ইউরোপ স্বার্থপর হতে পারে না ফ্রান্স আছে : ইতালিকে ম্যাক্রোঁ

25

প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসে ইতালির বিপর্যস্ত অবস্থায় ইউরোপ ‘স্বার্থপরের মতো আচরণ’ করতে পারে না বলে মন্তব্য করেছেন ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রোঁ। ইতালির তিনটি শীর্ষ দৈনিককে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে তিনি এমনটি বলেছেন বলে জানিয়েছে বার্তা সংস্থা রয়টার্স। ফরাসী প্রেসিডেন্ট বলেন, ইতালিকে সাহায্যে ফ্রান্স প্রস্তুত আছে। করোনাভাইরাস মোকাবেলায় রাশিয়া ও চীনের সাহায্য নিতে তাদের সঙ্গে ইতালিয়ানদের আলোচনায় নিজের উদ্বেগও প্রকাশ করেছেন তিনি। “ফ্রান্স ইতালির পাশে আছে। চীনা ও রুশ সাহায্য নিয়ে ব্যাপক কথা হচ্ছে কিন্তু কেন আমরা বলতে পারছি না যে ফ্রান্স ও জার্মানি ইতালিকে ২০ লাখ মাস্ক ও কয়েক লাখ গাউন দেবে?, এটা হয়তো যথেষ্ট নয়, এটা শুরু; কিন্তু আমাদের কেবল নিজেদের নিয়ে মত্ত থাকা উচিত নয়, যেমনটা আমাদের প্রতিদ্ব›দ্বী ও অংশীদাররা বলে, ” লো রিপাবলিকা, কুরিয়ের দে লা সেরা ও লো স্তাম্পাকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে বলেছেন ম্যাক্রোঁ। করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যায় শুক্রবার চীনকে টপকানো ইতালি প্রথমে ফ্রান্স ও জার্মানির কাছেই মাস্ক ও চিকিৎসা উপকরণের জন্য হাত পেতেছিল। দেশদুটি রাজি না হওয়ায় রোম পরে চীন ও রাশিয়ার দিকে মুখ ঘুরিয়ে নেয়। ইউরোপের প্রভাবশালী দুই দেশ সহায়তা না করায় ইতালি তাদের সমালোচনা করার পাশাপাশি ইউরোপীয় সংহতি নিয়েও প্রশ্ন তুলেছিল। চীন এরই মধ্যে ইতালির জন্য বিমানভর্তি মাস্ক ও চিকিৎসা সরঞ্জাম পাঠিয়েছে; রোমের ডাকে সাড়া দিয়েছে রাশিয়াও।
“আমরা যদি সংহতি না দেখাই, ইতালি, স্পেন ও ইউরোপের অন্য দেশগুলো তখন তাদের ইউরোপীয় অংশীদারদের বলবে- আমরা যখন লড়াইয়ে ছিলাম, তোমরা তখন কোথায় ছিলে? আমি এ ধরনের স্বার্থপর ও বিভক্ত ইউরোপ চাই না,” বলেছেন ফরাসী প্রেসিডেন্ট। ইতালির জন্য সহায়তার হাত বাড়িয়ে দিতে চাইলেও ফ্রান্সের নিজের অবস্থাও খুব একটা সুবিধার নয়। শুক্রবার পর্যন্ত দেশটিতে ৩৩ হাজার ৪১৪ জনের দেহে কভিড-১৯ ধরা পড়েছে। মৃতের সংখ্যাও দুই হাজার ছুঁইছুঁই।