম। নিয়মিত হাত ধোয়ার অভ্যাস ও সচেতনতা গড়ে তোলার জন্য প্রতিবছর ১৫ অক্টোবর বিশ্বব্যাপী দিবসটি উদযাপিত হয়। দিবসের এবারের প্রতিপাদ্য ‘সবার জন্য হাত স্বাস্থ্যকরণ’। এই বছরের প্রতিপাদ্যে স্বাস্থ্যকর ভবিষ্যতের জন্য সাবান দিয়ে হাত ধোওয়ার অনুশীলনের উপর গুরুত্বারোপ করা হয়েছে। ১৪ অক্টোবর নগরীর খুলশী থানাধীন ঝাউতলা বাজার সংলগ্ন বস্তি এলাকায় এসডিজি ইয়ুথ ফোরাম’র সভাপতি নোমান উল্লাহ বাহার’র সভাপতিত্বে ও দপ্তর সম্পাদক মিনহাজুর রহমান শিহাবের সঞ্চালনায় হাত ধোয়ার সঠিক নিয়ম প্রদর্শন, সচেতনকরণ ও হাত ধোয়ার সাবানসহ আনুষঙ্গিক উপকরণ বিতরণ কর্মসূচির উদ্বোধন করেন চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক চৌধুরী ফরিদ।
প্রধান অতিথি ছিলেন ইউএসটিসি’র প্রাক্তন উপাচার্য ও জনস্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞ প্রফেসর ডা. প্রভাত চন্দ্র বড়ুয়া। প্রধান বক্তা ছিলেন যুব উন্নয়ন অধিদপ্তরের কোতোয়ালি জোনের কর্মকর্তা মো. জাহান উদ্দিন। স্বাগত বক্তব্য দেন এশিয়ান ইউনিভার্সিটি ফর উইমেনের ট্রাভেল এন্ড লজিস্টিক বিভাগের ম্যানেজার শেখ ইমরান হোসেন। বিশেষ অতিথি ছিলেন ওব্যাট হেল্পার্সের প্রোগ্রাম ম্যানেজার সোহেল আক্তার খান, লেখক ও সমাজকর্মী এ আর বাহাদুর বাহার, ভলেন্টিয়ার ফর বাংলাদেশ-চট্টগ্রাম বিভাগের সভাপতি মো. শওকত আরাফাত, তারুণ্যের প্রতীক বাংলাদেশের সভাপতি জি এম তাওসীফ, সাধারণ সম্পাদক মো. আহসান উল্লাহ খান, চন্দনাইশ ছাত্র সমিতির সাধারণ সম্পাদক আব্দুল মন্নান হৃদয়, ওব্যাট প্রাইমারী স্কুলের সহকারী প্রধান শিক্ষক ইসরাত পারভীন, ওব্যাট থিঙ্ক ট্যাঙ্ক কর্ণফুলীর সভাপতি মো. ইমরান প্রমুখ।
এসময় অধ্যাপক ডা. প্রভাত চন্দ্র বড়ুয়া বলেন, প্রতিনিয়তই আমরা অপরিষ্কার হাত দিয়ে আমাদের চোখ, নাক স্পর্শ করে থাকি। এতে আমাদের হাতের জীবাণু দেহে প্রবেশ সহজ হয়ে যায়। অপরিচ্ছন্ন হাত দিয়ে খাবার প্রস্তুুত বা খাওয়া অস্বাস্থ্যকর অভ্যাস। টয়লেট ব্যবহারের পর ঠিকভাবে হাত পরিষ্কার না করা নানা অসুখের কারণ। টেকসই উন্নয়ন নিশ্চিতে সকলের স্বাস্থ্য সুরক্ষা জরুরী আর হাত স্বাস্থ্যকরণ এজন্য অত্যাবশ্যক।
চৌধুরী ফরিদ উদ্বোধনী বক্তব্যের শুরুতে ঘনবসতিপূর্ণ ও নগরীর মধ্যে পিছিয়ে পড়া এলাকাকে কর্মসূচির স্থান হিসেবে বেছে নেওয়ার জন্য এসডিজি ইয়ুথ ফোরামকে ধন্যবাদ জানান। ব্যক্তিগত স্বাস্থ্য সুরক্ষার অংশ হিসেবে নিয়মিত হাত ধোয়ার ব্যাপারে সচেতন হওয়ার বিকল্প নেই বলে জানান তিনি।
জাহান উদ্দীন বলেন, হাত ধোয়া কর্মসূচির দুইদিনব্যাপী কার্যক্রম পিছিয়ে পড়া এলাকাগুলোর জনগোষ্ঠীর মাঝে সচেতনতা জাগ্রত করবে।
নোমান উল্লাহ বাহার বলেন, কোভিড-১৯ মহামারী সবাইকে বুঝিয়ে দিয়েছে যেকোন ধরনের ভাইরাসের বিস্তার রোধ করতে এবং সার্বিকভাবে সুস্বাস্থ্য রক্ষার অন্যতম উপায় হ্যান্ড-ওয়াশিং। বিজ্ঞপ্তি