হাটহাজারী মাদ্রাসা শিক্ষকদের বিবৃতি

আল্লামা শফীর মৃত্যু স্বাভাবিকভাবে হয়েছে

হাটহাজারী প্রতিনিধি

17

ছাত্র আন্দোলনে মাদ্রাসার কোন শিক্ষক এবং বহিরাগত কোন সংগঠন ও ব্যক্তির উস্কানি বা সম্পৃক্ততা ছিল না। এছাড়া মাদ্রাসার বর্তমান পরিস্থিতি শান্ত। ছাত্র আন্দোলনের মুখে মাদ্রাসার সাবেক মহাপরিচালক আল্লামা শাহ্ আহমদ শফী স্বজ্ঞানে এবং স্বেচ্ছায় মাদ্রাসার মজলিসে শুরা কমিটির হাতে মহাপরিচালকের দায়িত্ব সোপর্দ করেন। এছাড়া তাঁর মৃত্যু স্বাভাবিকভাবে হয়েছে- এমন দাবি করেছেন হাটহাজারী মাদ্রাসার জ্যেষ্ঠ শিক্ষকরা।
গতকাল সোমবার সকালে গণমাধ্যমে প্রেরিত মাদ্রাসার জ্যেষ্ঠ শিক্ষকদের স্বাক্ষরিত বিবৃতিতে এ দাবি করা হয়েছে। এছাড়া আল্লামা শফীর মৃত্যু নিয়ে কাউকে রাজনীতি না করারও আহব্বান জানান তারা।
এর আগে গত রবিবার রাতে মাদ্রাসার সভাকক্ষে পরিচলানা কমিটির প্রধান আল্লামা মুফতী আজম আবদুচ্ছালাম চাটগামীর সভাপতিত্বে জরুরি বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। বৈঠক শেষে মাদ্রাসার জ্যেষ্ঠ শিক্ষকদের সর্বসম্মতিক্রমে উক্ত বিবৃতি গণমাধ্যমে প্রেরণ করা হয়েছে বলে সংশ্লিষ্ট সূত্র নিশ্চিত করেন।
বিবৃতিদাতারা হলেন, মাদ্রাসা পরিচলানা কমিটির প্রধান আল্লামা মুফতী আজম আবদুচ্ছালাম চাটগামী, মজলিসে ইলমের সদস্য আল্লামা মুফতী নূর আহমদ, মাদ্রাসা পরিচালনা কমিটির সদস্য আল্লামা শেখ আহমদ, মাদ্রাসার শিক্ষা পরিচালক ও হেফাজত মহাসচিব শায়খুল হাদীস আল্লামা জুনায়েদ বাবুনগরী, সহকারী শিক্ষা সচিব আল্লামা হাফেজ শোয়াইব, পরিচালনা কমিটি সদস্য মাওলানা ইয়াহইয়া, মজলিসে ইলমের সদস্য মাওলানা ওমর মেখলী, প্রধান নাজেমে দারুল ইকামা মাওলানা মুফতী জসীম উদ্দীন, দারুল ইকামার সদস্য মাওলানা কবীর আহমদ, দারুল ইকামার সদস্য মাওলানা আশরাফ আলী নেজামপুরী, জ্যেষ্ঠ শিক্ষক মাওলানা হাফেজ আহমদ দিদার কাসেমী ও দারুল ইকামার সদস্য মাওলানা ফোরকান আহমদ।
বিবৃতিতে শিক্ষকরা বলেন, বর্তমানে হাটহাজারী মাদ্রাসার পরিবেশ খুবই ভালো। নিয়মিত ক্লাস ও হাইআতুল উলয়ার পরীক্ষা সুন্দরভাবে চলছে। মাদ্রাসার শিক্ষক, ছাত্র এবং এলাকাবাসী খুবই সন্তুষ্ট। ছাত্র আন্দোলনে মাদ্রাসার কোন শিক্ষক এবং বাইরের কোন সংগঠন ও ব্যক্তির উস্কানি বা সম্পৃক্ততা ছিল না।
আল্লামা শফীর মৃত্যুর জন্য কাউকে দায়ী করা নির্জলা মিথ্যাচার উল্লেখ করে বিবৃতিদাতারা বলেন, সর্বজন শ্রদ্ধেয় আলেম আল্লামা শফী স্বজ্ঞানে এবং স্বেচ্ছায় হাটহাজারী মাদ্রাসা মজলিসে শুরা কমিটির হাতে মহাপরিচালকের দায়িত্ব সোপর্দ করে গেছেন এবং তাঁর মৃত্যু স্বাভাবিকভাবে হয়েছে। কিন্তু কোন নির্দিষ্ট গোষ্ঠী হীনস্বার্থ উদ্ধারে হযরতের মৃত্যু নিয়ে রাজনীতি এবং কওমী অঙ্গনে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টির পাঁয়তারা চালচ্ছে। আল্লামা শফীর মৃত্যুতে শিক্ষকরা অত্যন্ত মর্মাহত ও শোকাহত।
বিবৃতিতে দেশবাসীর প্রতি আল্লামা শফীর আত্মার মাগফিরাত কামনা করা হয়। এছাড়া দারাজাত বুলন্দির জন্য বিশেষভাবে দোয়া এবং মাদ্রাসার ইতিহাস ঐতিহ্য অক্ষুণ্ণ রাখতে অতীতের ন্যায় ভবিষ্যতেও মাদ্রাসার উন্নয়ন ও সার্বিক সহযোগিতায় এগিয়ে আসার জন্য আহবান জানানো হয়।