আমির খসরুর রিট কার্যতালিকা থেকে বাদ

পূর্বদেশ ডেস্ক

14

অবৈধ অর্থ লেনদেন ও অর্থ পাচারের অভিযোগে দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) তলবের বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য আমির খসরু মাহমুদ চৌধুরীর রিট আবেদন কার্যতালিকা থেকে বাদ দিয়েছে হাই কোর্ট। বিচারপতি বোরহান উদ্দিন ও বিচারপতি মো. মোস্তাফিজুর রহমানের হাই কোর্ট বেঞ্চ গতকাল বুধবার এ আদেশ দেয়। আদালতে আমির খসরুর পক্ষে আইনজীবী ছিলেন মওদদু আহমদ। দুদকের পক্ষে ছিলেন আইনজীবী খুরশীদ আলম খান। খবর বিডিনিউজের
পরে খুরশীদ আলম খান সাংবাদিকদের বলেন, আমির খসরুর আইনজীবীর আবেদনে আদালত বিষয়টি আউট অব লিস্ট করেছেন।
তারা এখন অন্য বেঞ্চে এ আবেদন নিয়ে যেতে পারবেন।
অবৈধ লেনদেন, অর্থ পাচার, অবৈধ সম্পদ অর্জনের অভিযোগে বিএনপি নেতা আমীর খসরুকে তলব করে গত ১৬ অগাস্ট নোটিস দেয় দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)।
দুদকের পরিচালক কাজী শফিকুল আলম স্বাক্ষরিত ওই নোটিসে ২৮ অগাস্ট বিএনপির স্থায়ী কমিটির এই সদস্যকে সেগুনবাগিচায় দুদক কার্যালয়ে হাজির হতে বলা হয়।
নোটিসে বলা হয়, ব্যবসায়ী আমির খসরুর বিরুদ্ধে বেনামে পাঁচ তারকা হোটেল ব্যবসা, ব্যাংকে কোটি কোটি টাকা অবৈধ লেনদেনসহ বিভিন্ন দেশে অর্থ পাচারের পাশাপাশি স্ত্রী, পরিবারের অন্যান্য সদস্য ও নিজের নামে নামে শেয়ার ক্রয়সহ জ্ঞাত আয় বহির্ভূত সম্পদ অর্জনের অভিযোগ পেয়েছে দুদক।
দুদকের আইনজীবী খুরশীদ আলম খান বলেন, নোটিসের পর আমির খসরু এক মাস সময় চেয়ে আবেদন করেছিলেন। এরপর তাকে সময় দিয়ে ১০ সেপ্টেম্বর হাজির হতে আরেকটি নোটিস দেয় দুদক। কিন্তু এর মধ্যেই তিনি নোটিসের বৈধতা নিয়ে গত সোমবার রিট আবেদন করেন।