উত্তর কোরিয়া ‘পূর্ণ নিরস্ত্রীকরণ’ চায় : দক্ষিণ কোরিয়া

31

উত্তর কোরিয়া কোনো শর্ত ছাড়াই কোরিয়া উপদ্বীপ সম্পূর্ণরূপ ‘পরমাণু অস্ত্র মুক্ত’ করতে চায় বলে জানিয়েছেন দক্ষিণ কোরিয়ার প্রেসিডেন্ট মুন জায়ে-ইন। বৃহস্পতিবার মুন সাংবাদিকদের বলেন, উত্তর কোরিয়া সম্পূর্ণরূপে পরমাণু নিরস্ত্রীকরণ চায়। (পরমাণু প্রকল্পে লাগাম দেওয়ার বিনিময়ে) তারা এমন কোনো শর্ত আরোপ করবে না যেটা যুক্তরাষ্ট্র মানবে না। যেমন তারা দক্ষিণ কোরিয়া থেকে মার্কিন সেনাদের প্রত্যাহার করার শর্ত দেবে না। বরং তারা নিরাপত্তার নিশ্চয়তা পাওয়াসহ উত্তর কোরিয়ার বিরুদ্ধে সব ধরনের বৈরি নীতির অবসান চাইছে।
আগামী সপ্তাহে দক্ষিণ কোরিয়ার প্রেসিডেন্ট মুন জায়ে-ইন এবং উত্তরের নেতা কিম জং উনের মধ্যে মুখোমুখি বৈঠক হওয়ার কথা রয়েছে। ১৯৫০-৫৩ পর্যন্ত দুই কোরিয়ার যুদ্ধ হয়েছিল। যুদ্ধ সমাপ্তিতে কোনো শান্তিচুক্তি না হওয়ায় উত্তর ও দক্ষিণ কোরিয়া এখনও ‘কার্যত যুদ্ধবিরতির’ মধ্যে আছে। মুন-কিম বৈঠকে দীর্ঘদিনের ওই যুদ্ধের অবসান ঘটাতে শান্তিচুক্তি হতে পারে।
যুদ্ধের সমাপ্তি টানতে শান্তিচুক্তি নিয়ে দুই কোরিয়ার সম্ভাব্য আলোচনায় আগেই নিজের ‘আশীর্বাদ’ পাঠিয়েছেন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। ওই বৈঠকের বিষয়ে মুন বলেন, উত্তর ও দক্ষিণ কোরিয়ার মধ্যে আসন্ন সম্মেলন পরিকল্পনা অনুযায়ী এগোলে দুই কোরিয়া ও যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যে সম্পর্ক স্বাভাবিক করা কঠিন হবে না। আলোচনার মাধ্যমে উত্তর কোরিয়ার পরমাণু প্রকল্পে লাগাম টানা সম্ভব হলে দেশটির অর্থনৈতিক উন্নয়নে আন্তর্জাতিক সহায়তা পাওয়া যাবে বলেও আশা প্রকাশ করেন তিনি। তবে দুই কোরিয়ার বৈঠকে অনেক ‘সীমাবদ্ধতা’ আছে বলে জানান মুন।
তিনি বলেন, “শুরুতেই বলতে হয়, দক্ষিণ-উত্তর কোরিয়ার বৈঠক অবশ্যই শুভ সূচনা। উত্তর কোরিয়া-যুক্তরাষ্ট্র সম্মেলনের ফল কি হয় আমরা তা দেখার অপেক্ষায় আছি। মনে হচ্ছে দুই কোরিয়ার আলোচনা অবশ্যই অব্যাহত থাকবে।”